corona virus btn
corona virus btn
Loading

রেকর্ড বিনিয়োগ ! মার্চ ২০২১-এর অনেক আগেই সম্পূর্ণ ঋণমুক্ত রিলায়েন্স (RIL), ঘোষণা মুকেশ আম্বানির

রেকর্ড বিনিয়োগ ! মার্চ ২০২১-এর অনেক আগেই সম্পূর্ণ ঋণমুক্ত রিলায়েন্স (RIL), ঘোষণা মুকেশ আম্বানির

নিজেদের টার্গেট ২০২১ মার্চ-এর অনেক আগেই রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজকে ঋণমুক্ত ঘোষণা করতে সফল চেয়ারম্যান মুকেশ আম্বানি ৷

  • Share this:

#মুম্বই: জিও অপারচুনিটি। একের পর এক লগ্নিকারীদের টেনে নিজেদের রেকর্ড নিজেরাই ভেঙে চলেছে রিলায়েন্স জিও। ৮ সপ্তাহে জিও-তে ১১তম লগ্নি এসেছে বৃহস্পতিবার। এবার জিও প্ল্যাটফর্মে বিনিয়োগের ঘোষণা করেছে সৌদি আরবের সংস্থা PIF ৷ জিও প্ল্যাটফর্মের ২.৩২ শতাংশ শেয়ার কিনছে এই সংস্থা ৷ মোট ১১,৩৬৭ কোটি টাকা ঢালতে চলেছে পিআইএফ ৷ এরই পাশাপাশি জিও-র জন্য দারুণ খবর ৷ নিজেদের টার্গেট (২০২১-এর মার্চ) বা নির্ধারিত সময়ের অনেক আগেই রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজকে সম্পূর্ণ ঋণমুক্ত ঘোষণা করতে সফল চেয়ারম্যান মুকেশ আম্বানি ৷ যার অধিকাংশটাই সম্ভব হল জিও-র দৌলতেই ৷ পাশাপাশি রাইটস ইস্যু তো রয়েছেই ৷ সবমিলিয়ে অনেক আগেই নিজেদের লক্ষ্যপূরণে সফল সংস্থা ৷ মাত্র ৫৮ দিনের মধ্যেই ১৬৮,৮১৮ কোটি টাকা নিজেদের ঘরে তুলতে সক্ষম জিও ৷ এর মধ্যে শুধুমাত্র জিও-র ১১টি মেগা ডিল থেকেই এসেছে ১১৫,৬৯৩.৯৫ কোটি টাকা ৷ রাইটস ইস্যু থেকে এসেছে ৫৩,১২৪.২০ কোটি টাকা ৷

২০১৬ সালের সেপ্টেম্বর মাস থেকেই দেশজুড়ে জিওর বিনামূল্যে ৪জি ডেটা সরবরাহ রিলায়েন্সের বৃহৎ বাণিজ্যিক কৌশলেরই একটি অঙ্গ ছিল। যার জেরে জিও বর্তমানে ভারতের সবচেয়ে বড় টেলিকম সার্ভিস প্রোভাইডারে পরিণত হয়েছে। যদিও এর ফলে ১,৬০,০০০ কোটি টাকা ঋণের বোঝা চাপে RIL-এর মাথায়। ফলত ২০২১-এর মার্চের মধ্যে ঋণমুক্ত সংস্থা হিসেবে নিজেদের প্রতিষ্ঠা করার লক্ষ্যে শেয়ার বিক্রির পথে হেঁটেছে জিও।

লকডাউনের মধ্যে একের পর এক চমক দেখিয়েছে রিলায়েন্স জিও ৷ আনলক শুরু হতেও জিও ম্যাজিক অব্যাহত। অধিকাংশ সংস্থাই যখন ব্যবসায় কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে, তখন দেশের সবচেয়ে সম্ভাবনাময় ব্র্যান্ড হিসেবে বিশ্ববাজারে উঠে আসছে রিলায়েন্স জিও।  ফেসবুক-সহ মোট ১১টি সংস্থার সঙ্গে মেগা ডিল সেরে ফেলেছে রিলায়েন্স জিও ৷ বৃহস্পতিবারের PIF-টা ধরলে এটি গত আট সপ্তাহে ১১তম বিদেশি বিনিয়োগ জিও প্ল্যাটফর্মে ৷ এখনও পর্যন্ত জিও প্ল্যাটফর্মের মোট ২৪.৭০ শতাংশ  শেয়ার বিক্রি করল মুকেশ আম্বানির টেলিকম সংস্থা ৷

বাজার বলছে, জিও ধামাকা। বাজার বিশেষজ্ঞরা একে বলছেন, ‘জিও অপারচুনিটি’। ২ মাসে মোট ১১টি বিদেশি লগ্নি টেনে নতুন রেকর্ড গড়তে সফল জিও। রিলায়েন্স জিও-তে সাম্প্রতিক সময়ে যে বিশ্বখ্যাত সংস্থাগুলি বিনিয়োগ করেছে, তার মধ্যে রয়েছে ফেসবুক (৪৩,৫৭৩.৬২ কোটি টাকা), সিলভার লেক পার্টনার্স (৫৬৫৫.৭৫ কোটি টাকা), ভিস্তা ইক্যুইটি পার্টনার্স (১১,৩৬৭ কোটি টাকা), জেনারেল অ্যাটলান্টিক (৬৫৯৮.৩৮ কোটি টাকা), কেকেআর (১১,৩৬৭ কোটি টাকা), মুবাডালা (৯০৯৩ কোটি টাকা), সিলভার লেক (৪,৫৪৭ কোটি টাকা)-র, আবু ধাবি ইনভেস্টমেন্ট অথরিটি বা ADIA-এর (৫৬৮৩.৫০ কোটি টাকা), টিপিজি ক্যাপিটাল (৪৫৪৬.৮০ কোটি টাকা), এল ক্যাটারটন (১৮৯৪.৫০ কোটি টাকা) এবং পিআইএফ ১১,৩৬৭ কোটি টাকা ৷

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: June 19, 2020, 12:08 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर