Home /News /birbhum /
Birbhum: পুনর্বাসনের দাবিতে রেলের দ্বারস্থ সিউড়ির বস্তিবাসীরা

Birbhum: পুনর্বাসনের দাবিতে রেলের দ্বারস্থ সিউড়ির বস্তিবাসীরা

ঘটনার সূত্রপাত গত ১৩ মে। সেদিন একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করে রেল দফতর। তাতে উল্লেখ করা হয়, সিউড়ি রেল স্টেশনের রেলের জায়গায় বসবাসকারী বস্তিবাসীদের রেলের জায়গা ছেড়ে উঠে যেতে হবে।

  • Share this:

    বীরভূম : ঘটনার সূত্রপাত গত ১৩ মে। সেদিন একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করে রেল দফতর। তাতে উল্লেখ করা হয়, সিউড়ি রেল স্টেশনের রেলের জায়গায় বসবাসকারী বস্তিবাসীদের রেলের জায়গা ছেড়ে উঠে যেতে হবে। রেলের জায়গা থেকে অন্যত্র সরে যাওয়ার জন্য ২০ এবং ২৮ মে শেষ সময়সীমা দেওয়া হয়। এরপরেই মাথায় হাত পড়তে শুরু করে এখানকার বস্তিবাসীদের। এরই পরিপ্রেক্ষিতে সোমবার তারা রেলের দ্বারস্থ হলেন পূনর্বাসনের দাবিতে। এদিন সিউড়ি রেল স্টেশন চত্বর এলাকায় বসবাসকারী বস্তিবাসীরা, দুর্বার সমিতির সদস্যরা সমবেতভাবে স্টেশন চত্বরে জমায়েত হন। তারপর তারা সিউড়ি রেল স্টেশন ম্যানেজারকে একটি স্মারকলিপি দেন পূনর্বাসনের দাবিতে।

    আরও পড়ুনঃ Birbhum: পুলিশ কর্মীর দু’টি কিডনি নষ্ট, পাশে দাঁড়ালেন আর এক মহিলা পুলিশকর্মী

    সেই স্মারকলিপি আসানসোল D.R.M এবং রেলমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে লেখা হয়। তাদের এই জমায়েত এবং ডেপুটেশন কর্মসূচিতে এলাকার বাসিন্দা এবং দুর্বার সমিতির পাশে দাঁড়ায় সিউড়ি তৃণমূল নেতৃত্ব। দুর্বার মহিলা সমন্বয় কমিটির সেক্রেটারি পূজা বিবি জানান, করোনাকালে গত দু'বছর ধরে খুব অসহায় ভাবে কেটেছে তাদের। এমন পরিস্থিতিতে রেলের এই বিজ্ঞপ্তি তাদের মাথায় বাজ পড়ার মতো। এখানে আনুমানিক ৭০০ পরিবার বসবাস করেন। বর্তমানে রেলের এই বিজ্ঞপ্তির পর তারা কোথায় যাবেন তা নিয়েই উঠছে সংশয়। এরই পরিপ্রেক্ষিতে তিনি জানান, 'আমাদের দাবি পুনর্বাসন দেওয়া হোক।' জানা যাচ্ছে, এখানে প্রায় ৩০ থেকে ৪০ বছর ধরে তারা বসবাস করছেন। এর আগেও তাদের উঠে যাওয়ার জন্য রেলের তরফ থেকে বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়েছিল।

    আরও পড়ুনঃ Birbhum: দু’দিনের ঝড়-বৃষ্টিতে ব্যাপক ক্ষতি বীরভূমে

    তবে সেই বিজ্ঞপ্তি ছিল কিছু বাসিন্দাদের জন্য। কিন্তু এবার যে বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে তা সকল বস্তিবাসীদের জন্য। রেলের এই বিজ্ঞপ্তি এবং দুর্বার মহিলা সমন্বয় ও স্থানীয় বাসিন্দাদের এই ডেপুটেশন প্রদান প্রসঙ্গে সিউড়ি শহর তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি মহঃ আব্দুল শফি জানান, \"সিউড়ি পৌরসভার ১৮ এবং ১৯ নম্বর ওয়ার্ডের একাংশ এই রেলের জায়গায় রয়েছে। এখানে বহু গরিব মানুষের বসবাস। কিন্তু রেল সময় না দিয়ে উচ্ছেদের জন্য বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে। এই উচ্ছেদ মানা হবে না। প্রয়োজন পড়লে বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।\" এর পরিপ্রেক্ষিতে সিউড়ি স্টেশন ম্যানেজার সরাসরি ক্যামেরার সামনে কিছু না বললেও ডেপুটেশনকারীদের আশ্বাস দেন তাদের আবেদন পত্র উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে পৌঁছে দেওয়া হবে।

    Madhab Das
    First published:

    Tags: Birbhum, Suri

    পরবর্তী খবর