Yes Bank Crisis| ইয়েস ব্যাঙ্ককে বাঁচানোর প্ল্যান পেয়েছি, গ্রাহকদের টাকা সুরক্ষিত: SBI চেয়ারম্যান

Yes Bank Crisis| ইয়েস ব্যাঙ্ককে বাঁচানোর প্ল্যান পেয়েছি, গ্রাহকদের টাকা সুরক্ষিত: SBI চেয়ারম্যান
ইয়েস ব্যাঙ্ক

শনিবার এসবিআই চেয়ারম্যান রজনীশ কুমার জানালেন, ইয়েস ব্যাঙ্ককে পুনরুজ্জীবনের জন্য ড্রাফট স্কিম পেয়েছে স্টেট ব্যাঙ্ক৷ স্কিম খতিয়ে দেখছে কর্তৃপক্ষ৷

  • Share this:

    #মুম্বই: বিধ্বস্ত Yes Bank-কে বাঁচাতে আসরে নেমে পড়েছে দেশের বৃহত্তম রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্ক স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া৷ শনিবার এসবিআই চেয়ারম্যান রজনীশ কুমার জানালেন, ইয়েস ব্যাঙ্ককে পুনরুজ্জীবনের জন্য ড্রাফট স্কিম পেয়েছে স্টেট ব্যাঙ্ক৷ স্কিম খতিয়ে দেখছে কর্তৃপক্ষ৷ তবে ইয়েস ব্যাঙ্কের গ্রাহকদের টাকা সুরক্ষিত রয়েছে বলেও আশ্বাস দিলেন এসবিআই চেয়ারম্যান৷

    এসবিআই চেয়ারম্যানের কথায়, 'ইয়েস ব্যাঙ্ককে বাঁচানোর জন্য আমরা ড্রাফ্ট স্কিম পেয়েছি৷ আমাদের বিশেষজ্ঞদল খতিয়ে দেখছে ওই স্কিম৷ গ্রাহকদের স্বার্থের সঙ্গে কোনও রকম আপোষ করা হবে না৷'

    শুক্রবার ইয়েস ব্যাঙ্ক পুনরুজ্জীবনের জন্য ড্রাফ্ট স্কিম ঘোষণা করে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক৷ আরবিআই জানিয়েছে, ইয়েস ব্যাঙ্ককে বাঁচাতে হলে স্ট্র্যাটেজিক ইনভেস্টর ব্যাঙ্ককে ৪৯ শতাংশ শেয়ার কিনে ফেলতে হবে৷

    ২ টাকা ফেসভ্যালুর শেয়ার, ৮ টাকা প্রিমিয়াম মিলিয়ে প্রতি শেয়ার ১০ টাকায় কিনবে স্টেট ব্যাঙ্ক। ফলে সার্বিক ভাবে ইয়েস ব্যাঙ্কে ২,৪৫০ কোটি টাকা লগ্নি করে ৪৯ শতাংশ মালিক হতে চলেছে এসবিআই। আরবিআই জানিয়েছে, মূলধনী লগ্নি দিন থেকে পরের ৩ বছর, পুনর্গঠিত ইয়েস ব্যাঙ্কে নিজেদের লগ্নির পরিমাণ ২৬ শতাংশের নীচে নামাতে পারবে না স্ট্র্যাটেজিক ইনভেস্টর ব্যাঙ্ক।

    শুক্রবার সন্ধ্যায় নির্দেশিকা জারি করে ইয়েস ব্যাঙ্ক থেকে গ্রাহকদের টাকা তোলার ঊর্ধ্বসীমা ৫০ হাজার টাকা বেঁধে দেয় আরবিআই৷ রিজার্ভ ব্যাঙ্ক নির্দেশ দেয়, ৩ এপ্রিলের মধ্যে আমানতকারীরা ৫০,০০০ টাকার বেশি তুলতে পারবেন না। ড্রাফ্ট বা পে-অর্ডারের ক্ষেত্রে অবশ্য এই ঊর্ধ্বসীমা কার্যকর হবে না। টাকা তোলা যাবে অসুস্থতা, পড়াশোনা বা বিয়ের জন্য। এই সময়ের মধ্যে কোনও ঋণ দিতে পারবে না ইয়েস ব্যাঙ্ক। ইয়েস ব্যাঙ্কের পরিচালন পর্ষদও ভেঙে দেওয়া হয়েছে। প্রশাসকের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে স্টেট ব্যাঙ্কের প্রাক্তন সিএফও প্রশান্ত কুমারকে।

    Published by:Arindam Gupta
    First published:

    লেটেস্ট খবর