Home /News /birbhum /
Birbhum: প্রচলিত বিশ্বাসে মানুষের ঢল মহঃবাজারের ধর্মরাজ পুজোয়

Birbhum: প্রচলিত বিশ্বাসে মানুষের ঢল মহঃবাজারের ধর্মরাজ পুজোয়

title=

বাঙ্গালিদের বারো মাসে তেরো পার্বণের মধ্যে ধর্মরাজ পুজো এক পার্বণ। বিভিন্ন জায়গায় এই ধর্মরাজ পুজো নানান বিশ্বাস এবং রীতি মেনে করা হয়ে থাকে।

  • Share this:

    বীরভূম : বাঙ্গালিদের বারো মাসে তেরো পার্বণের মধ্যে ধর্মরাজ পুজো এক পার্বণ। বিভিন্ন জায়গায় এই ধর্মরাজ পুজো নানান বিশ্বাস এবং রীতি মেনে করা হয়ে থাকে। সেই রকমই বীরভূমের মহম্মদবাজারের আঙ্গারগড়িয়ার শুগুণপুর গ্রামে প্রতিবছর ধুমধাম করে ধর্মরাজ পুজোর আয়োজন করা হয়। এখানকার এই ধর্মরাজ পুজোর ক্ষেত্রে রয়েছে এক প্রচলিত বিশ্বাস। সেই বিশ্বাসের ওপর ভর করে প্রতিবছর দূর-দূরান্ত থেকে হাজার হাজার মানুষের সমাগম ঘটে পুজো দেওয়ার জন্য। যদিও করোনাকালে গত দু'বছর ধরে কেবলমাত্র রীতি মেনে এখানে ধর্মরাজ পূজো হয়। এই বছর সংক্রমণ কম থাকায় আগের ছন্দে ফিরেছে পুজো। স্থানীয় সূত্রে জানা যাচ্ছে, এই পুজো শতাব্দী প্রাচীন। প্রতিবছর এই পুজোকে কেন্দ্র করে দূর-দূরান্তের মানুষেরা এখানে আসেন।

    আরও পড়ুনঃ Birbhum: পুনর্বাসনের দাবিতে রেলের দ্বারস্থ সিউড়ির বস্তিবাসীরা

    তিন দিন ধরে চলে পুজো। আর তার সঙ্গে সঙ্গে চলে বিভিন্ন ধরনের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এবং মেলা। এই পুজো শুগুণপুর গ্রামের সবচেয়ে বড় পুজো হওয়ার কারণে আত্মীয়স্বজনেরা বিভিন্ন জায়গা থেকে পুজোর সময় এখানে এসে থাকেন। অন্যদিকে এখানকার ধর্মরাজ ঠাকুরের পুজো দিতে মহম্মদবাজার ব্লকের মামুদপুর, ভুতুরা, বাগলা, আঙ্গারগড়িয়া, নরসিংহপুর সহ বিভিন্ন গ্রাম থেকে ভক্তদের আগমন ঘটে। শুগুণপুর গ্রামের এক প্রান্তে ময়ূরাক্ষী নদীর তীরে জঙ্গলে ঘেরা একটি জায়গায় রয়েছে এখানকার ধর্মরাজ ঠাকুরের বেদি। সেখানে এই পুজোর আয়োজন করা হয়ে থাকে। এখানকার এই পুজোয় ভক্তদের দিতে হয় মাটির ঘোড়া এবং পদ্মফুল। যে কারণে পুজোর সময় স্থানীয় বেশ কিছু ব্যবসায়ী মাটির ঘোড়া এবং পদ্মফুল বিক্রি করেন।

    আরও পড়ুনঃ Birbhum: পুলিশ কর্মীর দু’টি কিডনি নষ্ট, পাশে দাঁড়ালেন আর এক মহিলা পুলিশকর্মী

    মাটির ঘোড়া বিক্রি করা হয়ে থাকে ১০ টাকা থেকে ১০০ টাকা পর্যন্ত এবং পদ্মফুল বিক্রি করা হয়ে থাকে পাঁচ টাকা প্রতি পিস হিসাবে। কথিত আছে, এখানকার ধর্মরাজ ঠাকুরের কাছে মাটির ঘোড়া মানত রেখে পুজো দিলে নানান ধরনের চর্মরোগ সেরে যায়। এই কথিত বিশ্বাসের ওপর ভর করে প্রতিবছর বহু ভক্তের সমাগম হয়। এই বছরও পূজোকে কেন্দ্র করে দূর-দূরান্ত থেকে ভক্তদের আসতে লক্ষ্য করা যায়। এমনকি পুজো দেওয়ার জন্য লম্বা লাইন পড়তেও চোখে পড়ে। সোমবার থেকে এই পুজো শুরু হয়েছে এবং তা চলবে আগামী বুধবার পর্যন্ত।

      Madhab Das
    First published:

    Tags: Birbhum

    পরবর্তী খবর