• Home
  • »
  • News
  • »
  • business
  • »
  • Tips for higher income: উপার্জন হবে হেসে-খেলে, এক নজরে দেখে নিন ৩ মাসে ৩ লাখ টাকা আয় করার উপায়!

Tips for higher income: উপার্জন হবে হেসে-খেলে, এক নজরে দেখে নিন ৩ মাসে ৩ লাখ টাকা আয় করার উপায়!

প্রতীকী ছবি৷

প্রতীকী ছবি৷

এই সকল প্রোডাক্টের চাষ করে প্রতি মাসে লাখ টাকার লাখ টাকার ওপরে আয় করা সম্ভব।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: বর্তমানে বাজারে বিভিন্ন ধরনের ভেষজ প্রোডাক্ট এবং প্রাকৃতিক প্রোডাক্টের বিশাল চাহিদা রয়েছে। এই সকল প্রোডাক্টের চাষ করে প্রতি মাসে লাখ টাকার লাখ টাকার ওপরে আয় করা সম্ভব। চাষ করা সমস্ত প্রোডাক্ট সরাসরি ক্রয় করবে বিভিন্ন ধরনের কোম্পানি।

প্রাকৃতিক প্রোডাক্ট এবং ওষুধের বাজার

বর্তমানে বিভিন্ন ধরনের কোম্পানি চুক্তির ভিত্তিতে বিভিন্ন ধরনের প্রাকৃতিক প্রোডাক্ট এবং প্রাকৃতিক ওষুধের চাষ করছে। এই ধরনের প্রাকৃতিক প্রোডাক্ট এবং প্রাকৃতিক ওষুধের চাষ শুরু করার জন্য কয়েক হাজার টাকার দরকার হয়। কিন্তু আয় লাখ টাকার ওপরে হয়। প্রাকৃতিক প্রোডাক্ট এবং প্রাকৃতিক ওষুধের বাজার এতটা বেড়ে গিয়েছে যে এর জন্য সবসময় দরকারি জিনিসের চাহিদা বেড়ে চলেছে।

প্রাকৃতিক প্রোডাক্টের চাষ

এর মধ্যে তুলসী, মুলেঠি, অ্যালোভেরা ইত্যাদির মতো জিনিস খুব কম সময়েই ফলানো যায়। এদের মধ্যে আবার কয়েকটি গাছকে ছোট ছোট গামলাতেও ফলানো যায়। এই ধরনের বিভিন্ন প্রাকৃতিক প্রোডাক্টের চাষ শুরু করার জন্য মাত্র কয়েক হাজার টাকা খরচ করার দরকার হলেও, এর থেকে লক্ষাধিক টাকার বেশি আয় হয়। বর্তমানে এমন অনেক ফার্মা কোম্পানি রয়েছে, যারা এই সকল প্রাকৃতিক প্রোডাক্ট ক্রয় করার জন্য চুক্তি করে থাকে। এর ফলে বিভিন্ন ধরনের প্রাকৃতিক প্রোডাক্টের চাষ করে সুনিশ্চিত আয়ের সম্ভাবনা রয়েছে।

আরও পড়ুন: ২০২২ সালে HDFC সিকিউরিটিজ এই ব্যাঙ্কিং স্টককে টপ পিক হিসাবে বেছে নিয়েছে, জেনে নিন আপনিও!

৩ মাসে ৩ লাখ টাকা আয়

তুলসি পাতার ধার্মিক মাহাত্ম্য থাকলেও তুলসি পাতার বিশেষ কয়েকটি ওষধি গুণও রয়েছে। বিভিন্ন ধরনের ওষুধ তৈরি করতে তুলসির ব্যবহার করা হয়। তুলসি পাতার ব্যবহার করে ক্যানসারের মতো গুরুতর রোগের চিকিৎসার ওষুধ তৈরি করা হয়।

আরও পড়ুন: প্যান কার্ড নিয়ে এই বড় ভুল একদমই নয়, নইলে ১০ হাজার টাকার জরিমানা

এর ফলে তুলসি গাছের চাষ করে ভালো আয় করার সম্ভাবনা রয়েছে। ১ হেক্টর জমিতে তুলসী গাছের চাষ করতে প্রায় ১৫,০০০ টাকা খরচ করতে হয়। কিন্তু ৩ মাস পরে সেই তুলসী গাছ থেকেই প্রায় ৩ লাখ টাকা আয় করা সম্ভব।

বিভিন্ন ধরনের কোম্পানি

তুলসী গাছের জন্য বিভিন্ন ধরনের নামী-দামি কোম্পানি চুক্তি করছে। এর মধ্যে রয়েছে পতঞ্জলি, ডাবর, বৈদ্যনাথ ইত্যাদির মতো কোম্পানি। তুলসীর বীজ আর তেলের একটি বিশাল বড় বাজার রয়েছে। প্রায় প্রতি দিন নতুন নতুন দামে তুলসীর বীজ এবং তেল বিক্রয় করা হয়।

ট্রেনিং

এই ধরনের প্রাকৃতিক প্রোডাক্টের চাষ করার জন্য ট্রেনিং নেওয়ার প্রয়োজন। এই ধরনের উপাদান বিভিন্ন ধরনের ওষুধে ব্যবহার করা হয় বলে, এই ট্রেনিং খুবই গুরুত্বপূর্ণ। লখনউতে অবস্থিত সেন্ট্রাল ইনস্টিটিউট অফ মেডিসিনাল অ্যান্ড অ্যারোমেটিক প্লান্ট এই ধরনের প্রাকৃতিক প্রোডাক্টের চাষ করার জন্য ট্রেনিং প্রদান করে।

Published by:Debamoy Ghosh
First published: