Home /News /business /

Union Budget 2022|Budget 2022: বড় সম্ভাবনা! বাজেটে ক্রিপ্টোকারেন্সির বিষয়ে কী থাকতে পারে!

Union Budget 2022|Budget 2022: বড় সম্ভাবনা! বাজেটে ক্রিপ্টোকারেন্সির বিষয়ে কী থাকতে পারে!

প্রতীকী ছবি ৷

প্রতীকী ছবি ৷

Union Budget 2022|Budget 2022: মনে করা হচ্ছে আসন্ন বাজেটে ক্রিপ্টোকারেন্সি নিয়ে কিছু ঘোষণা করা হতে পারে।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: ভারতের ফিনান্স সেক্টরে বিগত কয়েক বছরে বেশ কিছু পরিবর্তন হয়েছে। এর সবথেকে বড় উদাহরণ হল ক্রিপ্টোকারেন্সি। ক্রিপ্টোকারেন্সিতে বিনিয়োগের পরিমাণ তেজ গতিতে বেড়ে চলেছে। একটি তথ্য অনুযায়ী ভারতের ক্রিপ্টোকারেন্সির বাজারে বিনিয়োগের পরিমাণ প্রায় ৪৫,০০০ কোটি টাকার বেশি। ভারতের প্রায় দেড় থেকে দুই কোটি মানুষ ক্রিপ্টোকারেন্সিতে বিনিয়োগ করেছে। পুরো বিশ্বের মধ্যে যা সবথেকে বেশি।

অনুমান করা হচ্ছে যে ২০৩২ সালের মধ্যে ভারতের অর্থব্যবস্থায় এই ডিজিটাল অ্যাসেটের যোগদানের পরিমাণ হতে পারে প্রায় ১ লাখ কোটি ডলার। ২০২০ সালে অনেক ক্ষেত্রের চাকরি চলে গেলেও ক্রিপ্টোকারেন্সির বাজার নতুন অনেক চাকরির বাজার সৃষ্টি করেছে। এর মধ্যেই শোনা গিয়েছিল যে ভারতে বন্ধ করে দেওয়া হতে পারে ক্রিপ্টোকারেন্সি। কিন্তু ক্রিপ্টোকারেন্সিতে বিপুল পরিমাণে বিনিয়োগের ফলে সেই সম্ভাবনা খুবই কম।

আরও পড়ুন:  Home Loan: নভি অ্যাপের মাধ্যমে বাড়িতে বসেই পাবেন ৫ কোটি টাকা পর্যন্ত হোম লোন! সুদের হার মাত্র ৬.৪৬%!

 

ক্রিপ্টোকারেন্সি নিয়ে একটি বিলের প্রস্তাব রাখা হয়েছে। ক্রিপ্টোকারেন্সির বাজারের ওপরে ভারতের রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া (RBI) নজর রেখে চলেছে। মনে করা হচ্ছে আসন্ন বাজেটে ক্রিপ্টোকারেন্সি নিয়ে কিছু ঘোষণা করা হতে পারে। মনে করা হচ্ছে শেয়ার বাজারে যেমন সকলেই বিনিয়োগ করতে পারে, তেমনই ক্রিপ্টোকারেন্সির বাজারেও সকলের বিনিয়োগের ওপর গুরুত্ব দেওয়া হতে পারে। যদি কেন্দ্রীয় সরকার এই পথে হাটে তাহলে ভারতের ক্রিপ্টোকারেন্সির বাজারে একটি স্থিরতা আসতে পারে এবং রিটেল বিনিয়োগকারীদের কাছে একটি নতুন অ্যাসেটের পথ খুলে যেতে পারে।

আরও পড়ুন:  Union Budget 2022|Budget 2022: ২০২২ সালের বাজেটে সৌর প্যানেলের সেক্টরে বড় ঘোষণা করা হতে পারে

ভারতে এখনও ক্রিপ্টোকারেন্সি নির্ভরযোগ্য বিনিয়োগের মাধ্যম হিসাবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে পারেনি। অনেকেই ক্রিপ্টোকারেন্সির বাজার সম্পর্কে সম্পূর্ণরূপে ওয়াকিবহল নয়। এর ফলে এই ধরনের ডিজিটাল অ্যাসেটকে অনেকটা পথ অতিক্রম করতে হবে। এর জন্য দরকার সঠিক নীতি ও নিয়মের। ভারত সরকার যদি ক্রিপ্টোকারেন্সি নিয়ে ইতিবাচক কিছু পরিকল্পনা করে থাকে, তাহলে তাদের উচিত আসন্ন বাজেটে ক্রিপ্টোকারেন্সির রূপরেখা নির্ধারণ করা। কেন্দ্রীয় সরকার এই বিষয়ে হস্তক্ষেপ করলে আমজনতার মনে ক্রিপ্টোকারেন্সি নিয়ে উৎসাহ তৈরি হবে।

এর ফলে ভারতের জনতার কাছে খুলে যাবে বিনিয়োগের নতুন মাধ্যম। যেখানে বিনিয়োগ করলে ভালো রিটার্ন পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার নেতৃত্বে ভারতের ক্রিপ্টোকারেন্সির বাজারের সঠিক নীতি রূপায়ণের দরকার রয়েছে। এর ফলে বেআইনি লেনদেন বন্ধ হয়ে বিনিয়োগের সঠিক মাধ্যম হিসাবে প্রতিষ্ঠা লাভ করতে পারবে ক্রিপ্টোকারেন্সি। এখন দেখার আসন্ন বাজেটে ক্রিপ্টোকারেন্সি নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকার কী ভূমিকা পালন করে!

First published:

Tags: Budget 2022, Union Budget 2022

পরবর্তী খবর