corona virus btn
corona virus btn
Loading

৩০ হাজার টাকা পর্যন্ত বেতনভোগীদের জন্য বড় ঘোষণা করতে চলেছে সরকার

৩০ হাজার টাকা পর্যন্ত বেতনভোগীদের জন্য বড় ঘোষণা করতে চলেছে সরকার

শ্রম মন্ত্রালয়ের নিয়মের বদলের প্রস্তুতি চলছে ৷ বেশি বেতনের পায় যার তারা এই স্কিমের সুবিধা নিতে পারবেন ৷

  • Share this:

#নয়াদিল্লি:

কেন্দ্র সরকার শীঘ্রই চাকুরিজীবীদের জন্য বড় ঘোষণা করতে চলেছে ৷ CNBC-আওয়াজের খবর অনুযায়ী, শীঘ্রই ২১,০০০ টাকার বেশি যারা বেতন পান তাঁরাও ভবিষ্যতে ESIC -এর সুবিধা পাবেন ৷ করোনা সঙ্কটে আরও বেশি সংখ্যাক কর্মীদের সাহায্য করার উদ্দেশ্যে ESIC এর নিয়ম বদল করার প্রস্তুতি চলছে ৷ এর জেরে মেডিক্যাল ও আর্থিক সাহায্যের জন্য নিয়ম বদল করা হয়েছে ৷

প্রস্তাব অনুযায়ী, ২১,০০০ টাকার বেশি বেতন পেলে ওই বেতনভূক কর্মী এই সুবিধা পাবেন ৷ সূত্রের খবর অনুযায়ী, ৩০,০০০ টাকা পর্যন্ত যারা বেতন পান তারা ESIC এর সুবিধা পাবেন ৷

শ্রম মন্ত্রালয়ের তরফে ইতিমধ্যে নিয়মের বদলের প্রস্তুতি চলছে ৷ বেশি বেতনের পান যার তাঁরা এই স্কিমের সুবিধা নিতে পারবেন ৷ রোজগার চলে যাওয়ার পর আর্থিক সাহায্য নির্ধারিত লিমিট অনুযায়ী হিসেব করা হবে ৷ ESIC বোর্ডকে শীঘ্রই এই প্রস্তাব পাঠানো হবে ৷

প্রসঙ্গত, গত সপ্তাহেই ESIC-র তরফে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে ৷ জানানো হয়েছে, যারা করোনায় চাকরি হারিয়েছেন, তাঁরা তিনমাস বেতনের ৫০ শতাংশ বেকারভাতা হিসেবে পাবেন। কেন্দ্রীয় শ্রমমন্ত্রী সন্তোষ গাঙ্গওয়ারের নেতৃত্বে ESIC এর অনুমোদন দিয়েছে ৷ এই যোজনায় কেবল তাঁরা লাভ পাবেন যাঁরা কোভিড ১৯ মহামারির মধ্যে চাকরি হারিয়েছেন ৷ ২৪ মার্চ ২০২০ থেকে ৩১ ডিসেম্বর ২০২০-র মধ্যে নতুন নিয়ম প্রযোজ্য হবে ৷ এই সময়ের মধ্যে তিন মাসের জন্য এই ভাতা মিলবে ৷

চাকরি যাওয়ার ৩০ দিনের মধ্যে এই সুবিধার জন্য আবেদন করা যাবে ৷ আগে ৯০ দিন পরে করার সুযোগ থাকত ৷ এখন কর্মচারীরা নিজে থেকেই এর জন্য আবেদন করতে পারবেন ৷ আগে নিয়োগকর্তার মাধ্যমে আবেদন করতে হত ৷ এই সুবিধা পাওয়ার জন্য অন্তত দু’বছর ESIC-র আওতায় থাকতে হবে শ্রমিকদের। অর্থাৎ ২০১৮-র ১ এপ্রিল থেকে ২০২০-র ৩১ মার্চ পর্যন্ত। ১ অক্টোবর ২০১৯ থেকে ২০২০-র ৩১ মার্চের মধ্যে এই শ্রমিকদের অন্তত ৭৮ দিনের কাজের রেকর্ড থাকতে হবে ৷

চাকরি যাওয়ার ৩০ দিনের মধ্যে এই সুবিধার জন্য আবেদন করা যাবে ৷ আগে ৯০ দিন পরে করার সুযোগ থাকত ৷ এখন কর্মচারীরা নিজে থেকেই এর জন্য আবেদন করতে পারবেন ৷ আগে নিয়োগকর্তার মাধ্যমে আবেদন করতে হত ৷ এই সুবিধা পাওয়ার জন্য অন্তত দু’বছর ESIC-র আওতায় থাকতে হবে শ্রমিকদের। অর্থাৎ ২০১৮-র ১ এপ্রিল থেকে ২০২০-র ৩১ মার্চ পর্যন্ত। ১ অক্টোবর ২০১৯ থেকে ২০২০-র ৩১ মার্চের মধ্যে এই শ্রমিকদের অন্তত ৭৮ দিনের কাজের রেকর্ড থাকতে হবে।

Published by: Dolon Chattopadhyay
First published: August 25, 2020, 2:28 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर