Home /News /business /
SBI: 'তিন মাসের অন্তঃসত্ত্বা হলে চাকরি নয়', চাপের মুখে নির্দেশ প্রত্যাহার এসবিআই-এর

SBI: 'তিন মাসের অন্তঃসত্ত্বা হলে চাকরি নয়', চাপের মুখে নির্দেশ প্রত্যাহার এসবিআই-এর

বিতর্কিত নির্দেশ প্রত্যাহার করল এসবিআই৷

বিতর্কিত নির্দেশ প্রত্যাহার করল এসবিআই৷

ব্যাঙ্কের তরফে আরও দাবি করা হয়েছে, তাদের মোট কর্মীর পঁচিশ শতাংশই মহিলা (SBI)৷

  • Share this:

#নয়াদিল্লি :  তিন মাসের অন্তঃসত্ত্বা হলে চাকরিতে নিয়োগ করবে না এসবিআই (SBI Recruitment Order for Pregnant Women)। দেশের প্রথম সারির রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের এই নয়া নির্দেশিকা ঘিরে তুমুল বিতর্ক তৈরি হয়েছে। রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের এই নিয়মে হতবাক দিল্লি মহিলা কমিশন। এফবিআই (SBI) চেয়ারম্যানকে নোটিশ পাঠিয়ে এই নিয়ম প্রত্যাহার করার কথা বলেছে দিল্লি মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সন স্বাতী মালিওয়াল। স্বাতী মলিয়ানের দাবি, এই সিদ্ধান্ত ‘পক্ষপাতদুষ্ট’ এবং ‘অনৈতিক’।

দেশ জুড়ে বিতর্ক এবং চাপের মুখে পড়ে শেষ পর্যন্ত সিদ্ধান্ত থেকে পিছু হঠল এসবিআই (SBI)৷ ব্যাঙ্কের তরফে বিবৃতি জারি করে বলা হয়েছে, আপাতত আগের নিয়মেই নিয়োগ প্রত্রিয়া চলবে৷

আরও পড়ুন: পাবলিক সার্ভিস কমিশনের অধীনে প্রিন্সিপাল-প্রফেসর-রিডার পদে নিয়োগ চলছে, জানুন

এসবিআই-এর তরফে আরও দাবি করা হয়েছে, পুরনো এবং যে নিয়োগ পদ্ধতি গুলিতে অস্বচ্ছতা ছিল, তা দূর করতেই নতুন নির্দেশিকা জারি করা হয়েছিল৷ ব্যাঙ্কের তরফে আরও দাবি করা হয়েছে, তাদের বিরুদ্ধে ওঠা লিঙ্গবৈষম্যের অভিযোগ ঠিক নয়৷ সংস্থার মোট কর্মীর পঁচিশ শতাংশই মহিলা বলেও ব্যাঙ্কের তরফে বিবৃতি দিয়ে দাবি করা হয়েছে৷

কী ছিল এসবিআই-এর বিতর্কিত নির্দেশিকায়?

রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকটির চাকরিপ্রার্থীদের নিয়োগের ক্ষেত্রে নয়া নির্দেশিকায় বলা হয়- কোনও মহিলা চাকরিপ্রার্থী তিন মাসের অন্তঃসত্ত্বা হলে তাঁকে ‘টেম্পোরারিলি আনফিট’ বা সাময়িক ভাবে 'কাজ করার অনুপযুক্ত' বলে ধরে নেওয়া হবে। সন্তান প্রসবের চার মাস পড়েই তিনি চাকরিতে যোগ দিতে পারবেন৷

এই নোটিস জারির পরই দেশজুড়ে বিতর্ক শুরু হয়। ইতিমধ্যে দিল্লি মহিলা কমিশনের তরফে এই বিষয়ে চিঠি দেওয়া হয়েছে স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়াকে। কমিশনের চেয়ারম্যান স্বাতী মলিয়াল সেই চিঠি ট্যুইটও করেন। দিল্লির মহিলা কমিশনের তরফেও এই নয়া নিয়ম প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে এসবিআই কর্তৃপক্ষকে চিঠি দেওয়া হয়।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার চাকরিপ্রার্থীদের নিয়োগের ক্ষেত্রে নির্দেশিকায় মহিলাদের অন্তঃসত্ত্বা নিয়ে এ ধরনের গাইডলাইন প্রথম নয়। এর আগে ছ’‌মাসের অন্তঃসত্ত্বা মহিলা চাকরি প্রার্থীদের শর্তসাপেক্ষে কাজের অনুমতি দিত স্টেট ব্যাঙ্ক। সংশ্লিষ্ট চাকরিপ্রার্থীর একজন স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞের শংসাপত্র থাকতে হবে বলে জানানো হয়েছিল।

আরও পড়ুন: ভারতীয় সেনাবাহিনীতে কাজের দারুণ সুযোগ, আজই আবেদন করুন

কিন্তু সাম্প্রতিককালে ব্যাঙ্কে মহিলা চাকরি প্রার্থীদের নিয়োগের নিয়মে ‘মেডিক্যাল ফিটনেস অ্যান্ড অপথ্যালোমলিজিক্যাল স্টান্ডার্ডস ফর নিউ রিক্রুটস অ্যান্ড প্রোমিটিস’-‌অনুযায়ী বড়সড় বদল এনেছে এসবিআই কর্তৃপক্ষ। যা নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়েছে। বিভিন্ন মহল থেকে সমালোচনাও আসতে শুরু হয়েছে।

দেশ স্বাধীন হওয়ার ৭৫ বছর পরে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের চাকরি প্রার্থীদের ক্ষেত্রে এ হেন লিঙ্গ বৈষম্য ঘিরে ইতিমধ্যে দেশজুড়ে শোরগোল পড়ে যায়। প্রশ্ন উঠেছে, উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে ভারত যখন নারী সশক্তিকরণের পণ নিয়ে বিভিন্ন কর্মসূচি রুপায়ন করে চলেছে, তখন এমন মানসিকতার পরিচয় দেওয়া হচ্ছে কেন ?বিশেষত এসবিআই-এর মত ব্যাংকের কর্মচারী নিয়োগের ক্ষেত্রে মহিলাদের অন্তঃসত্ত্বা হওয়াকে কার্যত শারীরিকভাবে অক্ষম ধরে নেওয়া অত্যন্ত লজ্জাজনক ঘটনা।

Published by:Debamoy Ghosh
First published:

Tags: SBI

পরবর্তী খবর