• Home
  • »
  • News
  • »
  • business
  • »
  • Crypto বিনিয়োগকারীরা সাবধান! এই ডিজিটাল কারেন্সিকে বিপদের সঙ্কেত বলেছেন RBI গভর্নর

Crypto বিনিয়োগকারীরা সাবধান! এই ডিজিটাল কারেন্সিকে বিপদের সঙ্কেত বলেছেন RBI গভর্নর

প্রতীকী ছবি৷

প্রতীকী ছবি৷

কয়েকদিন আগেও RBI গভর্নর শক্তিকান্ত দাস বলেছিলেন, বাজারে যেভাবে ক্রিপ্টোকারেন্সির চাহিদা বৃদ্ধি হচ্ছে এবং মানুষ ধীরে ধীরে বিনিয়োগে আগ্রহী হচ্ছে তা নিয়ে চিন্তায় রয়েছে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক (Cryptocurrency in India)।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: যাঁরা ক্রিপ্টোকারন্সিতে টাকা বিনিয়োগ করেন এই খবরটি তাঁদের জন্য চিন্তার বিষয় হয়ে দাঁড়াতে পারে। ভারতে ক্রিপ্টোকারেন্সির আইনি বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া (Reserve Bank of India)। লগ্নিকারিদের জন্য ফের সতর্কতা জারি করা হয়েছে আরবিআইয়ের (RBI) তরফে।

রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার গভর্নর শক্তিকান্ত দাস (Shaktikanta Das) জানিয়েছেন, ক্রিপ্টোকারেন্সিগুলি (Cryptocurrency) আরবিআইয়ের জন্য গুরুতর উদ্বেগের কারণ হয়ে দাড়িয়েছে। তিনি বলেছেন, দেশের অর্থনৈতিক ক্ষেত্রের নিয়ন্ত্রক হিসেবে ক্রিপ্টোকারেন্সি RBI-এর সামনে অনেকগুলি চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছে।

আরও পড়ুন: আলোকিত জীবনসীমা! বাল্ব বিজনেসে স্বনির্ভর হওয়ার পথ দেখাচ্ছেন মথুরার সীমা দেবী!

এই নতুন ভার্চুয়াল মুদ্রার আইনি নির্দেশিকা নিয়ে একাধিক সমস্যার মুখোমুখি হতে হচ্ছে রিজার্ভ ব্যাঙ্ককে। ক্রিপ্টোকারেন্সি মাইক্রোইকোনমিক ভারসাম্য এবং আর্থিক স্থিতিশীলতার জন্য একটি বিপদের কারণ হয়ে দাড়াতে পারে, এমনটাই জানিয়েছেন RBI গভর্নর।

শক্তিকান্ত দাস আরও বলেছেন, ক্রিপ্টোকারেন্সিতে বিনিয়োগকারীদের সংখ্যাকে বাড়িয়ে বলা হচ্ছে। এমন প্রচুর লগ্নিকারী রয়েছেন যাঁরা ক্রিপ্টোকারেন্সিতে মাত্র ১,০০০ টাকা বা ২,০০০ টাকা বিনিয়োগ করেছেন।

রিজার্ভ ব্যাঙ্কের গভর্নর বিএফএসআই সম্মেলনে (BFSI Summit) জানিয়েছেন, আরবিআই ক্রিপ্টোকারেন্সি নিয়ে একটি বিস্তৃত রিপোর্ট সরকারের কাছে জমা দিয়েছে। সরকার ক্রমবর্ধমান ক্রিপ্টোকারেন্সি মার্কেট নিয়ে বিবেচনা করছে।

আরও পড়ুন: SBI-এর বিরাট ধামাকা! অ্যাকাউন্ট থাকলে হাতে গরমে ২ লক্ষ টাকা গ্রাহকদের জন্য, স্টেট ব্যাঙ্কের বিশাল সুবিধা

এখানে বলে রাখা ভালো, কয়েকদিন আগেও RBI গভর্নর শক্তিকান্ত দাস বলেছিলেন, বাজারে যেভাবে ক্রিপ্টোকারেন্সির চাহিদা বৃদ্ধি হচ্ছে এবং মানুষ ধীরে ধীরে বিনিয়োগে আগ্রহী হচ্ছে তা নিয়ে চিন্তায় রয়েছে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক। RBI ডিজিটাল কারেন্সি এবং ক্রিপ্টোকারেন্সি সম্পূর্ণ আলাদা জিনিস। এই দুইয়ের মধ্যে কোনও মিল নেই। সরকার এবং রিজার্ভ ব্যাঙ্ক দেশের অর্থনৈতিক স্থিতিশীলতা (Financial balance) বজায় রাখতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। ক্রিপ্টোকারেন্সি সংক্রান্ত সমস্ত চিন্তা এবং উদ্বেগের বিষয় নিয়ে সরকারকে জানানো হয়েছে।

ভারতীয় ডিজিটাল কারেন্সি নিয়ে শক্তিকান্ত দাস বলেন, RBI একটি ফিয়াট কারেন্সির (Indian Digital Currency) ডিজিটাল সংস্করণ নিয়ে কাজ করছে এবং বর্তমানে রিসার্চ করে জানার চেষ্টা করা হচ্ছে যে এই ডিজিটাল কারেন্সি মার্কেটে এলে আর্থিক স্থিতিশীলতার উপর কেমন প্রভাব পড়তে পারে।

ক্রিপ্টোকারেন্সির মূল্যের সুচক ব্যাপকভাবে ওঠানামা করতে থাকে। এই কারণে প্রশ্ন তুলে দাবি করা হচ্ছে, ক্রিপ্টোকারেন্সিকে বিদেশি সম্পদ হিসেবে গণ্য করা হোক। সরকারকে এই ইন্টারনেট কারেন্সির আইনি বৈধতা নিয়ে সিদ্ধান্ত নিতে হবে। ক্রিপ্টোকে সম্পূর্ণভাবে অনুমতি দেওয়া হবে কি না তা সরকারই ঠিক করবে।

Published by:Debamoy Ghosh
First published: