corona virus btn
corona virus btn
Loading

Paytm পোস্টপেইড গ্রাহকদের জন্য সুখবর, এ বার EMI-তে মেটানো যাবে 

Paytm পোস্টপেইড গ্রাহকদের জন্য সুখবর, এ বার EMI-তে মেটানো যাবে 

দেখে নেওয়া যাক, কী ভাবে এই পরিষেবার সুবিধা পাওয়া যাবে।

  • Share this:

Paytm পোস্টপেইড গ্রাহকদের জন্য স্বস্তির খবর। কারণ এ বার তাঁদের মোট মাসিক বিলকে EMI-তে রূপান্তরিত করতে পারবেন গ্রাহকরা। সম্প্রতি এক ঘোষণায় এ কথা জানাল Paytm। সহজ কথায় বলতে গেলে, এ বার কেনার জন্য বাজেটের কথা না ভেবে ও এককালীন মাসিক বিলের কোনও রকম চাপ ছাড়াই অতি সহজে ইনস্টলমেন্ট বিল মেটাতে পারবেন গ্রাহকরা। এ ক্ষেত্রে সুদের হারও ন্যূনতম। দেখে নেওয়া যাক, কী ভাবে এই পরিষেবার সুবিধা পাওয়া যাবে।

Paytm-এর তরফে জানানো হয়েছে, বিল জেনারেট হওয়ার প্রথম সাতদিনের মধ্যেই পোস্টপেইড বিলকে EMI-তে রূপান্তরিত করা যাবে। সমস্ত ক্ষেত্রেই পাওয়া যাবে এই সুবিধা। এ ক্ষেত্রে রিলায়েন্স ফ্রেশ, হলদিরাম, অ্যাপোলো ফার্মেসি, ক্রোমা, শপার্স স্টপসহ একাধিক জায়গা থেকে বাড়ির জিনিসপত্র কিনতে পারেন Paytm পোস্টপেইড ব্যবহারকারীরা। এবং ইনস্টলমেন্টে মেটাতে পারেন সেই বিল। সম্প্রতি একটি ব্লগপোস্টে Paytm-এর তরফে জানানো হয়েছে, এই পরিষেবা কিছুটা হলেও গ্রাহকদের স্বস্তি দেবে। কারণ করোনার জেরে অর্থনীতিতে বড়সড় প্রভাব পড়েছে। বহু মানুষ কর্মহীন। আয় কমেছে। এই সময়ে এই ধরনের EMI পরিষেবা গ্রাহকদের অনেকটা সুবিধা দেবে। কারণ ক্রেডিট লিমিট বাড়ানো হচ্ছে। এ ক্ষেত্রে প্রায় ১ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ক্রেডিট লিমিট রয়েছে। তবে যথাসময়ে রিপেমেন্ট হয়ে গেলে এই ক্রেডিট লিমিট বাড়তেও পারে। এই মুহূর্তে ৭ মিলিয়নের বেশি Paytm পোস্টপেইড ব্যবহারকারী রয়েছেন। সূত্রের খবর, বর্তমান অর্থবর্ষের শেষে এই সংখ্যাটিকে ১৫ লক্ষে নিয়ে যাওয়ার লক্ষ্য রয়েছে সংস্থার। আর সেই কারণেই এই পদক্ষেপ।

Paytm-এর তরফে জানানো হয়েছে, তিনটি আলাদা ক্রেডিট লিমিটে পাওয়া যাবে এই পোস্টপেইড সার্ভিস। এই তিনটি ক্রেডিট লিমিট হল Lite, Delite ও Elite। এ ক্ষেত্রে Postpaid Lite-এর ক্রেডিট লিমিট হল ২০,০০০ টাকা। মূলত যাঁদের কোনও ক্রেডিট স্কোর নেই, তাঁদের কথা ভেবেই বিশেষ পরিষেবা আনা হচ্ছে। অন্য দিকে, মাসিক খরচে ১ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ক্রেডিট লিমিট পাওয়া যাবে Delite ও Elite পোস্টপেইডে। কোনও অতিরিক্ত চার্জও লাগছে না।

প্রসঙ্গত, EMI অপশন ছাড়া এর আগে একাধিক অনলাইন মোডে পোস্টপেইড বিল পেমেন্টের সুবিধা দিয়েছে Paytm। এ ক্ষেত্রে UPI, ডেবিট কার্ড ও নেট ব্যাঙ্কিংয়ের সাহায্যে এই বিল পেমেন্ট করা যায়। শোনা যাচ্ছে, দুই লক্ষের বেশি Paytm অ্যান্ড্রয়েড POS (পয়েন্ট অফ সেল) ডিভাইজের পোস্টপেইড পরিষেবার উপরেও কাজ করছে এই সংস্থা।

Published by: Arka Deb
First published: November 24, 2020, 4:42 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर