corona virus btn
corona virus btn
Loading

অ্যালার্ট! কোটি কোটি সেভিংস অ্যাকাউন্টের জন্য বদলাতে চলেছে এই নিয়ম ?

অ্যালার্ট! কোটি কোটি সেভিংস অ্যাকাউন্টের জন্য বদলাতে চলেছে এই নিয়ম ?

এখনও পর্যন্ত অর্থমন্ত্রক বা ব্যাঙ্কের তরফে স্পষ্ট ভাবে জানানো হয়নি যে এই ছাড় আরও বাড়ানো হবে কিনা ৷

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: মার্চের শেষ সপ্তাহে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি করোনা ভাইরাসের জেরে দেশজুড়ে লকডাউনের ঘোষণা করেছিলেন ৷ এরপর অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন কোটি কোটি ব্যাঙ্ক গ্রাহকদের জন্য একটি বিশেষ ঘোষণা করেছিলেন ৷ তিনি জানিয়েছিলেন, লকডাউন শুরু হওয়ার পর থেকে কোনও সেভিংস অ্যাকাউন্টে আগামী ৩ মাসের জন্য ন্যূনতম ব্যালেন্স রাখা বাধ্যতামূলক নয় ৷ অর্থাৎ এপ্রিম, মে ও জুন মাসের জন্য এই নিয়ম লাগু করা হবে ৷ তবে এখনও পর্যন্ত অর্থমন্ত্রক বা ব্যাঙ্কের তরফে স্পষ্ট ভাবে জানানো হয়নি যে এই ছাড় আরও বাড়ানো হবে কিনা ৷

সরকারের তরফে পরিষ্কার জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল যে এই তিন মাসে সেভিংস অ্যাকাউন্টে ন্যূনতম ব্যালেন্স না রাখলেও তার জন্য ব্যাঙ্ক কোনও পেনাল্টি কাটতে পারবে না ৷ প্রত্যেক ব্যাঙ্ক তাদের হিসেব অনুযায়ী ন্যূনতম ব্যালেন্স ঠিক করে থাকে এবং সেই টাকা প্রত্যেক মাসে অ্যাকাউন্টে রাখতে হয় ৷ ন্যূনতম ব্যালেন্স না রাখলে গ্রাহকদের থেকে জরিমানা নিয়ে থাকে ব্যাঙ্ক ৷ তবে এই ছাড় জুন মাসের পরও বাড়ানো হবে কিনা তা নিয়ে এখনও কিছু জানা যায়নি ৷

কেন্দ্র সরকারের ঘোষণার আগেই স্টেট ব্যাঙ্কের তরফে ন্যূনতম ব্যালেন্স রাখা নিয়ম তুলে নেওয়া হয়েছিল ৷ দেশের সবচেয়ে বড় সরকারি ব্যাঙ্ক স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া ১১ মার্চ একটি বয়ানে জানিয়েছিল,‘স্টেট ব্যাঙ্কের ৪৪.৫১ কোটি গ্রাহকদের থেকে ন্যূনতম ব্যালেন্স না রাখার জন্য কোনও পেনাল্টি নেওয়া হবে না ৷ এর আগে মেট্রো শহরের ক্ষেত্রে ৩০০০ টাকা, শহরতলীর জন্য ২০০০ টাকা ও গ্রামীণ এলাকার ক্ষেত্রে ১০০০ টাকা সেভিংস অ্যাকাউন্টে রাখা বাধ্যতামূলক ছিল ৷ ন্যূনতম ব্যালেন্স না রাখলে গ্রাহকদের থেকে ৫ থেকে ১৫ টাকা পর্যন্ত জরিমানা নেওয়া হত ৷

লকডাউনের সময় এটিএম থেকে টাকার তোলার জন্য যে চার্জ দিতে হয় (ATM Withdrawal Charge) তাতেও ছাড় দিয়েছিল ৷ অর্থমন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছিল যে তিন মাসে যে কোনও এটিএম থেকে টাকা তোলা যেতে পারে ৷ এর জন্য লাগবে না কোনও চার্জ ৷ ক্যাশ তোলার জন্য যাতে ব্যাঙ্কে ভিড় জমা না হয় তাই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল ৷ কিন্তু এই ছাড় জুন ৩০ পর্যন্ত দেওয়া হয়েছিল ৷ ৩০ জুনের পরও কী কার্যকর থাকবে এই নিয়ম নাকি বদলাতে চলেছে তা নিয়ে এখনও কিছু জানানো হয়নি সরকারের তরফে ৷

Published by: Dolon Chattopadhyay
First published: June 13, 2020, 7:51 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर