২জি এখন ইতিহাস...ভারতে মোবাইল ফোনের ২৫ বছরে প্রযুক্তিগত উন্নতিকেই প্রাধান্য মুকেশ আম্বানির

দেশকে ২জি মুক্ত করতেই হবে বলে জানান রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজের চেয়ারমান মুকেশ আম্বানি ৷

দেশকে ২জি মুক্ত করতেই হবে বলে জানান রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজের চেয়ারমান মুকেশ আম্বানি ৷

  • Share this:

    #মুম্বই:  মোবাইল ফোন ছাড়া জীবন এখন কল্পনাও করা যায় না ৷ কিন্তু ২৫ বছর আগে ভারতে সাধারণ মানুষের জীবন অন্যরকমই ছিল ৷ তখন ফোন বলতে ছিল শুধু ল্যান্ডলাইনই ৷ তাও হয়তো সবার বাড়িতে নয় ৷ বাড়িতে টেলিফোন রাখাটা একসময় ছিল বিলাসিতা ৷ কিন্তু এখন হাতে হাতে সবার মোবাইল-স্মার্টফোন-ট্যাব  রয়েছে ৷ ইন্টারনেট ব্যবহার করছেন অধিকাংশ মানুষই ৷

    ১৯৯৫ সালের ৩১ জুলাই ৷ আজ থেকে ঠিক ২৫ বছর আগে ভারতে মোবাইল বিপ্লবের ভিত্তি স্থাপন করা হয়েছিল ৷ ২৫ বছর আগের এই দিনেই পশ্চিমবঙ্গের তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী জ্যোতি বসু এবং তৎকালীন কেন্দ্রীয় টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী সুখ রাম একে অপরের সঙ্গে প্রথম মোবাইল ফোনে কথা বলেছিলেন ৷ দেশে মোবাইল ফোনের ২৫ বছর পূর্তিতে রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজের চেয়ারম্যান মুকেশ আম্বানি শুক্রবার একটি ভিডিও বার্তাতে জানান, ভারতবাসীকে ২জি থেকে আপগ্রেড করতে হবে ৷ পুরোপুরি ৪জি-তে নিয়ে যেতে হবে  ৷ ভারতে টেলি যোগাযোগ ব্যবস্থার আরও উন্নতির জন্য বেশ কয়েকটি বিষয়ে এদিন উল্লেখও করেন আম্বানি ৷ যাতে করে দেশে ২জি নেটওয়ার্ক মুছে ফেলে টেলি যোগাযোগ ব্যবস্থাকে আরও অনেক উন্নতির পথে নিয়ে যাওয়া যায় ৷

    মুকেশ আম্বানির মতে, ‘‘ দেশে এখনও ৩০০ মিলিয়ন সাবস্ক্রাইবার রয়েছে ২জি-র ৷ তাঁরা হাইস্পিড ইন্টারনেট ব্যবস্থার সুবিধা ভোগ করতে পারছেন না ৷ তাদের ফিচার ফোনগুলি তা করতে দিচ্ছে না ৷ আর সেটাও এমন সময়, যখন ভারতে ৪জি ব্যবস্থা অত্যন্ত উন্নত এবং ৫জি চালুর দোড়গোড়ায় দাঁড়িয়ে দেশ ৷ ’’ দেশকে তাই ২জি মুক্ত করতেই হবে বলে জানান রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজের চেয়ারমান মুকেশ আম্বানি ৷

    Published by:Siddhartha Sarkar
    First published: