Home /News /business /
খেলার ছলেই শিখে নেওয়া যাবে আইটি রিটার্ন ফাইল করার উপায়! জানুন কীভাবে

খেলার ছলেই শিখে নেওয়া যাবে আইটি রিটার্ন ফাইল করার উপায়! জানুন কীভাবে

প্রতীকী ছবি৷

প্রতীকী ছবি৷

বাচ্চাদের মধ্যে এই কর সাক্ষরতা বৃদ্ধি করার জন্য সম্প্রতি আয়কর বিভাগ বোর্ড গেম, ধাঁধা এবং কমিক বইয়ের একটি সিরিজ চালু করেছে।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: দেশে থাকার জন্য কর (Tax) দেওয়াটা আবশ্যিক। কিন্তু কর-এর জটিল অঙ্ক বোঝা সবার পক্ষে সম্ভব হয় না। তাই কর বা ট্যাক্সের জটিল অঙ্ক সহজ পদ্ধতিতে বোঝানোর জন্য এক অভিনব উদ্যোগ নিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। মূলত শিশুদের মধ্যে কর সংক্রান্ত সাক্ষরতা বৃদ্ধি করতেই এই বিশেষ উদ্যোগ। শুধু শিশুদেরই নয়, কর সংক্রান্ত বিভিন্ন সমস্যা সহজে সমাধান করতে সুবিধা হবে বড়দেরও।

বাচ্চাদের মধ্যে এই কর সাক্ষরতা বৃদ্ধি করার জন্য সম্প্রতি আয়কর বিভাগ বোর্ড গেম, ধাঁধা এবং কমিক বইয়ের একটি সিরিজ চালু করেছে। এর মাধ্যমে তারা মজাচ্ছলে সহজেই শিখে নিতে পারবে কর জমা করার উপায়। আর সেদিক থেকে বলতে গেলে এটা তো জীবনের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটা কাজ।

আরও পড়ুন: এক বছরে ১২১ শতাংশ রিটার্ন দিচ্ছে টাটার এই মাল্টিব্যাগার স্টক! রইল বিশেষজ্ঞের পরামর্শ

আসলে গেম, কমিক বই এবং ধাঁধাগুলির মধ্যে এমন কিছু চরিত্র ও অন্যান্য বৈশিষ্ট্য অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে, যা ছোটদের সঙ্গে সম্পর্কিত। এর মাধ্যমে তারা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলি মজা করেই শিখে ফেলতে পারবে। গোয়ায় এই উদ্যোগের সূচনা করলেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন। ১৩ জুন অর্থাৎ সোমবার আয়কর দফতর পর পর ট্যুইট এবং ভিডিও পোস্ট করে এই উদ্যোগ নেওয়ার কথা ঘোষণা করেছে। গত ১২ জুন, রবিবার একটি প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে পিআইবি জানায়, "সচেতনতামূলক সেমিনার, পাঠ্য ভিত্তিক সাহিত্য এবং ওয়ার্কশপ – এই সবের উর্ধ্বে গিয়ে ‘খেলার মাধ্যমে শেখা’-র পদ্ধতিকেই কর সচেতনতার কাজে লাগানো হবে।

আর কর সংক্রান্ত সচেতনতা এবং সাক্ষরতা বাড়ানোর এই অভিনব পদ্ধতি গ্রহণ করেছে সেন্ট্রাল বোর্ড অফ ডিরেক্ট ট্যাক্সেস (CBDT)। আসলে আপাতদৃষ্টিতে কর সংক্রান্ত বিষয় অত্যন্ত জটিল বলে মনে হয় হাইস্কুলের পড়ুয়াদের কাছে। আর তা সহজতর করে তোলার জন্য বোর্ড গেমস, ধাঁধা এবং কমিকস নিয়ে এসেছে সিবিডিটি।"

আরও পড়ুন: সপ্তাহের দ্বিতীয় দিনেও মুখ ভার শেয়ার বাজারের ,সতর্ক হয়ে টাকা লাগান না হলে পা ফস্কাবে

খেলার ছলেই কর ফাইলের পন্থা শেখার উপায়, আর কী কী সুবিধা রয়েছে? এই উদ্যোগটি শুরু করার জন্য বেশ কয়েকটি বোর্ড গেম, ধাঁধা এবং কমিকসের বই চালু করেছে আয়কর দফতর। প্রাথমিক ভাবে গোটা দেশে ছড়িয়ে থাকা আয়কর অফিসগুলির নেটওয়ার্কের মাধ্যমেই এই সমস্ত জিনিস বিতরণ করা হবে স্কুলগুলিতে। শুধু তা-ই নয়, এই সব বোর্ড গেম, ধাঁধা, কমিকসের বইগুলি বইয়ের দোকানের মাধ্যমে বিতরণ করার বিষয়েও ভাবনা-চিন্তা চলছে।

সাপ-সিঁড়ি খেলার মাধ্যমেই কর সচেতনতার পাঠ: ট্যাক্স বা কর সংক্রান্ত বিষয় এবং আর্থিক লেনদেনের ক্ষেত্রে ভালো ও খারাপ অভ্যাসগুলিকে চিহ্নিত করতে সাহায্য করে এই বোর্ড গেমটি। একটি প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে অর্থ মন্ত্রকের পক্ষ থেকে জানানো হয় যে, এই খেলাটি খুবই সহজ এবং শিক্ষামূলক। এর মাধ্যমে ভালো অভ্যাসগুলোকে চিহ্নিত করে সিঁড়ি বেয়ে উপরে উঠিয়ে পুরস্কৃত করা হয়। আর খারাপ অভ্যাসগুলোকে সাপের মাধ্যমে শাস্তি দেওয়া হয়।

ভারতের নির্মাণ: বুনিয়াদি কাঠামো এবং সামাজিক প্রকল্পের ভিত্তিতে ৫০টি মেমোরি কার্ড ব্যবহার করে এই খেলাটি কর প্রদানের গুরুত্ব বুঝতে সাহায্য করে। এই খেলাটি যে বার্তা দেয়, সেটি হল – কর দান হল সহযোগিতামূলক প্রকৃতির, প্রতিযোগিতামূলক নয়।

ডিজিটাল কমিক বই: শিশু এবং তরুণ প্রজন্মের মধ্যে আয় এবং কর দানের ধারণা সম্পর্কে সচেতনতা বাড়াতে লট পট কমিকস (Lot Pot Comics)-এর সঙ্গে হাত মিলিয়েছে আয়কর বিভাগ। সচেতনতা সংক্রান্ত বার্তা দেওয়ার জন্য জনপ্রিয় কার্টুন চরিত্র মোটু-পাতলুর হাড়ে সুড়সুড়ি দেওয়া সংলাপগুলিকেই বেছে নেওয়া হয়েছে।

ইন্ডিয়া গেট – 3D পাজল: ইন্ডিয়া গেট ৩ডি পাজল গেমটিতে মোট ৩০টি টুকরো রয়েছে। প্রতিটি টুকরোর মধ্যে কর ও করদান প্রক্রিয়া সংক্রান্ত বিভিন্ন শর্তাবলী এবং তথ্য রয়েছে। এই ৩০টি টুকরো ঠিকঠাক ভাবে সাজিয়ে-গুছিয়ে জুড়ে নিলে ইন্ডিয়া গেটের একটি ত্রিমাত্রিক কাঠামো তৈরি হবে। যার মাধ্যমে এই বার্তাটি দেওয়া হবে যে, করের মাধ্যমেই ভারতবর্ষ তৈরি হয়েছে।

পিআইবি-র প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, এই উদ্যোগ শুরু করার মাধ্যমে অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন গত শনিবার গোয়ার পানাজিতে আজাদি কা অমৃত মহোৎসব-এর সমাপ্তি অনুষ্ঠানে অর্থনৈতিক এবং কর সংক্রান্ত সচেতনতা বৃদ্ধি করার জন্য যোগাযোগ এবং প্রচার পণ্যগুলির একটি সিরিজ চালু করেছেন। আগামী ২৫ বছরকে তিনি অমৃতকাল বলে আখ্যা দিয়ে তিনি বলেন যে, নতুন ভারত নির্মাণে প্রধান ভূমিকা পালন করবে দেশের যুব সম্প্রদায়। অনুষ্ঠানে উপস্থিত বাছাই করা স্কুলগুলির ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে এই গেমের প্রথম সেট বিতরণ করেছেন অর্থমন্ত্রী।

সরকারি তথ্য অনুযায়ী, ২০১৯-২০২০ আর্থিক বর্ষে ১৩৬ কোটি ভারতীয়ের মধ্যে মাত্র ৮ কোটি মানুষ আয়কর প্রদান করে। এই ৮ কোটির মধ্যে সাধারণ জনগণ থেকে শুরু করে কর্পোরেট-সহ সমস্ত কোম্পানিগুলি রয়েছে। দেশে আয়কর নিয়ে জনগণের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে এই অভিযান চালু করা হয়।

Published by:Debamoy Ghosh
First published:

Tags: Income Tax, Tax

পরবর্তী খবর