Football World Cup 2018

দেশের হয়ে খেলে কোটিপতি কোহলিরা, আয়ের হিসেবে অনেক পিছিয়ে মিতালিরা !

Siddhartha Sarkar
Updated:Jul 24, 2017 08:57 AM IST
দেশের হয়ে খেলে কোটিপতি কোহলিরা, আয়ের হিসেবে অনেক পিছিয়ে মিতালিরা !
Siddhartha Sarkar
Updated:Jul 24, 2017 08:57 AM IST

#মুম্বই: সকলেই ভারতের হয়ে খেলেন। জার্সিতে চকচক করে বিসিসিআই-এর চক্রাকার লোগো। কিন্তু পারিশ্রমিকে আকাশপাতাল তফাৎ। বিজ্ঞাপন বা এনডোর্সমেন্ট বাদই দিন। কোহলি-মিতালিদের আয়ের নিরিখে বোর্ডের চোখেও এত বৈষম্য কেন ?

কোহলি, ধোনি থেকে ঋদ্ধি, শামি। ওঁরা গোটা দেশের কাছে আইকন। গোটা দেশ ওঁদের সাফল্যের উচ্ছ্বাসে ফেটে পড়ে। ব্যর্থতায় মূহ্যমান হয় শোকে। বা ফেটে পড়ে সমালোচনায়। কেন ? ওঁরা যে দেশের হয়ে খেলেন। ওঁদের জার্সিতে চকচক করে বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ভারতীয় বোর্ডের লোগো। কিন্তু ছবিটা আকাশপাতাল তফাৎ মেয়েদের ক্রিকেটে।

বোর্ডের বার্ষিক চুক্তিতে কোহলিদের বরাদ্দ তিনটি গ্রেডেশনে। পারিশ্রমিক ২ কোটি, ১ কোটি আর ৫০ লাখ। তাতেও প্রায়ই অসন্তোষ উঠে আসে ক্রিকেটারদের গলায়। আর মিতালিরা কত পান, জানেন ? মেরেকেটে ১৫। সর্বনিম্ন ১০ লাখ। তাও বোর্ডের ডামাডোলে গত একবছরে কোনও চুক্তির টাকাই পাননি বিশ্বকাপে দেশের গৌরব বাড়ানো লর্ডসের বাঘিনীরা।

পারিশ্রমিক বৈষম্য ( বোর্ডের থেকে বার্ষিক আয়)

কোহলিদের বরাদ্দ     /    মিতালিদের বরাদ্দ

বছরে ২ কোটি                       বছরে ১৫ লাখ ( গ্রেড-এ )

বছরে ১ কোটি                        বছরে ১০ লাখ (গ্রেড বি ) 

বছরে ৫০ লাখ (গ্রেড- সি) 

ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া- ইসিবি- কিউই বোর্ড- ভারতীয় বোর্ড ( মেয়েদের ক্রিকেট বার্ষিক আয়ের হিসেব)

----------------- ------ ----------- --------------

এ - ৩৯.৮৪ লাখ (অস্ট্রেলিয়া বোর্ড)  ৪০.৮৬ লাখ (ইংল্যান্ড বোর্ড) ১৫.৬৭ লাখ (নিউজিল্যান্ড বোর্ড) ১৫ লাখ (ভারতীয় বোর্ড)

বি - ৩২.৬৫ লাখ,  আলাদা টুর্নামেন্ট ৯.২১ লাখ ১০ লাখ ( অস্ট্রেলিয়া)

সি - ২০.০৯ লাখ,  আলাদা আইপিএল

বিগ ব্যাশে আলাদা চুক্তি চালু হয়নি

ছেলে আর মেয়েদের ক্রিকেট না হয় ভুলেই যান। মেয়েদের ক্রিকেটেও আয়ের নিরিখে অনেক পিছিয়ে মিতালি-ঝুলনরা। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া তাদের মহিলা ক্রিকেটারদের ৩টি গ্রেডেশনে বছরে কত টাকা দেয় ভারতীয় টাকায় সেটা দেখলেই পার্থক্য বোঝা সম্ভব। এর সঙ্গে যোগ করুন, বিগ ব্যাশ খেলা মানে আলাদা উপার্জন।

খুব একটা পিছিয়ে নেই ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডও। সেখানেও একই ছবি। এমনকী, একরত্তি নিউজিল্যান্ড বোর্ডও মেয়েদের টাকা দেওয়ার ক্ষেত্রে ভারতীয় বোর্ডের থেকে অনেক দরাজহস্ত। ভুলবেন না, আইপিএল ১০ বছর পেরিয়ে গেলেও আজ পর্যন্ত মেয়েদের আইপিএল নিয়ে ভাবনায় এক ইঞ্চি এগোতে পারেনি কোহলিদের বোর্ড। মানসিকতার সেই প্রতিফলনই ফুটে ওঠে পারিশ্রমিক বৈষম্যে।

First published: 08:54:31 AM Jul 24, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर