corona virus btn
corona virus btn
Loading

HONOR 9X না কি SAMSUNG M30, কোনটি হতে পারে আপনার আদর্শ পছন্দ ?

HONOR 9X না কি SAMSUNG M30, কোনটি হতে পারে আপনার আদর্শ পছন্দ ?

সবার একটাই প্রশ্ন - HONOR 9x স্যামসাং-এর তুলনায় কতটা ভাল ?

  • Share this:

#কলকাতা: নতুন বছর প্রত্যেকে শুরু করছেন নতুন স্মার্টফোন দিয়ে। গত দশকে আমরা কিছু অসাধারণ প্রযুক্তিগত উদ্ভাবন দেখেছি আর এই শতকে HONOR নিজেদের টেক শিক ব্র্যান্ড হিসেবে প্রতিষ্ঠা করে ফেলেছে । এই দশকে স্মার্ট ফোনের বাজারে প্রতিযোগিতা তীব্রতর হতে চলেছে, যার মানে ব্যবহারকারীরা বহু নতুন প্রযুক্তিগত বদল দেখতে পাবেন প্রতিযোগিতার কথা বলতে গেলে,HONOR 9x তীব্র লড়াইয়ের সম্মুখীন করতে চলেছে স্যামসাং m30 কে ৷ কারণ এই দুটিই সাশ্রয়জনক এবং অত্যন্ত ভাল ৷ HONOR 9x সহজেই পছন্দসই ব্র্যান্ড হতে পেরেছে মানুষের কাছে দারুণ কিছু বৈশিষ্ট্য দিয়ে এবং সাশ্রয়কর দামের জন্য। কিন্তু সবার একটাই প্রশ্ন - HONOR 9x স্যামসাং-এর তুলনায় কতটা ভাল ?

নক্সা- HONOR 9x এর আছে দুটি 3d সামান্য বাঁকা পেছনের দিকের অংশ এবং চকচকে দেখতে হওয়ার কারণে এটিকে অসাধারণ এবং উচ্চ মানের দেখতে লাগে। এটির পিছনের অংশে x নকশাটি খোদাই করা আছে যেটির জন্যও এর ডিজাইনে আছে এক অনবদ্য জৌলুস। অন্যদিকে স্যামসাং m 30 এর ডিজাইন স্যামসাং গ্যালাক্সি m10 আর m20 এর মতই। HONOR 9x এর আছে সম্পূর্ণ hd বা হাই ডেফিনিশন প্রদর্শন যেটিতে আছে 6.59 পর্দা বা স্ক্রীন। এর তুলনায় স্যামসাং m30 তে আছে 6.4 ইঞ্চি FHD, ইনফিনিটি এবং ইউ সুপার অ্যামোলেড প্রদর্শন।

এ ছাড়াও HONOR 9x এর পর্দার অনুপাত হল ৯১% যেখানে স্যামসাং m 30 এর পর্দার অনুপাত হল 91.4%. দুটি ফোনেই আছে আঙ্গুলের স্পর্শ দিয়ে ফোন খোলার সুব্যবস্থা এবং টাইপ সি চার্জার। সোজা কথায় HONOR 9x অনেক এগিয়ে গেছে নক্সা এবং প্রদর্শনের ক্ষেত্রে।

ক্যামেরাআজকের যুগে ক্যামেরার গুরত্ব অপরিসীম ফোন কেনার ক্ষেত্রে। HONOR 9x-এ আছে ত্রিমুখী, ক্যামেরার ব্যবস্থা যেটির 48এমপি হল মুখ্য ক্যামেরা যেটিতে আছে 8এমপি র অসাধারণ প্রশস্ত লেন্স যেটি দেয় 120 ডিগ্রীর প্রদর্শনী এবং 2 এমপির গভীরতার লেন্স। সামনের ক্যামেরার ক্ষেত্রে বলি, এটিতে আছে 16 এমপির পপ আপ বা উঁচু হয়ে যাওয়া ক্যামেরা যেটি আটটি বিভিন্ন ধরনের পদ্ধতিতে ছবি তুলতে সাহায্য করে; যেমন স্বল্প আলো, বাটারফ্লাই আলো, স্কেটেদ আলো ইত্যাদি। এই দামের মধ্যে একমাত্র HONOR 9x এনেছে পপ আপ ক্যামেরা যাতে আছে ইন্টেলিজেন্ট ফল ডিটেকশন, অর্থাৎ পড়ে গেলে বন্ধ হওযার উপযোগিতা, কিংবা নিম্নগামী চাপের থেকে বাঁচার উপায় এবং ধুলো এবং জলের থেকে সুরক্ষা।

