লাগবে না ড্রাইভিং লাইসেন্স, ঝক্কি নেই রেজিস্ট্রেশনেরও! কেনার পরেই সরাসরি চালানো যাবে এই ইলেকট্রিক স্কুটারগুলো

লাগবে না ড্রাইভিং লাইসেন্স, ঝক্কি নেই রেজিস্ট্রেশনেরও! কেনার পরেই সরাসরি চালানো যাবে এই ইলেকট্রিক স্কুটারগুলো

এক ঝলকে দেখে নিন কোন সংস্থার কোন মডেলগুলো এই আওতায় পড়ছে!

এক ঝলকে দেখে নিন কোন সংস্থার কোন মডেলগুলো এই আওতায় পড়ছে!

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: দু'-চাকার গাড়ি, অথচ ড্রাইভিং লাইসেন্স লাগবে না, তা কী করে হয়?

আসলে ইলেকট্রিক স্কুটার দুই রকমের হয়ে থাকে- গতিবেগ বেশি এবং গতিবেগ কম! সেই মতো যে সব ইলেকট্রিক স্কুটারের গতিবেগ ঘণ্টায় ২৫ কিলোমিটারের উপরে যায় না এবং মোটরের ক্ষমতা সীমিত থাকে ২৫০ ওয়াটের মধ্যে, সেগুলোর জন্য ড্রাইভিং লাইসেন্স লাগে না। তেমনই এই জাতীয় ইলেকট্রিক স্কুটারগুলোর রেজিস্ট্রেশন করানোরও প্রয়োজন পড়ে না। এক ঝলকে দেখে নেওয়া যাক কোন সংস্থার কোন মডেলগুলো এই আওতায় পড়ছে!

১. Hero Electric Optima E5

Hero Group-এর এই মডেলটি ২৫০ ওয়াট হাব-মাউন্টেড ডিসি ইলেকট্রিক মোটর এবং ৪৮V/২৮Ah লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারি সমন্বিত। ফুল সিঙ্গল চার্জে ৬৫ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিতে পারে এটি। ওজন বেশ কম, মাত্র ৬৮ কেজি। তবে লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারির পাশাপাশি সাবেকি ডিজাইনে লিড-অ্যাসিড ব্যাটারি প্যাকেও পাওয়া যায় এই দুই চাকার গাড়ি।

২. Okinawa Lite

অল-এলইডি হেডল্যাম্প, অল-ডিজিটাল ইনস্ট্রুমেন্ট ক্লাস্টার, এলইডি টেইলল্যাম্প এবং এলইডি ব্যাকলাইটওয়ালা এই দুই চাকার গাড়িতে আছে BLDC ইলেকট্রিক মোটর, ১.২৫ kWh লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারি। পুরো চার্জ হতে সময় লাগে ৪-৫ ঘণ্টা, সিঙ্গল চার্জে ৬০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিতে পারে এই স্কুটার। এতে আছে E-ABS রিজেনেরেটিভ ব্রেকিং, ফ্রন্ট ডিস্ক ব্রেক এবং রিয়ার ড্রাম ব্রেক।

৩. Okinawa R30

২৫০ ওয়াট ইলেকট্রিক মোটর এবং ১.২৫ kWh লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারির সঙ্গে সাবেকি ডিজাইনে পাওয়া যায় এই ইলেকট্রিক স্কুটার। E-ABS রিজেনেরেটিভ ব্রেকিং, ১০ ইঞ্চি টিউবলেস টায়ার এবং ডিজিটাল ইনস্ট্রুমেন্ট কনসোল সমেত এই গাড়ি প্রতি ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ৩০ কিলোমিটার গতিবেগে ছুটতে পারে, সিঙ্গল চার্জে পথ পাড়ি দেয় ৬০ কিলোমিটার।

৪. Ampere Reo Elite

Honda Dio মডেলের মতো অ্যাপ্রন মাউন্টেড হেডলাইট রয়েছে এই মডেলে। এর প্রিমিয়াম লুক তৈরি করেছে এলইডি হেডল্যাম্প আর টেইললাইট, ডিজিটাল ইনস্ট্রুমেন্ট কনসোল, ফ্রন্ট অ্যাপ্রন পকেট এবং ইউএসবি চার্জিং পোর্ট। ২৫০ ওয়াটের BLDC হাব মোটরওয়ালা এই গাড়ি লিথিয়াম আয়ন এবং লিড অ্যাসিড এই দুই ভ্যারিয়েশনেই পাওয়া যায়। সিঙ্গল চার্জে ৬০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিতে পারে এই ইলেকট্রিক স্কুটার।

৫. Hero Electric Flash E2

দেখতে সাবেকি পেট্রোল মডেল স্কুটারের মতো। কিন্তু লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারিওয়ালা এই স্কুটার দেশের ইলেকট্রিক দুই চাকার গাড়ির মধ্যে অন্যতম সেরা। ৪৮-volt ২৮Ah লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারি, ২৫০ ওয়াট ইলেকট্রিক মোটর গাড়িটিকে অনন্য করেছে, সঙ্গে আছে ইলেকট্রিক পাওয়াট্রেইনও। ৬৯ কেজির এই মডেলটি সিঙ্গল চার্জে ৬৫ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিতে পারে। ১৬৪ মিলিমিটার গ্রাউন্ড ক্লিয়ারেন্স, ১০ ইঞ্চি টিউবলেস টায়ারওয়ালা এই স্কুটার চার্জ হতে সময় নেয় ৪-৫ ঘণ্টা।

৬. Lohia Oma Star Li

সাবেকি ডিজাইন, ২৫০ ওয়াট হাব মোটর, লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারির এই স্কুটার ১৬ ইঞ্চি অ্যালয় হুইল নিয়ে সিঙ্গল চার্জে ৬০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দেওয়ার ক্ষমতা ধরে।

Published by:Rukmini Mazumder
First published: