অনলাইনে জ্বালানি তেলের ব্যবসায় মিলছে সরকারি সহায়তা, এক বছরেই হতে পারেন কোটিপতি; জানুন বিশদে!

অনলাইনে জ্বালানি তেলের ব্যবসায় মিলছে সরকারি সহায়তা, এক বছরেই হতে পারেন কোটিপতি; জানুন বিশদে!

অনলাইনে ঠিক কতটা বিনিয়োগ করে এই ব্যবসা শুরু করা যায় এবং কী ভাবে তা এগিয়ে নিয়ে যেতে হয়?

অনলাইনে ঠিক কতটা বিনিয়োগ করে এই ব্যবসা শুরু করা যায় এবং কী ভাবে তা এগিয়ে নিয়ে যেতে হয়?

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: পেট্রোল এবং ডিজেলের দাম দেশে ক্রমেই বেড়ে চলেছে। ক্রেতাদের এই বেড়ে চলা দামের সঙ্গে পাল্লা দিতে নাভিশ্বাস উঠলেও বিক্রেতাদের কিন্তু মহালাভ! এখন আর পাঁচটা ব্যবসা যেমন অনলাইনে হচ্ছে হালফিলে, তেমনই জ্বালানি তেলের ব্যবসাও অনলাইনে শুরু করা যায়। এর জন্য যেমন এক দিকে সরকারি সহায়তা পাওয়া যায়, তেমনই ইন্ডিয়ান অয়েল কর্পোরেশন, ভারত পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন লিমিটেড, পেট্রোলিয়াম প্রসেস ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের মতো তেল সরবরাহকারী সংস্থাগুলোও বাড়িয়ে দিচ্ছে সাহায্যের হাত। এক্ষেত্রে উদাহরণ হিসেবে বলা যায় স্টার্ট-আপ সংস্থা পেপফুয়েল ডটকম-এর কথা। তাদের সূত্র ধরে জেনে নেওয়া যাক অনলাইনে ঠিক কতটা বিনিয়োগ করে এই ব্যবসা শুরু করা যায় এবং কী ভাবে তা এগিয়ে নিয়ে যেতে হয়।

    পেপফুয়েল ডটকম একটি সরকারর দ্বারা স্বীকৃত স্টার্ট-আপ সংস্থা। নয়ডার টিকেন্দ্র, প্রতীক এবং সন্দীপ একসঙ্গে এই অংশীদারি ব্যবসা শুরু করেন। ইন্ডিয়ান অয়েলের সঙ্গে থার্ড পার্টি হিসেবে এঁদের অনলাইনে ডিজেল সরবরাহ করার চুক্তি রয়েছে। আপাতত এই সংস্থার বার্ষিক আয় ১০০ কোটি টাকা। কিন্তু পেট্রোল কেন সরবরাহ করছে না এই সংস্থা?

    এই প্রসঙ্গে টিকেন্দ্র জানান যে ২০১৬ সাল পর্যন্ত এই দেশে অনলাইনে পেট্রোল সরবরাহের অনুমতি ছিল না। সেই জন্য তাঁরা কেবল ডিজেল সরবরাহ দিয়েই ব্যবসা শুরু করতে বাধ্য হন। তবে অনলাইনে জ্বালানি কিনতে ইচ্ছুক ক্রেতার সংখ্যা কম নয়, ফলে ব্যবসা ঠিক মতো পরিচালনা করতে পারলে লোকসানের ভয় নেই। তাঁরা ব্যবসা শুরুর আগে রীতিমতো সমীক্ষা করে বাজারের চাহিদা সম্পর্কে অবহিত হয়েছিলেন, সবাই এমন একটি অনলাইনে জ্বালানি তেল সরবরাহের অ্যাপের প্রয়োজনীয়তার কথাও উল্লেখ করেন।

    বাজার সমীক্ষার পরের ধাপেই আসে ব্যবসা শুরুর পদক্ষেপ। এই ব্যাপারে সংস্থার আরেক প্রতিষ্ঠাতা সদস্য সন্দীপ বলেছেন যে পরিকল্পনা নিয়ে প্রথমে তাঁরা পিএমও-র দ্বারস্থ হন, পরিকল্পনাটির কথা সরকারি দফতরে জানান। সেখান থেকে অনুমোদন এলে কথা বলা হয় ফরিদাবাদের ইন্ডিয়ান অয়েলের সঙ্গে। তারা পেপফুয়েল ডটকম-এর সদস্যদের ডিপিআর বা পরিকল্পনার বিশদ বিবরণ জমা করতে বলে অফিসে। সেটা খতিয়ে দেখে অনুমোদন পাওয়া যায় ইন্ডিয়ান অয়েলের তরফেও। তার পরে অনলাইনে শুরু হয়ে যায় পেপফুয়েল ডটকম-এর যাত্রা। এর জন্য প্রাথমিক ভাবে বিনিয়োগ করতে হয়েছিল ১২ লক্ষ টাকা।

    First published:

    লেটেস্ট খবর