মাত্র ৫০০০ টাকা ইনভেস্ট করে প্রতি মাসে পেয়ে যাবেন ৫০,০০০ টাকা!

বর্তমানে বেশ অল্প টাকায় এই ব্যবসা শুরু করা যেতে পারে ৷ এর জন্য সামান্য একটু জায়গা ও ৫০০০ টাকার দরকার পড়বে ৷

বর্তমানে বেশ অল্প টাকায় এই ব্যবসা শুরু করা যেতে পারে ৷ এর জন্য সামান্য একটু জায়গা ও ৫০০০ টাকার দরকার পড়বে ৷

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: করোনাকালে গোটা দেশ আর্থিক অনিশ্চয়তার মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে ৷ করোনা ও লকডাউনের জেরে একাধিক মানুষ চাকরি হারিয়েছেন ৷ এরকম এক পরিস্থিতির মাঝে দারুণ একটি আইডিয়া রয়েছে যার সাহায্যে সহজেই বাম্পার টাকা আয় করতে পারবেন ৷ ভারতের বিশাল সংখ্যক মানুষ মাটির ভাঁড়ে চা (Kulhad making business) খায় ৷ রেল স্টেশন, বাস স্টপ, বিভিন্ন জায়গায় মাটির ভাঁড়ের লাগাতার চাহিদা থাকে ৷ আপনিও এই ব্যবসা শুরু করে মোটা টাকা আয় করতে পারবেন সহজেই ৷

    সরকারের তরফেও মাটির ভাঁড়ের চাহিদা বৃদ্ধির উপর জোর দেওয়া হচ্ছে ৷ বেশ কিছুদিন আগে সড়ক ও পরিবহন মন্ত্রী নীতিন গডকড়ি মাটির ভাঁড়ের চাহিদা বৃদ্ধির জেরে প্লাস্টিক ও কাগজের কাপে চা দেওয়ার উপর নিষেধাজ্ঞা দারি করেছিলেন ৷ পাশাপাশি সরকারের তরফে কুমোর সশক্তিকরণ যোজনা চালু করা হয়েছিল ৷ এই যোজনায় কেন্দ্র সরকারের তরফে কুমোরদের বিদ্যুৎ চালিত মেশিন দেয় যেখানে সহজেই মাটির জিনিস তৈরি করা যায় ৷ সরকার কুমোরদের থেকে ভাল দামে এগুলো কিনে নেয় ৷

    বর্তমানে বেশ অল্প টাকায় এই ব্যবসা শুরু করা যেতে পারে ৷ এর জন্য সামান্য একটু জায়গা ও ৫০০০ টাকার দরকার পড়বে ৷ খাদি গ্রামোদ্যোগ আয়োগের চেয়ারম্যান বিনয় কুমার সক্সেনা জানিয়েছেন সরকার এবছর ২৫ হাজার ইলেক্ট্রিক মেশিন বিতরন করেছে ৷

    আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল মাটির ভাঁড় পরিবেশবান্ধব ৷ বর্তমান দাম অনুযায়ী, ১০০ টা ভাঁড়ের দাম ৫০ টাকা ৷ এখন শহরে মাটির ভাঁড়ে চায়ের দাম প্রায় ১৫ থেকে ২০ টাকা ৷  একদিনে মাটির ভাঁড় বিক্রি করে ১০০০ টাকা পর্যন্ত লাভ করা যেতে পারে ৷ মনোযোগ দিয়ে ব্যবসা করলে সহজেই মাসে ৫০,০০০ টাকা পর্যন্ত আয় করতে পারবেন ৷

    Published by:Dolon Chattopadhyay
    First published: