Home /News /birbhum /
Birbhum News|| দীর্ঘ কয়েক দশক ধরে গৃহহীন ছিলেন, অবশেষে বাড়ি পেল বোলপুরের কোড়াপাড়া ৩০-৩৫ পরিবার

Birbhum News|| দীর্ঘ কয়েক দশক ধরে গৃহহীন ছিলেন, অবশেষে বাড়ি পেল বোলপুরের কোড়াপাড়া ৩০-৩৫ পরিবার

title=

Bolpur kora para House Scheme: ৩০-৩৫টি পরিবার দীর্ঘ কয়েক দশক ধরে বসবাস করলেও সরকারি প্রকল্পের বাড়ির সুবিধা পান নি। ভাঙ্গা মাটির বাড়িতে গরু-ছাগলের মতো বসবাস করতে হচ্ছিল তাদের।

  • Share this:

    #বীরভূম: পুরসভা নির্বাচনের আগে আমরা আমাদের সংবাদমাধ্যমে দেখিয়েছিলাম বোলপুর পুরসভার অন্তর্গত ১৮ নম্বর ওয়ার্ডের কোড়াপাড়া বাসিন্দাদের দুরবস্থা। যেখানে ৩০-৩৫ পরিবার দীর্ঘ কয়েক দশক ধরে বসবাস করলেও সরকারি প্রকল্পের বাড়ির সুবিধা পাননি। ভাঙ্গা মাটির বাড়িতে গরু-ছাগলের মতো বসবাস করতে হচ্ছিল। অবশেষে এ বার এই কোড়াপাড়া নিয়ে টনক নড়ল বোলপুর পৌরসভার।

    পুরসভা নির্বাচনের পর নতুন বোর্ড গঠন হওয়ার পর বোলপুর পুরসভার আওতায় এসেছে ১৯৭২টি বাংলার বাড়ি। এইসকল বাড়ি বোলপুর পুরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ডের মধ্যে ভাগ করে দেওয়া হয়েছে। হিসাব কষলে প্রায় ২০টি করে বাড়ি পাচ্ছে বোলপুর পুরসভার এক একটি ওয়ার্ড। সেইমতো বোলপুর পুরসভার ১৮ নম্বর ওয়ার্ডের ২০টি পরিবার আপাতত এই বাংলার বাড়ি প্রকল্পের সুবিধা পাচ্ছে।

    পুরসভার তরফ থেকে জানানো হয়েছে, যারা সরকারি প্রকল্পের বাড়ির জন্য আবেদন করেছিলেন তাদের মধ্য থেকে বেছে নেওয়া হয়েছে এইসকল পরিবারগুলিকে। তবে আগামী দিনে যারা বাকি রয়েছেন তাদেরও এই প্রকল্পের আওতায় বাড়ি করে দেওয়ার জন্য বেছে নেওয়া হবে। বাংলার বাড়ি প্রকল্পের আওতায় প্রতিটি উপভোক্তার জন্য বরাদ্দ করা হয়েছে ৩ লক্ষ ৬৮ হাজার টাকা। এই টাকার মধ্যে ২৫ হাজার টাকা দিতে হচ্ছে উপভোক্তাকে, রাজ্য সরকারের তরফ থেকে এই বাড়ি তৈরি করার জন্য দেওয়া হচ্ছে ১ লক্ষ ৯৩ হাজার টাকা। বাকি দেড় লক্ষ টাকা দিচ্ছে কেন্দ্র সরকার।

    ইতিমধ্যেই এই কোড়াপাড়ায় বাংলার বাড়ি সরকারি প্রকল্পের মাধ্যমে উপভোক্তাদের হাতে বাড়ি তুলে দেওয়ার কাজ শুরু করে দেওয়া হয়েছে। পুরসভার তরফ থেকে জানানো হয়েছে, যত তাড়াতাড়ি সম্ভব এই বাড়ি সম্পূর্ণ করে দেওয়ার দায়িত্ব নিচ্ছে পুরসভা। পাশাপাশি স্থানীয় জনপ্রতিনিধির তরফ থেকে দাবি করা হয়েছে, আগামী কয়েক মাসের মধ্যেই এই এলাকার চেহেরা সম্পূর্ণ বদলে যাবে। স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, তারা এখানে দীর্ঘদিন ধরে বসবাস করলেও কেউ সরকারি প্রকল্পের বাড়ি করে দেওয়ার ব্যবস্থা করেনি। এর আগেও তারা বারংবার আবেদন করেছিলেন। কিন্তু এ বার শেষমেশ বাড়ি পেয়ে তারা খুশি।

    Published by:Shubhagata Dey
    First published:

    Tags: Birbhum

    পরবর্তী খবর