কর্মক্ষমতা দুটি স্মার্টফোনই অ্যান্ড্রয়েড 9.0os এ চলে, কিন্তু HONOR 9x Kirin 710f আটটি কোর প্রসেসর এর মাধ্যমে চলে যেটির কারণে এর কর্মদক্ষতা অত্যন্ত দ্রুত।সেইখানে স্যামসাং m 30 তে আছে একসিনোস 9611 প্রসেসর। এইখানে HONOR 9x এগিয়ে আছে কারণ এটির kirin 710f অক্টা কোর প্রসেসর বিভিন্ন এবং দ্রুতগামী কাজকে সহজ করে তোলে এবং এটিতে উচ্চমার্গীয় গ্রাফিক্স এর বিভিন্ন খেলাগুলি কোনরকম বিঘ্ন ছাড়া চলে। এই দুটি ফোনেই আছে 128 জিবি অভ্যন্তরীণ স্টোরেজ 4 বা 6 জিবি ram এর সাথে। দুটি ফোনের ব্যাটারি অত্যন্ত ভালো এবং খুবই দ্রুত চার্জ করা যায় এগুলোর চার্জার এর সাহায্যে। এসব সত্ত্বেও Kirin 710f প্রসেসর এর কারণে HONOR 9x এগিয়ে থাকছে স্যামসাং m 30 এর তুলনায় এর কর্মদক্ষতার কারণে।

মূল্য উপরিউক্ত সবকটি কারণ থেকে এটি পরিষ্কার যে HONOR 9x স্যামসাং m30 এর থেকে উন্নত মানের ফোন প্রযুক্তিগত দিক থেকে। এবার তাহলে এই দুটি ফোনের দামের তুলনামূলক বিচার করা যাক। 4 জিবি 128 জিবি HONOR 9x এর দাম 13,999 কিন্তু প্রদান এর প্রথম দিনে, যেটি শুরু হচ্ছে 19 শে জানুয়ারি থেকে 22 শে জানুয়ারী পর্যন্ত এটি পাওয়া যাবে 1000 টাকা পর্যন্ত ছাড়ে, 12,999 টাকায়। ICICI Bank এর ক্রেডিট কার্ড এবং kotak ব্যাংক এর ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ড এ 10% অধিক ছাড় দেওয়া হচ্ছে। এ ছাড়াও এই সময়ের মধ্যে কিনলে 2200 টাকার জিও রিচার্জ এর ভাউচার পাবেন যেটি আপনি 44 বার ব্যবহার করতে পারবেন 50 টাকার রিচার্জে।

একই সময়ে 6জিবি +128 জিবি র মূল্য হল 16,999 যেটি ব্যাংক এর সাহায্যে কিনলে আপনি পাবেন 15,299 টাকায়। অন্যদিকে, স্যামসাং m30 4 জিবি 64 জিবি র দাম 16,999 এবং যখন দুটি ফোনের দামই এক তখন তুলনামূলক ভাবে HONOR 9x একই দামে উন্নত মানের ফোন দিচ্ছে উন্নত বৈশিষ্ট্য-র সাথে।

তুলনামুলক বিচারে HONOR 9x । বেশি ভাল বৈশিষ্ট্য সম্পন্ন ফোন দিছে সাশ্রয়কর দামে। এ ছাড়াও এই সংস্থাটি পপ আপ ক্যামেরা বিশিষ্ট ফোন দিছে এই দামের মধ্যে এবং এই অফার এর মধ্যে একটি অসাধারণ ফোন অনেক কম দামের মধ্যে পাওয়া যাচ্ছে । প্রসেসর এর ক্ষেত্রে HONOR এর kirin 710 অনেক দ্রুত এবং উন্নত এক্সিনোস 9611 এর তুলনায়।এছাড়াও HONOR 9x এর আছে একটি দীর্ঘ মেয়াদি ব্যাটারি।

সুতরাং এই সমস্ত বিষয় চিন্তা ভাবনার মধ্যে রাখলে খুব পরিষ্কার করে এটা বলা যেতেই পারে, HONOR 9x একটি আদর্শ ফোন এই নিরিখে। এমন সাস্রয়কারি দামের মধ্যে পপ আপ ক্যামেরা সমৃদ্ধ এত বৈশিষ্ট্য সম্পন্ন ফোন আর হবে না, ফলতঃ দুটি শ্রেণীতেই HONOR 9x শ্রেষ্ঠত্বের দাবিবার

This is a partnered post.

(একটি বিজ্ঞাপনের প্রতিবেদন )

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: January 21, 2020, 12:44 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर