Home /News /business /
Cryptocurrency: ক্রিপ্টোতে রাশ! বিজ্ঞাপনে একগুচ্ছ নিয়ম চাপাল কেন্দ্র, কার্যকর ১ এপ্রিল থেকে!

Cryptocurrency: ক্রিপ্টোতে রাশ! বিজ্ঞাপনে একগুচ্ছ নিয়ম চাপাল কেন্দ্র, কার্যকর ১ এপ্রিল থেকে!

প্রতীকী ছবি ৷

প্রতীকী ছবি ৷

Cryptocurrency: বিজ্ঞাপনে বাধ্যতামূলক ভাবে বিধিবদ্ধ সতর্কীকরণ করতে হবে

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: ক্রিপ্টোকারেন্সি (Cryptocurrency) থেকে আয়ের উপর আগেই কর চাপিয়েছিল সরকার। এবার বিটকয়েন, ইথেরিয়াম, রিপল-সহ সব ধরনের বেসরকারি ক্রিপ্টোর বিজ্ঞাপনে (Advertising) সতর্কীকরণ বার্তা বাধ্যতামূলক (Cryptocurrency Ad Guidelines) করল কেন্দ্র। ১ এপ্রিল থেকে এই নিয়ম কার্যকর হবে। এমনই ঘোষণা করেছে দ্য অ্যাডভারটাইজিং স্ট্যান্ডার্ডস কাউন্সিল অফ ইন্ডিয়া (ASCI)।

আরও পড়ুন: Business Idea: চাকরির পাশাপাশি মাত্র ২৫,০০০ টাকা দিয়ে শুরু করুন এই ব্যবসা, প্রতি মাসে আয় করবেন লক্ষ লক্ষ টাকা

কাউন্সিলের তরফে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, ক্রিপ্টো পণ্য এবং টোকেনগুলির জন্য বিজ্ঞাপনদাতাদের একটি সতর্কতামূলক স্বীকারোক্তি উল্লেখ করা আবশ্যিক। জনসাধারণকে স্পষ্ট ভাবে জানাতে হবে, এই পণ্যগুলি অনিয়ন্ত্রিত এবং অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ হতে পারে। শুধু তাই নয়, ক্রিপ্টো লেনদেনে বিনিয়োগকারী কোনও লোকসানের মুখোমুখি হলে নিয়ন্ত্রক সংস্থা দায়ী থাকবে না বলেও উল্লেখ করতে হবে বিজ্ঞাপনে।

সমস্ত ভার্চুয়াল ডিজিটাল সম্পদ(VDAs), যা সাধারণত ক্রিপ্টো বা নন-ফাঞ্জিবল টোকেন (NFTs) নামে পরিচিত,তার বিজ্ঞাপনে বাধ্যতামূলক ভাবে বিধিবদ্ধ সতর্কীকরণ করতে হবে। এমনভাবে সেগুলি করতে হবে যাতে সহজেই তা বিনিয়োগকারীর চোখে পড়ে। ১৫ এপ্রিলের পর পুরনো বিজ্ঞাপনগুলি আর ব্যবহার করা যাবে না বলেও নির্দেশিকায় জানানো হয়েছে। সমস্ত স্টেকহোল্ডার, সরকার এবং আর্থিক নিয়ন্ত্রকদের সঙ্গে আলোচনার পর এএসসিআই এই নির্দেশিকা জারি করেছে।

আরও পড়ুন: Petrol Diesel Prices Today: একাধিক শহরে বদলাল পেট্রোল ও ডিজেলের দাম, দেখে নিন আপনার শহরে বাড়ল না কমল

এই প্রসঙ্গে এএসসিআই-এর সভাপতি সুভাষ কামাথ বলেন, ‘ক্রিপ্টোতে লগ্নি বিনিয়োগের নতুন পদ্ধতি। তাই ভার্চুয়াল ডিজিটাল সম্পদ এবং তার পরিষেবার বিজ্ঞাপনের স্পষ্ট নির্দেশিকা প্রয়োজন। যাতে এর ঝুঁকি সম্পর্কে বিনিয়োগকারীরা সতর্ক থাকতে পারেন’।

নির্দেশিকার ৫ টি মূল পয়েন্ট

১। ১ এপ্রিল থেকে ডিজিটাল সম্পদের সমস্ত বিজ্ঞাপনে বিধিবদ্ধ সতর্কীকরণ বাধ্যতামূলক। বিনিয়োগকারীকে স্পষ্ট জানাতে হবে, ক্রিপ্টো এবং নন-ফাঞ্জিবল টোকেন অনিয়ন্ত্রিত এবং ঝুঁকিপূর্ণ। এর লেনদেনে ক্ষতি হলে কোনও অভিযোগ জানানো যাবে না।

২। বিজ্ঞাপনের ফন্ট হবে সহজবোধ্য। মূল বিজ্ঞাপনের কমপক্ষে ২০ শতাংশ জায়গা জুড়ে থাকবে সতর্কীকরণ।

৩। অডিও মাধ্যমে হলে বিজ্ঞাপনের শেষে সতর্কবার্তা পড়তে হবে। ভয়েসওভার স্পিড থাকবে সাধারণ। যাতে সাধারণ মানুষ ভালোভাবে বিষয়টা শুনতে পায়। সোশ্যাল মিডিয়ার পোস্টেও এই সতর্কবার্তা থাকবে।

৪। 'মুদ্রা', 'সিকিউরিটিজ', 'কাস্টোডিয়ান' এবং 'ডিপোজিটরি'-র মতো শব্দ বিজ্ঞাপনে ব্যবহার করা যাবে না। কারণ, গ্রাহকরা সাধারণত সরকার নিয়ন্ত্রিত পণ্যগুলির বিজ্ঞাপনে এই শব্দগুলির ব্যবহার দেখতে পান।

৫। ক্রিপ্টো ভবিষ্যতের লাভের প্রতিশ্রুতি বা গ্যারান্টি দেয় না। তাই এই ধরনের ট্রেডিংকে আর্থিক সমস্যার সমাধান হিসাবে দেখানো যাবে না। তাছাড়া এর বিজ্ঞাপনে কিশোর-কিশোরীদের দেখানোর উপরেও নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।

First published:

Tags: Cryptocurrency

পরবর্তী খবর