এক বছরে ২৬০০ ইউনিটেরও বেশি বিক্রি, দেশের সর্বাধিক কেনা গাড়ি-Tata Nexon EV!

এক বছরে ২৬০০ ইউনিটেরও বেশি বিক্রি, দেশের সর্বাধিক কেনা গাড়ি-Tata Nexon EV!

টাটা নিক্সন।

গাড়িপ্রস্তুতকারী সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, ২০২০ সালের মধ্যেই গাড়িটির ২৬০০ ইউনিট বিক্রি হয়েছে।

  • Share this:

গত বছর ২৮ জানুয়ারি দেশের বাজারে Nexon EV নিয়ে আসে Tata Motors। করোনার জেরে প্রথম কয়েকমাস সে ভাবে বিক্রি হয়নি। তবে ধীরে ধীরে বাজার তৈরি করতে শুরু করে এই ইলেকট্রিক গাড়ি। ক্রমেই জনপ্রিয় হয়ে ওঠে ক্রেতাদের কাছে। এবার প্রায় এক বছর পূর্ণ হতে চলেছে। আর এর মাঝেই রেকর্ড গড়ে ফেলল Tata Nexon EV। দেশের সর্বাধিক বিক্রিত গাড়ির তালিকায় শীর্ষে রয়েছে এটি। গাড়িপ্রস্তুতকারী সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, ২০২০ সালের মধ্যেই গাড়িটির ২৬০০ ইউনিট বিক্রি হয়েছে।

Rushlane-এ প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন অনুযায়ী, গত বছর মে মাস থেকেই Tata Motors-এর তৈরি এই ইলেকট্রিক গাড়িটির বিক্রি বাড়তে শুরু করে। সেই মাসে ৭৮ ইউনিট বিক্রি হয়। এর পর প্রতি মাসে বিক্রির গ্রাফ ধীরে ধীরে বাড়তে থাকে। বিশেষ করে অক্টোবর থেকে ডিসেম্বরের মধ্যে Nexon EV গাড়ির বিক্রি আকর্ষণীয়ভাবে বৃদ্ধি পায়। শুধুমাত্র ডিসেম্বরেই ৪১৮ ইউনিট গাড়ি বিক্রি হয়। এর জেরে প্যানডেমিকের বছরেই মোট ২৬০২ ইউনিট গাড়ি বিক্রি হয়েছে।

গাড়ির বিক্রি বাড়ার পিছনে একটা বড় কারণ হল এনার্জি এফিসিয়েন্সি সার্ভিসেস লিমিটেড (ESSL)। সম্প্রতি, এই সংস্থা Nexon EV গাড়ির ১৫০ ইউনিট অর্ডার দিয়েছে। এক্ষেত্রে ১৪.৮৬ লক্ষ টাকার XZ+ ভ্যারিয়েন্টকে বেছে নিয়েছিল ESSL। এর জেরে ক্রেতাদের মধ্যেও কৌতূহল বাড়তে থাকে। বলা বাহুল্য, Tigor EV-এর লঞ্চের সূত্র ধরে Tata-এর তরফে লঞ্চ করা হয়েছিল Tata Nexon EV। সম্প্রতি, পুণের কারখানা থেকে গাড়ির ১০০০ ইউনিট বিক্রির রেকর্ড পেরিয়েছে। চলতি অর্থবর্ষের প্রথম কোয়ার্টারে বাজারের মোট EV বিক্রির প্রায় ৬২ শতাংশ মার্কেট শেয়ারই রয়েছে Tata Nexon EV-এর কাছে। এই গাড়ির দাম শুরু হচ্ছে ১৩.৯৯ লক্ষ টাকা থেকে। এর XZ+ Lux ভ্যারিয়েন্টের দাম ১৫.৯৯ লক্ষ টাকা।

প্রসঙ্গত, গত বছর অগস্ট মাসে এই গাড়ির জন্য একটি সাবস্ক্রিপশন প্ল্যান নিয়ে এসেছিল গাড়িপ্রস্তুতকারী সংস্থা। বিক্রি বাড়ানোর জন্য সেপ্টেম্বর ও ডিসেম্বরে সাবস্ক্রিপশন মূল্যও কমিয়ে দেওয়া হয়। আর এই পরিকল্পনাই কাজে দেয়। ব্যাপকমাত্রায় বিক্রি বাড়ে গাড়িটির। তাই যদি কোনও ব্যক্তি সংশ্লিষ্ট গাড়িটি কিনতে চান, তা হলে একটি সাবস্ক্রিপশন প্ল্যানের সুবিধা পেতে পারেন তিনি। এই প্ল্যান শুরু হচ্ছে মাসিক ২৯,৫০০ টাকা থেকে। মাথায় রাখতে হবে, শুধুমাত্র XZ+ ভ্যারিয়েন্টের জন্য জন্যই উপলব্ধ রয়েছে প্ল্যানটি। গাড়িপ্রস্তুতকারী সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, বর্তমানে দিল্লি, মুম্বই, পুণে, বেঙ্গালুরু ও হায়দরাবাদের গ্রাহকরাই এই পরিষেবার সুবিধা পেতে পারেন।

Written By: Sovan Chanda

Published by:Arka Deb
First published:

লেটেস্ট খবর