বাংলায় থ্রিজি এবং ফোরজি পরিষেবা বন্ধের নির্দেশ

News18 Bangla
Updated:Dec 29, 2018 08:00 PM IST
বাংলায় থ্রিজি এবং ফোরজি পরিষেবা বন্ধের নির্দেশ
প্রতীকী ছবি ৷
News18 Bangla
Updated:Dec 29, 2018 08:00 PM IST

#ঢাকা: সাধারণ নির্বাচনের আগে ‘গুজব এবং অপপ্রচার' রুখতে সারাদেশে ইন্টারনেট পরিষেবা নিয়ন্ত্রণ করে দেওয়া হয়েছে। গতকাল রবিবার ভোট হবে বাংলাদেশে। তার আগে শুক্রবারের পর আর প্রচার করতে পারবে না রাজনৈতিক দলগুলি। এরই মধ্যে ইন্টারনেট পরিষেবা নিয়ন্ত্রিত করে দেওয়া হল। বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশনস রেগুলেটরি কমিশন (বিটিআরসি) দেশজুড়ে থ্রি-জি ও ফোর-জি’র গতি কমিয়ে দিয়েছে ।

প্রশাসনের এক কর্তা জানান, বৃহস্পতিবার রাতে বিটিআরসি-কে থ্রি-জি ও ফোর-জি পরিষেবা নিয়ন্ত্রণ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। নির্বাচনের মুখে ইন্টারনেটের অপব্যবহার করে কেউ যাতে বিভ্রান্তি না ছড়াতে পাতে তা সুনিশ্চিত করতেই এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

জানা গিয়েছে প্রায় ১০ ঘণ্টা বাদে শুক্রবার সকালের দিকে ফের খানিকটা বাড়িয়ে দেওয়া হয় ইন্টারনেটের গতি। কিন্তু পরের দিকে তা ফের কমানো হয়েছে বলে খবর ৷ এবারের বাংলাদেশ নির্বাচন কয়েকটি কারণে আলাদা তাৎপর্য বহন করছে। এবার জিতলে টানা চারবার জেতার রেকর্ড হবে শেখ হাসিনার।

তাঁর দিকে কড়া চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিতে তৈরি বিএনপি। নির্বাচনের আগে তাদের নেতা-কর্মীদের অকারণে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে দাবি বিএনপির। তাছাড়া দুর্নীতির অভিযোগ প্রমাণ হওয়ায় ১৭ বছর জেল হয়েছে খালেদা জিয়ার। আর তাই এবার ভোটেও লড়া হচ্ছে না খালেদার। অন্যদিকে, প্রচারের জন্য সোশ্যাল মিডিয়ায়র উপরেই বেশি নির্ভর করতে হয়েছে বিএনপিকে। এর আগে এ মাসের শুরুতে বিএনপির ওয়েবনসাটও ব্লক করে দেওয়া হয়। একই সঙ্গে ৫৩টি পোর্টাল এবং বিএনপিপন্থী কিছু সাইটও ব্লক করে দেওয়া হয়। বাংলাদেশে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা প্রায় ৯২ মিলিয়ন। সেদিক দেখলে জনমত গঠনের ক্ষেত্রে ইন্টারনেট বড় ভূমিকা পালন করে।

First published: 08:00:48 PM Dec 29, 2018
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर