RIL Q1 Result: প্রথম ত্রৈমাসিকে ১৩,২৪৮ কোটির মুনাফা, নেট প্রফিট বাড়ল ৩১ শতাংশ, জিও থেকে লাভ ২৫২০ কোটি

কোভিড ১৯ পর্বেও রিলায়েন্স জিও, রিটেল এবং অয়েল টু কেমিক্যাল ব্যবসায় ভাল ফল করেছে রিলায়েন্স ৷

কোভিড ১৯ পর্বেও রিলায়েন্স জিও, রিটেল এবং অয়েল টু কেমিক্যাল ব্যবসায় ভাল ফল করেছে রিলায়েন্স ৷

  • Share this:

    #মুম্বই: বর্তমান আর্থিক বর্ষের প্রথম ত্রৈমাসিকে বিপুল লাভ করেছে দেশের সবথেকে বড় কোম্পানি মুকেশ আম্বানির সংস্থা রিলায়েন্স ইন্ড্রাস্টিস (Reliance Industries Limited) । প্রথম ত্রৈমাসিকে RIL-এর মোট রেভিনিউ দাঁড়িয়েছে ৮৮,২৫৩ কোটি টাকা ৷ যা আশা করা হয়েছিল তার থেকে অনেক ভাল ৷

    করোনা ভাইরাসের প্রভাবে দেশের অর্থনীতি টলমল ৷ কোভিড ১৯ পর্বেও রিলায়েন্স জিও, রিটেল এবং অয়েল টু কেমিক্যাল ব্যবসায় ভাল ফল করেছে রিলায়েন্স ৷ এমন পরিস্থিতিতে যা আশাতীত ৷ এপ্রিল থেকে জুন এই তিনমাসে শুধু জিও থেকে আয়ের পরিমাণ ২,৫২০ কোটি টাকা ৷ রিলায়েন্সে গ্রস রিফাইনিং মার্জিন $6.3/bbl ছিল ৷ প্রথম ত্রৈমাসিকে রিলায়েন্সের মোট লাভ ১৩, ২৪৮ কোটি টাকা ৷ গত অর্থবর্ষে এই সময় লাভের পরিমাণ ছিল ১০,১০৪ কোটি টাকা ৷ মুকেশ আম্বানির সংস্থার  year-on-year মুনাফার পরিমাণ দাঁড়াল ৩০.৯৭ শতাংশ অর্থাৎ প্রায় ৩১ শতাংশ ৷ রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজের চেয়ারম্যান মুকেশ আম্বানি বলেন, ‘বিশ্ব জুড়ে লকডাউনের কারণে চাহিদা তীব্রভাবে হ্রাস পেয়েছে ৷ যা সবথেকে বেশি আমাদের হাইড্রোকার্বন ব্যবসায় প্রভাব ফেলেছে ৷ যদিও আমাদের কোম্পানির কাজের ফেক্সিবিলিটি তার মধ্যেও কাজকর্ম ও উৎপাদন স্বাভাবিক রেখেছে ৷ যে কারণে সংস্থা আপাতত সেরা-শীর্ষস্থানীয় ফল পেতে সক্ষম হয়েছে ৷’ ২০২০ সালে জুন কোয়ার্টারে রিলায়েন্সের কনসলিডেটেড প্রফিট অর্থাৎ একমুখী লাভ ক্রমানুসারে ১০২.৪ শতাংশ বেড়েছে অর্থাৎ  year-on-yearবৃদ্ধির পরিমাণ ৩০.৬ শতাংশ ৷ নিফটি স্টকে সবথেকে বেশি লাভ করেছে রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজ ৷ ২৩ মার্চ সংস্থার দর এযাবৎকালের মধ্যে সবথেকে কম ছিল সেখান থেকে ১৪৫ শতাংশ বৃদ্ধি এবং year-to-date লাভের পরিমাণ বেড়েছে ৪১ শতাংশ ৷ ২০২০ সালের মার্চে একমুখী লাভের পরিমাণ ছিল ৬,৩৪৮ কোটি টাকা যা গত বছর এই সময় ছিল ১০,১৪১ কোটি টাকা ৷ মার্চে তেলের দর পড়ে যাওয়ায় রিলায়েন্সের ৪,২৬৭ কোটি টাকা ক্ষতি হয় ৷ সেখান থেকে ফের কোভিড স্লোডাউনেও ফিনিক্স পাখির মতো জেগে  উঠেছে রিলায়েন্স ৷ দালাল স্ট্রিটের পূর্বাভাসকেও হার মানিয়েছে ৷ কোম্পানির EBITDA মার্জিন ১৯.১ শতাংশ বেড়েছে, যা অনুমান করা হয়েছিল তার থেকে অনেক বেশি ৷ এই কোয়ার্টারে রিলায়েন্সের consolidated revenue দাঁড়িয়েছে ১,০০,৯২৯ কোটি যা QoQ ১,৫২,৪৬১ কোটি এবং year-on-year ১,৭৪,০৮৭ কোটি ৷ এদিকে, প্রথম ত্রৈমাসিকে বিপুল লাভের মুখ দেখল রিলায়েন্স জিও। এই ত্রৈমাসিকে ১৮৩ শতাংশ নেট প্রফিট বেড়ে লাভের অঙ্ক দাঁড়িয়েছে ২৫২০ কোটি টাকায়। এই একই ত্রৈমাসিকে গতবছর লাভের পরিমাণ ছিল ৮৯১ কোটি টাকা। ত্রৈমাসিকের লাভের অঙ্ক ৩৪ শতাংশ বেড়ে হয়েছে ১৬৫৫৭ কোটি টাকা। রিলায়েন্স জিওর Average Revenue Per User (ARPU) ‌বেড়েছে ৭.‌৫ শতাংশ, অর্থাৎ ১৪০.‌৩ টাকা। আশা ছিল গ্রোফের পরিমাণ হবে ৩.‌৫ শতাংশ, যার থেকে অনেক বেশি ফল এসেছে। ওয়ার্ক ফ্রম হোম চালু হওয়ায় সারা দেশেই ডেটার প্রয়োজন বেড়েছে। তাই স্বাভাবিকভাবে কোভিড পরিস্থিতিতে ব্যবসা বৃদ্ধি পেয়েছে জিওর। রিলায়েন্স রিটেল থেকে এই ত্রৈমাসিকে সংস্থার আয় ৩১,৬৩৩ কোটি টাকা ৷ রিটেল EBIT দাঁড়িয়েছে ৭২২ কোটি টাকা অর্থাৎ  EBIT মার্জিন ২.৩ শতাংশ ৷ রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজের এই ত্রৈমাসিক রিপোর্ট এদিন শেয়ার বাজার বন্ধ হওয়ার পরই প্রকাশিত হয় ৷ আশা করা যাচ্ছে, কোম্পানির এই ভাল রিপোর্ট সংস্থার প্রতি লগ্নিকারীদের আস্থা আরও বাড়িয়ে তুলবে ৷  বম্বে স্টক এক্সচেঞ্জে বৃহস্পতিবার রিলায়েন্সের শেয়ারের দর ০.৬১ শতাংশ বেড়ে বাজার বন্ধের সময় শেয়ার প্রতি দাম দাঁড়ায় ২,১০৮.৬৫ টাকা ৷ ন্যাশনাল স্টক এক্সচেঞ্জে বাজার বন্ধের সময় ০.২৫ শতাংশ বেড়ে রিলায়েন্সের প্রতি শেয়ারের দাম দাঁড়ায় ২,১০১.৯০ টাকা ৷
    Published by:Elina Datta
    First published: