• Home
  • »
  • News
  • »
  • business
  • »
  • POLICY ON PSU PRIVATISATION GETS CLEARANCE AHEAD OF UNION BUDGET 2021 TC DC

বাজেট ২০২১: পাবলিক সেক্টরের প্রাইভেটাইজেশন হচ্ছেই, জানিয়ে দিল কেন্দ্রীয় ক্যাবিনেট!

একাধিক পাবলিক সেক্টর আন্ডারটেকিং বা PSU-এর প্রাইভেটাইজেশনের উপরে গুরুত্ব দেওয়া হবে বাজেটে, সম্প্রতি এই কথা সাফ জানিয়ে দেওয়া হয়েছে কেন্দ্রীয় ক্যাবিনেটের তরফে।

একাধিক পাবলিক সেক্টর আন্ডারটেকিং বা PSU-এর প্রাইভেটাইজেশনের উপরে গুরুত্ব দেওয়া হবে বাজেটে, সম্প্রতি এই কথা সাফ জানিয়ে দেওয়া হয়েছে কেন্দ্রীয় ক্যাবিনেটের তরফে।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: যত সময় এগিয়ে আসছে, একটু একটু করে কেটে যাচ্ছে জল্পনার ধোঁয়াশা। মোটামুটি স্পষ্ট হয়ে যাচ্ছে যে ২০২১-২০২২ অর্থবর্ষের কেন্দ্রীয় বাজেটে ঠিক কী কী সিদ্ধান্ত নিতে চলেছে সরকার। জানা যাচ্ছে যে এবারের বাজেট সব দিক থেকেই সহায়তা জোগাবে মোদি সরকারের আত্মনির্ভর ভারত প্রকল্পকে। আর সেই লক্ষ্যেই একাধিক পাবলিক সেক্টর আন্ডারটেকিং বা PSU-এর প্রাইভেটাইজেশনের উপরে গুরুত্ব দেওয়া হবে বাজেটে, সম্প্রতি এই কথা সাফ জানিয়ে দেওয়া হয়েছে কেন্দ্রীয় ক্যাবিনেটের তরফে।

তবে সরকার যে এ হেন পদক্ষেপ করতে চলেছে, তার ইঙ্গিত কিন্তু মিলেছিল ২০২০ সালেই। সে বছরের মে মাসে যে আত্মনির্ভর ভারত প্রকল্পের কথা ঘোষণা করা হয়েছিল, সেখানে বলা হয়েছিল যে বিভিন্ন পাবলিক সেক্টর আন্ডারটেকিং বেসরকারি খাতের অংশগ্রহণের জন্য খুলে দেওয়া হবে।

খবর মোতাবেকে, ডিপার্টমেন্ট অফ ইনভেস্টমেন্ট এবং পাবলিক অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট ঠিক কোন কোন পাবলিক সেক্টর আন্ডারটেকিং প্রাইভেটাইজেশনের আওতায় নিয়ে আসা হবে, তার একটা প্রাথমিক খসড়াও তৈরি করে ফেলেছে। জানা যাচ্ছে যে এই তালিকায় বিদ্যুৎ, সার, টেলিকমিউনিকেশন, ব্যাঙ্কিংয়ের মতো ক্ষেত্রগুলোকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। যা সরকারের স্ট্র্যাটেজিক সেলের অন্তর্গত।

অর্থনীতিবিদরা বলেন যে ঋণ-অতিরিক্ত মূলধনী আয় বা ক্যাপিটাল ইনকামের পরিমাণ বাড়াতে স্ট্র্যাটেজিক সেল ব্যবহার করা হয়। এর স্ট্র্যাটেজি বা কৌশল হল, কর রাজস্ব আদায়ের পরিমাণ যখন কমতে থাকে, তখন রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা বিক্রি করে সেই টাকায় GDP-র অনুপাতে ফিসক্যাল ডেফিসিটের পরিমাণ স্বস্তিজনক সীমায় নিয়ে আসার চেষ্টা করা হয়।

এর আগে খবর ছিল, যে পাবলিক সেক্টর আন্ডারটেকিং বেসরকারি হাতে তুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্র, তা ২০২২ অর্থবর্ষ পর্যন্ত পিছিয়ে যেতে পারে। বিষয়টি দেশের অর্থনীতির পক্ষে কত দূর মঙ্গলজনক হবে, তা নিয়ে অর্থনীতিবিদদের মধ্যে মতভেদ রয়েছে। এয়ার ইন্ডিয়া এবং ভারত পেট্রেলিয়ামের মতো রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থার বেসরকারিকরণ নিয়ে এখনও বিতর্ক দূর হয়নি। তার মধ্যেই আরও বেশ কিছু সংস্থার বেসরকারিকরণের সিদ্ধান্ত নিঃসন্দেহেই বিতর্কে ইন্ধনে জোগাবে।

কিন্তু সরকার তার সিদ্ধান্তে অবিচল। কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী এই প্রসঙ্গে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন যে এই মর্মে আগামী বাজেটে পদক্ষেপ করা হচ্ছেই!

Published by:Dolon Chattopadhyay
First published: