corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনা সঙ্কটে সাহায্যের হাত এগিয়ে দিল বিল্ডার, ফ্রি-তে দিচ্ছেন থাকার জন্য ফ্ল্যাট!

করোনা সঙ্কটে সাহায্যের হাত এগিয়ে দিল বিল্ডার, ফ্রি-তে দিচ্ছেন থাকার জন্য ফ্ল্যাট!

কোনও ভাড়া ছাড়ায় প্রবাসী চাকুরিজীবী বা পরিযায়ী শ্রমিকদের থাকার জন্য ফ্ল্যাটগুলি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন৷

  • Share this:

#সুরত: দেশের আলাদা আলাদা রাজ্য থেকে চাকরি বা রোজগারের জন্য গুজরাতের সুরতে বহু মানুষ এসে রয়েছেন ৷ কিন্তু করোনা সঙ্কটের জেরে তাদের কাছে কাজ জোগাড় করাই মুশকিল হয়ে উঠেছে ৷ এই সমস্ত মানুষদের সাহায্য করার জন্য সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলেন এক স্থানীয় বিল্ডার ৷ বিল্ডার তাদর নতুন স্কিমের ফ্ল্যাট এই মানুষগুলির জন্য খুলে দিয়েছেন ৷ কোনও ভাড়া ছাড়ায় প্রবাসী চাকুরিজীবী বা পরিযায়ী শ্রমিকদের থাকার জন্য ফ্ল্যাটগুলি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন৷

করোনা সংক্রমণের জেরে দেশজুড়ে যে আর্থি মন্দা দেখা দিয়েছে তার জেরে একাধিক মানুষ বাধ্য হয়েছে গ্রামে ফিরে যেতে ৷ এরকম পরিস্থিতিতে সুরতের এক বিল্ডার অন্য রাজ্য থেকে আসা মানুষদের সাহায্যের জন্য পুরো একটি বিল্ডিং দিয়েছে দিয়েছেন ৷ এখানে থাকার জন্য তাদের কোনও ভাড়া দিতে হবে না ৷ বিল্ডিংয়ে যারা থাকবেন তাদের কেবল মেনটেনেন্স চার্জ দিতে হবে ৷ সম্প্রতি বিল্ডারের একটি প্রোজেক্ট রুদ্রাক্ষ লেক প্যালেস নামে তৈরি হয়েছে ৷ কিন্তু আপাতত সেটি কেনার এখনও কেউ আসেনি ৷ তাই করোনা সঙ্কটে সাহায্যের জন্য এই ফ্ল্যাটগুলি দেওয়া হয়েছে থাকার জন্য ৷

প্রকাশ ভালানি জানিয়েছেন, ৯২টি ফ্ল্যাটের মধ্যে ৪২টি ফ্ল্যাটে ইতিমধ্যেই লোক থাকতে শুরু করেছে ৷ রোজগারের জন্য একাধিক পরিবার সুরতে এসেছে ৷ লকডাউন এবং আনলকের পর সংস্থাগুলি বেতন কেটে নিয়েছে বা ছাঁটাই করেছে কর্মীদের ৷ এর জেরে একাধিক পরিবার সমস্যায় পড়েছে ৷ এর মধ্যে বাড়ি ভাড়া দেওয়া তাদের পক্ষে বেশ মুশকিল হতে পারে ৷ ভাবানি জানিয়েছেন, সোশ্যাল মিডিয়ায় ফ্রি-তে ফ্ল্যাট দেওয়ার বিষয়ে জানাতেই একাধিক মানুষ তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন ৷

যত দিন পর্যন্ত পরিস্থিতি একটু স্বাভাবিক না হচ্ছে ততদিন এই ফ্ল্যাটে থাকার জন্য কোনও ভাড়া নেওয়া হবে না ৷ বর্তমানে প্রত্যেক পরিবারের থেকে মাসে ১৫০০ টাকা মেনটেনেন্সের জন্য নেওয়া হচ্ছে ৷ সমস্ত ফ্ল্যাটে লোক এসে গেলে এই চার্জ ১০০০ টাকা করে দেওয়া হবে ৷

Published by: Dolon Chattopadhyay
First published: September 15, 2020, 9:51 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर