corona virus btn
corona virus btn
Loading

খবর সুবিধার নয়, আগামী দিনে বাড়তে পারে ট্রেনের ভাড়া ! খরচ হবে অনেকটাই বেশি

খবর সুবিধার নয়, আগামী দিনে বাড়তে পারে ট্রেনের ভাড়া ! খরচ হবে অনেকটাই বেশি
Representational Image

আগামীদিনে ভারতীয় রেলওয়ের নীতি নির্ধারণ ও পদক্ষেপগুলি বাড়াতে পারে ট্রেনের ভাড়া। আপাতত এমনই ইঙ্গিত মিলছে।

  • Share this:

#কলকাতা: ট্রেনে চড়লে এ বার যথেষ্ট টাকা খরচ করতে হবে। দীর্ঘ দিনের সস্তার টিকিটের বিষয়টিও এ বার ভুলতে হবে। কারণ আগামীদিনে ভারতীয় রেলওয়ের নীতি নির্ধারণ ও পদক্ষেপগুলি বাড়াতে পারে ট্রেনের ভাড়া। আপাতত এমনই ইঙ্গিত মিলছে।

বিশেষজ্ঞদের মতে ট্রেনের বেসরকারিকরণের সূত্র ধরে ভাড়ার ক্ষেত্রে নানারকম ছাড় শীঘ্রই উঠে যেতে পারে। ট্রেনের পরিষেবা ভাল হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে বাড়বে ট্রেনে চড়ার টাকাও। এ ছাড়াও প্ল্যাটফর্ম টিকিট ও পার্কিং টিকিটে চাপতে পারে নানা শুল্ক। ইতিমধ্যে তার অল্পবিস্তর ইঙ্গিতও মিলেছে। বর্তমানে যে ফেস্টিভ্যাল স্পেশাল ট্রেনগুলি চালানো হচ্ছে, সেগুলির ভাড়া মূল ভাড়ার থেকে প্রায় ৩০ শতাংশ বেশি। লকডাউনের আগে ভাড়ার ক্ষেত্রে যে ছাড়গুলি ছিল, ইতিমধ্যেই তার অনেকটাই তুলে দেওয়া হয়েছে। যা নিয়ে সরব হয়েছেন বিরোধীরা। এই পরিস্থিতিতে আসুন দেখে নেওয়া যাক, ট্রেনের ভাড়া বৃদ্ধিতে কোন বিষয়গুলি গুরুত্বপূর্ণ হতে পারে।

প্রাইভেট ট্রেন

বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, রেলে বেসরকারিকরণের পিছনে কিছু কারণ রয়েছে। এ ক্ষেত্রে বিনিয়োগ বৃদ্ধি ও প্রযুক্তিগত উন্নয়নের লক্ষ্যেই বেসকারিকরণের প্রচেষ্টা করা হচ্ছে। তবে বেসরকারিকরণে রেল পরিবহনের ক্ষেত্রে একাধিক পরিবর্তন আসবে। এখন ট্রেনে যা ভাড়া, ভবিষ্যতে বেসরকারিকরণ হলে ট্রেনের ভাড়া বাড়তে পারে। শোনা গিয়েছে, পুরো রেল নেটওয়ার্কের শুধুমাত্র ১০৯টি রুটে প্রাথমিক ভাবে প্রাইভেট ট্রেন চলবে। এ ক্ষেত্রে আগামী দিনে ভাড়া বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

ইউজার চার্জ

এ ক্ষেত্রে দিল্লি রেলওয়ে স্টেশনের প্রিলিমিনারি ইনফরমেশন মেমোরেন্ডাম ফর ডেভেলপমেন্টের তরফে যাত্রীদের উপর দু'ধরনের শুল্কের কথা বলা হয়েছে। একটি হল ইউজার চার্জ। অন্যটি হল ভিজিটরদের জন্য অর্থাৎ যাঁরা প্ল্যাটফর্ম টিকিট কাটছেন বা রেলওয়ে স্টেশনে গাড়ি পার্কিং করছেন। তবে এ নিয়ে কোনও পাকাপাকি সিদ্ধান্তের ইঙ্গিত পাওয়া যায়নি। তবে বিশেষজ্ঞদের মতে, প্রতিটি জায়গায় পার্কিং অত্যন্ত ব্যয়বহুল। কারণ ধীরে ধীরে জায়গার পরিমাণও কমছে। তাই শুল্ক চাপতেই পারে। অন্য দিকে, প্ল্যাটফর্ম টিকিট থেকে যে টাকা আয় হয়, তা রেলের সামগ্রিক আয়ের ক্ষেত্রে অত্যন্ত কম। তবে এই ক্ষেত্রগুলিতে যদি টাকার পরিমাণ বাড়ানো যায় বা শুল্কের উপর কোনও গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেওয়া যায়, তা হলে আয় বাড়তে পারে। এ ক্ষেত্রে এই দিক থেকেও আগামী দিনে ভাড়া বাড়তে পারে।

রেলের আয়

২০২০-২১ অর্থবর্ষের প্রথমার্ধে ভারতীয় রেলের আয় যে খুব একটা ভাল নয়, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। এ বিষয়ে রেলওয়ে বোর্ডের চেয়ারম্যান ভি কে যাদব জানাচ্ছেন, করোনা আর দীর্ঘ লকডাউনে ট্রেন পরিষবা বন্ধ থাকায় যথেষ্ট পরিমাণে আয় কমেছে রেলের। এ ক্ষেত্রে সেপ্টেম্বর থেকে একটু উন্নতি দেখা গিয়েছে। সাম্প্রতিক IR ডাটা অনুযায়ী, এপ্রিল মাসের ১ তারিখ থেকে ২০ অক্টোবর পর্যন্ত রেলের আয় ২,২৪৫.৩ কোটি টাকা। তবে অক্টোবরের পর থেকে এই চেহারায় একটু উন্নতি হতে শুরু করেছে। কিন্তু আগামীদিনে রেলের আয় বাড়াতে ও নানা পরিষেবা সচল করার লক্ষ্যে ট্রেনের ভাড়া বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: October 22, 2020, 6:59 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर