Home /News /business /

Money: বাজারে এসে গিয়েছে Crypto Credit Card, ব্যাঙ্কের ক্রেডিট কার্ডের থেকে কেন আলাদা

Money: বাজারে এসে গিয়েছে Crypto Credit Card, ব্যাঙ্কের ক্রেডিট কার্ডের থেকে কেন আলাদা

Crypto Credit Card

Crypto Credit Card

এক নজরে দেখে নেওয়া যাক টাকার বাজারে অর্থাৎ মানি মার্কেটে (Money) ক্রিপ্টো ক্রেডিট কার্ডের (Crypto Credit Card) খুঁটিনাটি।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: বর্তমানে পুরো বিশ্বে খুব তেজ গতিতে বাড়ছে ক্রিপ্টোকারেন্সির (Cryptocurrency) বাজার। এই ক্রিপ্টোকারেন্সির বাজারে ব্যবহার করার জন্য চলে এসেছে ক্রিপ্টো ক্রেডিট কার্ড (Crypto Credit Card)। ব্যাঙ্কের কার্ডের মতো হলেও ক্রিপ্টো ক্রেডিট কার্ডের কয়েকটি আলাদা বৈশিষ্ট্য রয়েছে। এক নজরে দেখে নেওয়া যাক টাকার বাজারে অর্থাৎ মানি মার্কেটে (Money) ক্রিপ্টো ক্রেডিট কার্ডের (Crypto Credit Card) খুঁটিনাটি।

ক্রিপ্টো ক্রেডিট কার্ড

ক্রিপ্টো ক্রেডিট কার্ড  (Crypto Credit Card) ব্যাঙ্কের ক্রেডিট কার্ডের মতোই এক ধরনের ক্রেডিট কার্ড। এই ক্রিপ্টো ক্রেডিট কার্ডের সঙ্গে ব্যাঙ্কের ক্রেডিট কার্ডের পার্থক্য হল ব্যাঙ্কের ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে ব্যাবহার করা যায় নোট কারেন্সি ও কয়েন কারেন্সি আর ক্রিপ্টো ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করা যায় ডিজিটাল কারেন্সি অথবা ক্রিপ্টোকারেন্সির  (cryptocurrency) ক্ষেত্রে। ক্রিপ্টো ক্রেডিট কার্ডের সাহায্যে প্রথমে ক্রিপ্টোকারেন্সিকে সেই দেশের কারেন্সিতে পরিবর্তন করা হবে এবং তার পর পেমেন্ট (money) করার জন্য দেওয়া হবে।

আরও পড়ুন - Lifestyle Tips: Pregnant অবস্থায় এই সস্তার ঘরোয়া খাবারগুলো খেলে শরীর থাকবে সুস্থ

রিওয়ার্ড

বিভিন্ন ধরনের ক্রিপ্টো ক্রেডিট কার্ড তাদের ইউজারদের বিভিন্ন ধরণের সুবিধা প্রদান করে থাকে। যেমন জেমিনি ক্রেডিট কার্ড (Gemini Credit Card) বিটকয়েনে ৩ শতাংশ পর্যন্ত রিওয়ার্ড প্রদান করে। ব্লকফি ক্রেডিট কার্ড (BlockFi Credit Card) বিটকয়েন, ইথেরিয়াম সহ ১০ ধরনের ক্রিপ্টোকারেন্সির পেমেন্টে ১.৫ শতাংশ পর্যন্ত রিওয়ার্ড প্রদান করে থাকে।

ক্যাশ করার উপায়

এই ক্রিপ্টো ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে ক্যাশও বের করা সম্ভব। সবার প্রথমে এই ধরনের ক্রিপ্টো ক্রেডিট কার্ড বের করেছিল কয়েনবেস। তারা শিফট কার্ড নামের ক্রিপ্টো ক্রেডিট বার করেছিল। শিফট কার্ডে বিটকয়েনের ব্যালান্স জমা হয় এবং যখন যা কেনাকাটা করা হয়, সেই অনুযায়ী ব্যালান্স কমতে থাকে। শিফট ক্রেডিট কার্ডে প্রতি দিন ১০০০ ডলারের ট্রানজাকশন লিমিট রয়েছে। আর এটিএম থেকে ২০০ ডলারের বেশি বার করা যায় না।

আরও পড়ুন - পঞ্জিকা ২২ ডিসেম্বর: দেখে নিন নক্ষত্রযোগ, শুভ মুহূর্ত, রাহুকাল এবং দিনের অন্য লগ্ন!

কী ভাবে পাওয়া যাবে ক্রিপ্টো ক্রেডিট কার্ড

ভিসা এবং মাস্টারকার্ডের সাহায্যে তৈরি করা যায় ক্রিপ্টো ক্রেডিট কার্ড। এর জন্য প্রথমেই যে কোনও ক্রিপ্টো অর্গানাইজেশন থেকে ক্রিপ্টো ক্রেডিট কার্ড জারি করাতে হবে। ক্রিপ্টোকারেন্সির কাজ করা বিভিন্ন ধরনের একচেঞ্জ কোম্পানি এই ধরনের ক্রিপ্টো ক্রেডিট কার্ড জারি করার কাজ করে।

লেট পেমেন্টে বেশি সুদ

ক্রিপ্টো ক্রেডিট কার্ডের পেমেন্ট দেরি করে করলে বেশি পরিমাণে সুদ দিতে হয়। এছাড়াও এর পেমেন্ট দিতে দেরি করলে লেট ফি দিতে হয়।

বিদেশি এক্সচেঞ্জ চার্জ

ব্যাঙ্কের ক্রেডিট কার্ডে এই বিদেশি এক্সচেঞ্জের চার্জ কাটা হলেও ক্রিপ্টো ক্রেডিট কার্ডে এই ধরনের কোনও চার্জ কাটা হয় না। এছাড়াও ব্যাঙ্কের ক্রেডিট কার্ডে যে ধরনের অতিরিক্ত শুল্ক কাটা হয়, ক্রিপ্টো ক্রেডিট কার্ডের ক্ষেত্রে সেই ধরনের কোনও অতিরিক্ত শুল্ক কাটা হয় না।

রিওয়ার্ড পয়েন্টের ভ্যালু

ক্রিপ্টো ক্রেডিট কার্ডের রিওয়ার্ড পয়েন্ট ভ্যালু ক্রিপ্টোকারেন্সি বাড়ার সঙ্গে সঙ্গেই বাড়তে থাকে।

Published by:Debalina Datta
First published:

Tags: Cryptocurrency, Money

পরবর্তী খবর