Home /News /business /
Investment Tips: ঝুঁকি এবং রিটার্নের হিসেবে বিনিয়োগ করুন এই ৪টি বিকল্পে

Investment Tips: ঝুঁকি এবং রিটার্নের হিসেবে বিনিয়োগ করুন এই ৪টি বিকল্পে

বিনিয়োগের আগে জেনে নিন কোথায় কতটা ঝুঁকি৷ প্রতীকী ছবি

বিনিয়োগের আগে জেনে নিন কোথায় কতটা ঝুঁকি৷ প্রতীকী ছবি

এই প্রতিবেদনে ৪টি সম্পদ শ্রেণী ও তাদের ঝুঁকি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হল।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: বিনিয়োগকারীদের সুবিধার কথা মাথায় রেখে একই রকম লগ্নির বিকল্পকে একটি শ্রেণি বা বিভাগের মধ্যে রাখা হয়। এই বিভাগগুলিকে সম্পদ শ্রেণি(Investment asset) বলা হয়। এর বৈশিষ্ট্য হল, একই রকম ঝুঁকি, সুদের হার বা রিটার্নযুক্ত বিনিয়োগের বিকল্পগুলিকে একই শ্রেণির মধ্যে রাখা হয়। একটি সম্পদ শ্রেণির প্রতিটি বিকল্পের জন্য একই রকম নিয়ম ও গাইডলাইন কাজ করে। উদাহরণস্বরূপ, স্বল্পমেয়াদী সমস্ত বিকল্পকে একটি শ্রেণির মধ্যে রাখা হয় এবং দীর্ঘমেয়াদী সমস্ত বিকল্পকে অন্য একটি শ্রেণিতে ধরা হয়।

এই প্রতিবেদনে ৪টি সম্পদ শ্রেণি ও তাদের ঝুঁকি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হল।

সেভিংস অ্যাকাউন্ট

ভারতে বিনিয়োগের সবচেয়ে জনপ্রিয় বিকল্প হল সেভিংস অ্যাকাউন্ট। প্রতিটি ব্যাঙ্ক সেভিংস অ্যাকাউন্টে গ্রাহকদের আকর্ষণীয় অফার প্রদান করে থাকে। সেভিংস অ্যাকাউন্ট অনেক রকমের হয় এবং প্রত্যেক ক্ষেত্রেই ব্যাঙ্কগুলি ভিন্ন ভিন্ন সুবিধা দিয়ে থাকে। অন্যান্য যে কোনও বিনিয়োগের তুলনায় সেভিংস অ্যাকাউন্টে ঝুঁকি অনেকগুন কম। একটি সেভিংস অ্যাকাউন্ট চালু করার আগে গ্রাহকদের ন্যূনতম ব্যালেন্স, সুদের হার, বার্ষিক ফি এবং অন্যান্য অতিরিক্ত চার্জ রয়েছে কিনা জেনে নেওয়া উচিত।

আরও পড়ুন: রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কগুলির বেসরকারিকরণের জন্য কী কী পদক্ষেপ নেওয়া হতে পারে বাজেটে?

ফিক্সড ইনকাম অ্যাসেট

বিনিয়োগে নিয়মিত আয় লাভ করার সবচেয়ে উপযুক্ত বিকল্প হল ফিক্সড ডিপোজিট। এই ক্ষেত্রে ঝুঁকির পরিমাণ শূন্য ফলে রিটার্নের সুযোগও লগ্নির অন্যান্য বিকল্পের তুলনায় কম কিন্তু সেভিংস অ্যাকাউন্টের তুলনায় বেশি। বিনিয়োগকারীর লক্ষ্যের ওপর ভিত্তি করে স্বল্প বা দীর্ঘ মেয়াদের জন্য ফিক্সড ডিপোজিটে লগ্নি করা যেতে পারে। ফিক্সড ডিপোজিট ছাড়াও নিয়মিত আয়ের জন্য সরকারি প্রকল্পে বিনিয়োগের সুযোগও রয়েছে। এই বিকল্পভগুলি হল পিপিএফ, ইপিএফ এবং সিনিয়র সিটিজেন স্কিম।

আরও পড়ুন: ২০১৭ সালে রেল বাজেটকে কেন কেন্দ্রীয় বাজেটে জুড়ে দেওয়া হয়? জানুন কারণ

মিউচুয়াল ফান্ড / ইটিএফ

মিউচুয়াল ফান্ড হল একধরনের মূলধন তহবিল যেখানে একাধিক বিনিয়োগকারীর টাকা এক সংগ্রহ করা হয়। প্রত্যেক তহবিলের একজন করে ফান্ড ম্যানেজার থাকে। এই ম্যানেজার মার্কেট রিস্ক এবং রিটার্ন বিচার করে ফান্ডের অর্থ শেয়ার, কর্পোরেট বন্ড এবং সরকারি বন্ড জাতীয় বিভিন্ন সেক্টরে বিনিয়োগ করে। বিনিয়োগের লাভ/লোকসান ফান্ডের সদস্যদের মধ্যে তাদের বিনিয়োগের অনুপাতে ভাগ করে দেয় হয়। মিউচুয়াল ফান্ডে ঝুঁকি মাঝারি ধরনের হয়।

শেয়ার বা স্টক

বিভিন্ন কর্পোরেশন তাদের কোম্পানির ছোট ছোট অংশ শেয়ার হিসেবে বিক্রি করে। একটি শেয়ার একটি কোম্পানির নির্দিষ্ট শতাংশ মালিকানা নির্দেশ করে। কোম্পানির পারফর্মেন্সের ওপর শেয়ার মূল্যের হ্রাস বৃদ্ধি নির্ভর করে। শেয়ারে যেমন উচ্চ রিটার্নের সম্ভাবনা থাকে একই সঙ্গে ঝুঁকির পরিমাণ তুলনামূলক বেশি হয়।

Published by:Debamoy Ghosh
First published:

Tags: Investment, Investment Tips

পরবর্তী খবর