Home /News /business /

Union Budget 2022: কেন্দ্রীয় বাজেট পেশের আগে তৈরি করুন পারিবারিক বাজেট, বাড়বে সাশ্রয়!

Union Budget 2022: কেন্দ্রীয় বাজেট পেশের আগে তৈরি করুন পারিবারিক বাজেট, বাড়বে সাশ্রয়!

কেন্দ্রীয় বাজেট পেশের আগে তৈরি করুন পারিবারিক বাজেট, বাড়বে সাশ্রয়!

কেন্দ্রীয় বাজেট পেশের আগে তৈরি করুন পারিবারিক বাজেট, বাড়বে সাশ্রয়!

ভবিষ্যতের অর্থনৈতিক লক্ষ্য পূরণের জন্য সরকারি বাজেটের মতো পারিবারিক ফিনান্সিয়াল প্ল্যানিং খুবই জরুরি (Union Budget 2022)।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: কেন্দ্রীয় সরকার ফেব্রুয়ারি মাসের ১ তারিখ সংসদে ২০২২-২৩ আর্থিক বছরের বাজেট পেশ করবে (Union Budget 2022)। নতুন বাজেটের আগে হাতে মাত্র কয়েকটি দিনই সময় রয়েছে। এই বাজেটে আগামী বছরের সমস্ত অর্থনৈতিক লেনদেন এবং যোজনার জন্য নির্ধারিত খরচ উল্লেখ করা থাকবে।

ভবিষ্যতের অর্থনৈতিক লক্ষ্য পূরণের জন্য সরকারি বাজেটের মতো পারিবারিক ফিনান্সিয়াল প্ল্যানিং খুবই জরুরি। সরকার যেভাবে বাজেটে এক বছরের সমস্ত খরচের একটি খসড়া তৈরি করে ঠিক সেভাবেই প্রত্যেকের অর্থনৈতিক পরিকল্পনা করে চলা উচিত। কী ভাবে ফিনান্সিয়াল প্ল্যানিং করা যাবে তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হল।

অর্থনৈতিক বাজেট

পরিকল্পিতভাবে সংসার চালানোর জন্য যাবতীয় খরচ ও আয় সম্পর্কে স্পষ্ট ধারণা থাকা দরকার। এই মাসিক আয়-ব্যয়ের অঙ্ক মাথায় রেখে একটি বাজেট তৈরি করতে হবে। আয়ের মধ্যে মাসিক বেতন, ঘর ভাড়া থেকে আয় এবং বিনিয়োগের রিটার্ন সহ সমস্ত আয় হিসেব করতে হবে। ব্যয়ের তালিকায় মাসিক খরচ, ঋণের কিস্তি, সন্তানের শিক্ষার খরচ এবং চিকিৎসার খরচ ধরতে হবে। এই দুইয়ের ওপর ভিত্তি করে বাজেট তৈরি করতে হবে যেখান থেকে প্রত্যাশিত সঞ্চয় করা যাবে।

আরও পড়ুন: প্রায় ৭০ দিন অপরিবর্তিত রয়েছে পেট্রোল ও ডিজেল, দেখে নিন আজ আপনার শহরে কত হল দাম....

ঋণ পরিশোধ

মানসিক চাপমুক্ত জীবন যাপনের জন্য ঋণ মুক্ত থাকা অত্যন্ত জরুরি। অর্থনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, মাথায় ঋণের বোঝা থাকলে সবচেয়ে প্রথমে তা পরিশোধ করার পাশাপাশি নতুন ঋণ নেওয়া থেকে বিরত থাকা উচিত। অর্থনৈতিক পরিকল্পনা করার সময় সবচেয়ে প্রথমে ক্রেডিট কার্ডের বিল পরিশোধ করা দরকার কারণ ক্রেডিট ঋণের ওপর চড়া দরে সুদ নেওয়া হয়। এছাড়া, সব সময় কেনাকাটা করার সময় নগদ ব্যবহার করা উচিত।

আরও পড়ুন: নতুন বাড়ি ক্রয় না ভাড়া, এক নজরে দেখে নিন ২০২২ সালে কোনটা বেশি লাভজনক!

এমার্জেন্সি ফান্ড

ভবিষ্যতে আগত অর্থনৈতিক প্রয়োজনীয়তার জন্য একটি এমার্জেন্সি ফান্ড থাকা দরকার। এই জরুরি তহবিলে কমপক্ষে ৬ মাস সংসার চালানোর জন্য সঞ্চয় জমানো উচিত। অর্থাৎ, কোনও ব্যক্তির মাসিক খরচ ৩০,০০ টাকা হলে জরুরি তহবিলে ১,৮০,০০০ রাখতে হবে। এমার্জেন্সি ফান্ড থাকলে তা স্বল্পমেয়াদী লক্ষ্য পূরণেও সাহায্য করবে। এই সঞ্চিত অর্থ দিয়ে ব্যবসায়িক ক্ষতিপূরণ, চিকিৎসার খরচ বা উদীয়মান আর্থিক টানাপোড়নের সমস্যা মেটানো যাবে।

স্বাস্থ্য বিমা

পারিবারিক বাজেট তৈরি করার সময় অবশ্যই স্বাস্থ্য বিমাকে তালিকায় যুক্ত করতে হবে। মূল্যবৃদ্ধির বাজারে চিকিৎসার খরচ প্রায় আকাশ ছোঁয়া। এই পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্য বিমা অনেক সাশ্রয় প্রদান করবে।

Published by:Debamoy Ghosh
First published:

Tags: Budget, Budget 2022, Union Budget

পরবর্তী খবর