?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

ব্যাঙ্কের লকারে রাখা সোনার উপরে লোন নেওয়া কী লাভজনক ? জেনে নিন....

ব্যাঙ্কের লকারে রাখা সোনার উপরে লোন নেওয়া কী লাভজনক ? জেনে নিন....

ব্যাঙ্ক লকারে লোন নিলে কী কী লোকসান হতে পারে?

  • Share this:

#নয়াদিল্লি:মুম্বইয়ের আকাশ সাক্সেনার (৩৬) এমারজেন্সির জন্য ৫ লক্ষ টাকার দরকার পড়েছিল ৷ তিনি নিজের ফিক্সড ডিপোজিট ভেঙে মাত্র ২ লক্ষ টাকা জোগাড় করতে পেরেছিলেন ৷ ব্যাঙ্ক ম্যানেজার তাকে যে লকারে সোনা রাখা রয়েছে সেটি ব্যাঙ্কের কাছে জমা দেওয়ার পরামর্শ দেয় ৷ এর বদলে তিনি গোল্ড লোনের জন্য আবেদন করতে পারবেন ৷ পাশাপাশি তাঁকে লকার চার্জও দিতে হবে না ৷ আকাশ জানান ব্যাঙ্ক ম্যানেজার তাঁকে লকার চার্জ বাঁচানোর লোভ দেখায় ৷ তিনি ভাবেন সোনা ব্যাঙ্কের কাছে রয়েছে তাই সুরক্ষিত থাকবে ৷ এর বদলে তিনি গোল্ড লোন নেন ৷

আকাশ গোল্ড লোন, স্ট্যাম্প ডিউটি, গোল্ড ভ্যালুয়েশন ফি-র উপরে ব্যাঙ্ককে অতিরিক্ত শুল্ক হিসেবে ১ শতাংশ প্রোসেসিং ফি জমা দেন ৷ এছাড়া ব্যাঙ্ক তার কাছ থেকে বার্ষিক ৯.৫ শতাংশ সুদ নিয়েছে ৷ করোনা ভাইরাসের জেরে সোনার দাম প্রায় ৫০,০০০ টাকা প্রতি ১০ গ্রামে হয়ে গিয়েছে ৷ এর মধ্যে রিজার্ভ ব্যাঙ্কের নির্দেশ অনুযায়ী সোনার উপরে ৯০ শতাংশ পর্যন্ত লোন নেওয়া যাবে ৷ সোনার উপরে সুদের ৭.৪ শতাংশ যা পার্সোনাল লোনের থেকে কম ৷

ব্যাঙ্ক ওভারড্রাফ্ট স্কিমের উপরে লোন দিয়ে থাকে ৷ ওভারড্রাফ্ট সুবিধা দিয়ে ব্যাঙ্ক আপনার সোনা রেখে দেয় ৷ লকারের চার্জ না দেওয়ার পাশাপাশি আপনার সোনার উপরে ইনস্যুরেন্সও পাওয়া যায় ৷ সাধারণত এই সমস্ত দিক দেখে লোন নিয়ে থাকে সাধারণ মানুষ ৷

ব্যাঙ্ক লকারে লোন নিলে কী কী লোকসান হতে পারে? আপনাকে প্রতি মাসে সোনার উপরে সুদ দিতে হয় ৷ কোনও মাসে না দিতে পারলে আপনার ক্রেডিট হিস্ট্রি খারাপ হয়ে যায় ৷ আপনি সোনা বন্দক রাখলে ব্যাঙ্ক সোনার শুদ্ধতা যাচাই করবে যাতে সোনার সামান্য হলেও লোকসান হয় ৷ তাই লকারের চার্জ বাঁচানোর জন্য লোন নেওয়া মোটেও লাভজনক নয় ৷

ভারতীয় বাজারে বর্তমানে ১০ থেকে ১২ শতাংশ পতন দেখা দিয়েছে ৷ এর জেরে ৯০ শতাংশ গোল্ড লোনের উপর প্রভাব পড়বে ৷ এরকম পরিস্থিতিতে ব্যাঙ্ক আপনার থেকে আরও সোনা চাইবে বা আপনার রাখা সোনা নিলাম করবে ৷ ব্যাঙ্কের কাছে কখনও ৯০ শতাংশ গোল্ড লোনের জন্য আবেদন করা উচিৎ নয় ৷ খুব দরকার ছাড়া গোল্ড লোন নেওয়া উচিৎ নয় ৷

Published by: Dolon Chattopadhyay
First published: October 2, 2020, 5:15 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर