Home /News /business /
Ration Card বানানোর সময় অবশ্যই খেয়াল রাখুন এই বিষয়গুলি, না হলে পড়তে হবে সমস্যায়

Ration Card বানানোর সময় অবশ্যই খেয়াল রাখুন এই বিষয়গুলি, না হলে পড়তে হবে সমস্যায়

আপনার আর্থিক অবস্থার উপর নির্ভর করবে আপনার রেশন কার্ড ৷

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: রেশন কার্ড বানানোর সময় কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় খেয়াল রাখা অত্যন্ত জরুরি ৷ অনেক সময় দেখা গিয়েছে, পুরো বিষয়ে না জেনে অনেকেই ফর্ম ফিলআপ করে দেন ৷ এর জেরে পরে আবেদন বাতিল হয়ে যায় ৷ তাই কয়েকটি বিষয়টি মাথায় রাখলে এই সমস্যায় পড়তে হবে না ৷

    সবচেয়ে প্রথমে আপনাকে দেখতে হবে, যে রেশন কার্ড বানাচ্ছেন সেটি কোন ক্যাটাগরির ৷ আপনাকে সঠিক ডকুমেন্ট দিতে হবে ৷ আপনার এবং পরিবারের সমস্ত সদস্যের সঠিক বয়স দিতে হবে ৷ আপনার আর্থিক অবস্থার উপর নির্ভর করবে আপনার রেশন কার্ড ৷

    ১. দেখে নিন কত টাকা চার্জ লাগবে-

    রেশন কার্ড তৈরি করা রাজ্য সরকারের দায়িত্ব ৷ দেশে বর্তমানে ৪ ধরনের রেশন কার্ড হয় ৷ বেশ কিছু রাজ্য সরকার তাদের নিজের রাজ্যে আলাদা করে রেশন কার্ড তৈরি করছে ৷ তাই আবেদন করার সময় ফর্মটি আগে ভালো করে খতিয়ে দেখে নিন ৷ সঠিক ক্যাটাগরির ফর্ম জমা দিতে হবে ৷ কিছু রাজ্যে বিনামূল্যে রেশন কার্ড তৈরি হয় ৷ আবার কিছু রাজ্যে এর জন্য ৫ থেকে ৪০ টাকা চার্জ নেওয়া হয় ৷

    ২. ৪ ধরনের রেশন কার্ড -

    বিভিন্ন ধরনের রেশন কার্ড হয় ৷ আপনার আর্থিক অবস্থার উপর নির্ভর করে BPL, APL, AAY, AY কার্ড তৈরি করা হয় ৷

    ৩. আবেদনের জন্য লাগবে এই ডকুমেন্টগুলি-

    রেশন কার্ড বানানোর জন্য আইডি প্রুফ হিসেবে আধার কার্ড, ভোটার আইডি, পাসপোর্ট, সরকারের তরফে জারি করা আইডি কার্ড, হেলথ কার্ড, ড্রাইভিং লাইসেন্স জমা দেওয়া যেতে পারে ৷ এছাড়া প্যান কার্ড, পাসপোর্ট সাইজ ফটো, আইটি ফাইল লাগবে ৷ পাশাপাশি ঠিকানার প্রমান পত্র হিসেবে বিদ্যুতের বিল, গ্যাস কানেকশন, টেলিফোন বিল, ব্যাঙ্ক স্টেটমেন্ট বা পাসবুক, রেন্টার এগ্রিমেন্ট দিতে হবে ৷

    ৪. রেশন কার্ডের মাধ্যমে সাবসিডিতে পেয়ে যাবেন রেশন

    রেশন কার্ড অত্যন্ত জরুরি একটি সরকারি ডকুমেন্ট ৷ সরকারি যোজনা বা অন্যান্য কাজের জন্য রেশন কার্ডকে পরিচয় পত্র হিসেবে ব্যবহার করা যেতে পারে ৷

    Published by:Dolon Chattopadhyay
    First published:

    Tags: Ration Card

    পরবর্তী খবর