Home /News /business /

Budget 2022: বাজেট ২০২২-এ অ্যাসেট মানিটাইজেশনের জন্য নতুন লক্ষ্য নির্ধারিত হতে পারে, জানুন বিশদে!

Budget 2022: বাজেট ২০২২-এ অ্যাসেট মানিটাইজেশনের জন্য নতুন লক্ষ্য নির্ধারিত হতে পারে, জানুন বিশদে!

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

Union Budget 2022-23: অ্যাসেট মানিটাইজেশনের জন্য ন্যাশনাল মানিটাইজেশন পাইপলাইন একটি প্ল্যাটফর্মের কাজ করবে।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: আসন্ন ইউনিয়ন বাজেট ২০২২-২৩ (Union Budget 2022-23) এ অ্যাসেট মানিটাইজেশন (Asset Monetization) একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে। আগামী ইউনিয়ন বাজেটে এর জন্য নতুন লক্ষ্য নির্ধারণ করা হতে পারে। আগামী বাজেটে এর জন্য এমন ধরনের লক্ষ্য তৈরি করা হতে পারে, যেমন বিনিয়োগ, ট্যাক্স এবং ট্যাক্স ছাড়া আয়ের লক্ষ্য নির্ধারণ করার সম্ভাবনা রয়েছে। এই ধরনের অ্যাসেট মানিটাইজেশনের জন্য ন্যাশনাল মানিটাইজেশন পাইপলাইন একটি প্ল্যাটফর্মের কাজ করবে।

ন্যাশনাল মানিটাইজেসন পাইপলাইনের অনুমান যে, আগামী ৪ বছরে প্রায় ৬ লাখ কোটি টাকার অ্যাসেট মানিটাইজেশন সম্ভব। ন্যাশনাল মানিটাইজেশন পাইপলাইন অ্যাসেট মানিটাইজেশনের জন্য একটি ৪ বছরের প্ল্যান বলে দেয়। একজন বরিষ্ঠ সরকারি আধিকারিক মানিকন্ট্রোলকে বলেছেন যে, আগামী বাজেট থেকেই মানিটাইজেশনের জন্য একটি বার্ষিক লক্ষ্য রাখা হবে। যখন ন্যাশনাল মানিটাইজেশন পাইপলাইনকে সামনে আনা হয় তখন বর্তমান আর্থিক বর্ষের জন্য প্রায় ৮০,০০০ কোটি টাকার অ্যাসেট মানিটাইজেশনের লক্ষ্য রাখা হয়। এই লক্ষ্যমাত্রা বাজেটে নির্ধারণ করা হয়নি। কিন্তু আগামী বাজেট থেকেই এই ব্যবস্থার পরিবর্তন করা হবে। আগামী বাজেটেই অ্যাসেট মানিটাইজেশনের জন্য নতুন লক্ষ্য নির্ধারণ করা হবে।

আরও পড়ুন: একদিনেই ৫০ হাজার করোনা পরীক্ষা, নজির গড়ল ডায়মন্ড হারবার! নতুন লক্ষ্য ঘোষণা অভিষেকের

সরকারের সেই বরিষ্ঠ আধিকারিক মানিকন্ট্রোলকে বলেছেন যে, কেন্দ্রীয় সরকার এখনও আর্থিক বর্ষ ২০২৩ সালের জন্য অ্যাসেট মানিটাইজেশনের লক্ষ্য নির্ধারণ না করলেও, মনে করা হচ্ছে তার পরিমাণ হতে পারে প্রায় ১ লাখ কোটি টাকা। কেন্দ্রীয় সরকার সেপ্টেম্বর মাসে ন্যাশনাল মানিটাইজেশন পাইপলাইনের ঘোষণা করেছিল। এই ধরণের ব্যবস্থা পাবলিক পার্টনারশিপের মতো হবে। এই মানিটাইজেশন থেকে প্রাপ্ত অর্থ সরকার নিজের কাজে লাগাবে না। এই মানিটাইজেশন থেকে প্রাপ্ত অর্থ সরকারি কোম্পানি এবং সরকারি এজেন্সির কাছে যাবে। সরকারি কোম্পানি এবং এজেন্সি শেয়ার এবং ডিভিডেন্টের মাধ্যমে কিছু পরিমাণ টাকা সরকারকে দেবে।

আরও পড়ুন:  'এ বছর বেশি হইহুল্লোড় করবেন না', গঙ্গাসাগরের পুণ্যার্থীদের আবেদন মমতার

ন্যাশনাল হাইওয়ে অথরিটি অফ ইন্ডিয়া (NHAI), এয়ারপোর্ট অথরিটি অফ ইন্ডিয়া (AAI), ভারত সঞ্চার নিগম লিমিটেড (BSNL) ইত্যাদির মতো কোম্পানির ক্ষেত্রে পুরো টাকা শেয়ারের মাধ্যমে কেন্দ্রীয় সরকার পাবে। কেন্দ্রীয় সরকারের লক্ষ্য হল অ্যাসেট মানিটাইজেশনের মাধ্যমে একটি স্পষ্ট নীতি নির্ধারণ করা। এর জন্যই নিয়ে আসা হয়েছে ন্যাশনাল মানিটাইজেশন পাইপলাইন (National Monetisation Pipeline)। এই ন্যাশনাল মানিটাইজেশন পাইপলাইনের মাধ্যমে অ্যাসেট মানিটাইজেশনের লক্ষ্য নির্ধারণ করা হবে। অ্যাসেট মানিটাইজেশনের জন্য একটি প্ল্যাটফর্ম হিসাবে কাজ করবে ন্যাশনাল মানিটাইজেশন পাইপলাইন। আগামী ইউনিয়ন বাজেটেই অ্যাসেট মানিটাইজেশনের নতুন লক্ষ্য নির্ধারণ করা হবে।

Published by:Uddalak B
First published:

Tags: Budget 2022, Union Budget 2022

পরবর্তী খবর