পাহাড় ছন্দে ফিরলেও মা দুর্গার আগমন নিয়ে আশঙ্কা

পাহাড় ছন্দে ফিরলেও মা দুর্গার আগমন নিয়ে আশঙ্কা

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Sep 19, 2017 03:48 PM IST
পাহাড় ছন্দে ফিরলেও মা দুর্গার আগমন নিয়ে আশঙ্কা
নিজস্ব চিত্র
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Sep 19, 2017 03:48 PM IST

 #কার্শিয়ঙ: ঢাকের বোল। কাশফুল। নতুন জামা। পুজোর আনন্দে মেতে উঠতে যখন পা বাড়িয়ে আছে গোটা রাজ্য, তখন বিষন্নতা গ্রাস করেছে কার্শিয়ঙকে। বনধের আঁচে পুড়ে গিয়েছে রাজরাজেশ্বরী কমিউনিটি হল। বাঙালি অ্যাসোসিয়েশনের ১০১ বছরের পুজো ঘিরে তৈরি হয়েছে অনিশ্চয়তা। নমো নমো করে ঘটপুজোতেই সেরে নিতে হবে নিয়ম-উপাচার।

দেওয়ালে পোড়া দাগ। এদিক ওদিক ছড়িয়ে কালো ছাই। জ্বলেপুড়ে খাঁক হয়ে যাওয়া জিনিসের ধ্বংসাবশেষ নিয়ে কার্শিয়ঙের বুকে দাঁড়িয়ে আছে শতাব্দীপ্রাচীন রাজরাজেশ্বরী কমিউনিটি হল।

বিশাল মঞ্চে ভাঙা অ্যাসবেসটস আর পুড়ে যাওয়া দরজার কাঠের স্তূপ। বনধের আগুনে জ্বলে গিয়েছে কমিউনিটি হল। পুজোর কয়েকদিন আগে প্রতিবছর এইসময়েই সেজে ওঠে রাজরাজেশ্বরী। বাঙালি অ্যাসোসিয়েশনের পুজো ঘিরে থাকে নতুন নতুন চমক। এবছর অবশ্য দীর্ঘশ্বাস, শূন্যতা।

বনধ আর আন্দোলনে ১০১ বছরের পুজো ঘিরে তৈরি হয়েছে অনিশ্চয়তা। জৌলুস ছাড়াই হবে মাতৃ আরাধনা। বিষাদের ভারে মাতৃ আরাধনায় মন সায় দেয় না। ঢাকের তালে কোমর দোলাতে চায় কার্শিয়ং। প্রাচীন পুজোর ঐতিহ্য ফিরে পাওয়ার অপেক্ষায় রাজরাজেশ্বরী।

First published: 01:06:54 PM Sep 14, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर