Home /News /business /
Union Budget 2022: চার বছরে প্রথমবার রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা বাড়াতে পারে কেন্দ্র!

Union Budget 2022: চার বছরে প্রথমবার রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা বাড়াতে পারে কেন্দ্র!

Union Budget 2022: প্রতীকী ছবি

Union Budget 2022: প্রতীকী ছবি

Union Budget 2022: সাধারণ ভাবে গত কয়েক বছরে বাজেটে প্রস্তাবিত প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ কর আদায় করতে পারেনি কেন্দ্র।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: গত চার বছরে প্রথমবার রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা (Union Budget 2022) বাড়াতে পারে কেন্দ্রীয় সরকার। চলতি অর্থবর্ষে কর আদায়ের লক্ষ্যে পৌঁছনো নিয়ে কেন্দ্র আশাবাদী। সাধারণ ভাবে গত কয়েক বছরে বাজেটে (Union Budget 2022) প্রস্তাবিত প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ কর আদায় করতে পারেনি কেন্দ্র। ২০২১-২২ অর্থবর্ষের প্রথম ৮ মাসে ১১.৩ লক্ষ কোটি টাকা রাজস্ব আদায় করেছে কেন্দ্র। যা গত অর্থবর্ষের তুলনায় ৬৫ শতাংশ বেশি। গত বাজেটে ১৫.৪ লক্ষ কোটি টাকা রাজস্ব আদায় হবে বলে আশা প্রকাশ করেছিল কেন্দ্র। অর্থবর্ষের শেষ লগ্নে কর আদায়ের পরিমাণ বাড়ে। গত এক দশক ধরে সেই প্রবণতাই দেখা গিয়েছে। চলতি বছর সরকারকে তার লক্ষ্যমাত্রা পূরণ করতে এখনও পর্যন্ত সংগৃহীত করের ৩৬ শতাংশ আদায় করতে হবে। যা খুব একটা শক্ত কাজ নয় বলেই মনে করছেন অর্থনীতিবিদরা।

এইচএসবিসি-র প্রধান অর্থনীতিবিদ প্রাঞ্জুল ভাণ্ডারী একটি প্রাক বাজেট নোটে লিখেছেন, ‘রাজস্ব আদায়ের উচ্চভিলাষী লক্ষ্যমাত্রা ছুঁতে না পারায় বিশ্বাসযোগ্যতা ধাক্কা খেয়েছিল। তবে এই বছর সেই ধারণা বদলাতে পারে।লেগে থাকলে কর আদায়ের পরিমাণও বাড়তে পারে’। পরিসংখ্যান বলছে, কর্পোরেট ট্যাক্স আদায়ের পরিমাণ কমেছে। ২০১৯ সালে কর্পোরেট ট্যাক্স হ্রাসকে এর জন্য দায়ী করছেন অর্থনীতিবিদরা। তবে মহামারী আবহেও আয়কর এবং জিএসটি আদায় বাড়ায় সন্তোষ প্রকাশ করেছেন তাঁরা।

আরও পড়ুন- বাজেটে এই ১০ পদক্ষেপ নিতে হবে নির্মলাকে, তবেই হাসি ফুটবে আমজনতার মুখে!

চলতি অর্থবর্ষের প্রথম আট মাসে আদায় হওয়া মোট করে কর্পোরেট ট্যাক্সের পরিমাণ ২২.৯ শতাংশ (Union Budget 2022)। ২০১৯-২০ অর্থবর্ষে এটা ছিল ৩১.৯ শতাংশ। ফলে স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে, কর্পোরেট ট্যাক্স আদায়ের পরিমাণ নিম্নমুখী। তবে আবগারি এবং রাজস্ব খাতে আদায়ের পরিমাণ অনেকটাই বেড়েছে।

আরও পড়ুন- ২০১৭ সালে রেল বাজেটকে কেন কেন্দ্রীয় বাজেটে জুড়ে দেওয়া হয়? জানুন কারণ

তবে করোনা আবহেও জিডিপি ক্রমশ বাড়ছে। কৃষি, আবাসন, উৎপাদন, পরিবহণ, পর্যটন, শিল্প সব ক্ষেত্রই স্বাভাবিক হচ্ছে ধীরে ধীরে। জুলাই থেকে সেপ্টেম্বর ত্রৈমাসিকে ভারতের জিডিপি ৭.৪ শতাংশ থেকে বেড়ে ৮.৪ শতাংশ হয়ে গিয়েছে। এর আগে জুন মাসে ত্রৈমাসিকে ভারতের জিডিপি ২০.১ শতাংশ ছিল। ২০২১-২২ ডিজিপি এক কনস্ট্রাক্ট প্রাইজ ৩৫.৭৩ লক্ষ কোটি টাকা ছিল।

২০২০-১২ আর্থিক বছরের তৃতীয় ত্রৈমাসিক থেকে ০.৫ শতাংশ হারে বাড়ছে জিডিপি। এর আগে ২০১৯-২০ সালের জুলাই-সেপ্টেম্বরের ত্রৈমাসিক থেকে দেশের জিডিপি গ্রোথ ৭.৪ শতাংশ থেকে বেড়ে ৮.৪ শতাংশ হয়ে গিয়েছে। চলতি আর্থিক বছরের প্রথমে এপ্রিল-জুন মাসে জিডিপির বৃদ্ধি খুবই কম ছিল। ২০.১ শতাংশ থেকে পড়ে গিয়ে ৮.৪ শতাংশ হয়ে গিয়েছে। যদিও রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া ২০২২ সালে ভারতের জিডিপি বৃদ্ধি ৯.৫ শতাংশের উপর থাকার কথা বলেছিল। দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকে জিডিপি গ্রোথ ৭.৫ শতাংশ কিংবা ৮.৫ শতাংশের মধ্যে রাখার কথা বলা হয়েছিল। এনএসও বা ন্যাশনাল স্ট্যাটিসটিক্যাল অফিসের তথ্য অবশ্য আশার আলোই দেখিয়েছে।

First published:

Tags: Nirmala Sitharaman, Union Budget 2022

পরবর্তী খবর