Home /News /astrology /
Mauni Amavasya 2022: মৌনী অমাবস্যার দিনে এই সব উপায় অবলম্বন করলে মুক্তি মিলবে কালসর্প দোষ থেকে

Mauni Amavasya 2022: মৌনী অমাবস্যার দিনে এই সব উপায় অবলম্বন করলে মুক্তি মিলবে কালসর্প দোষ থেকে

মৌনী অমাবস্যার দিনে এই সব উপায় অবলম্বন করলে মুক্তি মিলবে কালসর্প দোষ থেকে

মৌনী অমাবস্যার দিনে এই সব উপায় অবলম্বন করলে মুক্তি মিলবে কালসর্প দোষ থেকে

Mauni Amavasya 2022: জ্যোতিষশাস্ত্রের বিশ্বাস অনুসারে, যাঁরা স্বপ্নে সাপ দেখেন, তাঁরা কর্মে সাফল্য পান না, সিদ্ধান্তহীনতায় ভোগেন এবং তাঁদের পারিবারিক জীবনেও বিঘ্ন আসে।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: জ্যোতিষশাস্ত্র অনুযায়ী, চলতি বছরে মৌনী অমাবস্যার তিথি পড়েছে আগামী ১ ফেব্রুয়ারি। এই দিনটি মঙ্গলবার হওয়ায় এটিকে ভৌমবতী অমাবস্যা নামেও অভিহিত করে থাকেন জ্যোতিষীরা। শাস্ত্র অনুযায়ী, মৌনী অমাবস্যার দিনে কালসর্প দোষ থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য ব্যবস্থা নেওয়া হয়। যাঁদের কালসর্প দোষ রয়েছে, তাঁরা এই দিনে কিছু জ্যোতিষশাস্ত্রীয় প্রতিকারের মাধ্যমে এই দোষ থেকে মুক্তি পেতে পারেন। কালসর্প দোষ এমন রাশিতে ঘটে, যখন রাহু-কেতু ১৮০ ডিগ্রিতে মুখোমুখি থাকে এবং বাকি ৭টি গ্রহ তাদের অন্য দিকে ঘুরে থাকে। জ্যোতিষশাস্ত্রের বিশ্বাস অনুসারে, যাঁরা স্বপ্নে সাপ দেখেন, তাঁরা কর্মে সাফল্য পান না, সিদ্ধান্তহীনতায় ভোগেন এবং তাঁদের পারিবারিক জীবনেও বিঘ্ন আসে। আসলে বলা হয়, এগুলোই হল কালসর্প দোষের লক্ষণ।

জেনে নেওয়া যাক, মৌনী অমাবস্যার দিনে কালসর্প দোষ থেকে কী ভাবে মুক্তি পাওয়া যাবে? কী বলছে জ্যোতিষশাস্ত্র?

মৌনী অমাবস্যা ২০২২: কালসর্প দোষের প্রতিকার মৌনী অমাবস্যা একটি পবিত্র দিন। এই দিনে গঙ্গায় স্নান করলে সমস্ত পাপ ও গ্রহ-দোষ দূর হয়, কারণ এই দিনে গঙ্গা নদী দেব-দেবীর আবাসস্থল হয়ে ওঠে বলে বিশ্বাস করা হয়।

১. কালসর্প দোষ থেকে পরিত্রাণ পেতে, মৌনী অমাবস্যার দিনে রৌপ্য সর্প এবং সর্প জোড়া তৈরি করে তাদের পূজা করতে হবে। তার পর বহমান জলে তাদের ফেলে দিতে হবে। এতে কালসর্প দোষ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

২. প্রয়াগরাজে মৌনী অমাবস্যায়, পূর্বপুরুষদের জন্য তর্পণ, পিণ্ড দান, শ্রাদ্ধের ক্রিয়াকর্ম ইত্যাদি করলেও কালসর্প দোষ থেকে মুক্তি পাওয়া যাবে। শুধু তা-ই নয়, এতে পিতৃদোষও দূর হয়।

আরও পড়ুন-পঞ্জিকা ২৯ জানুয়ারি, জানুন আজকের নক্ষত্রযোগ, শুভ মুহূর্ত, রাহুকাল, দিনের অন্য লগ্ন

৩. মৌনী অমাবস্যার দিনে স্নান করার পরে, এক জন ঝাড়ুদারকে মুসুর ডাল এবং কিছু টাকা দান করতে হবে। এতেও কালসর্প দোষ দূর হবে।

৪. মৌনী অমাবস্যার দিনে স্নান এবং দান করার পরে ভগবান শিবের পুজো এবং শিব তাণ্ডব স্তোত্র পাঠ করতে হবে। তা হলে শিবের কৃপায় কালসর্প দোষ দূর হবে। যদি কোনও ব্যক্তির কুন্ডলীতে কালসর্প দোষ থেকে থাকে, তা হলে তাঁদের নিয়মিত ভগবান শিবকে জল নিবেদন করা উচিত এবং যথাযথ ভাবে ভক্তি ভরে পুজো করা উচিত। ভগবান শিবের কৃপায় সকল প্রকার দোষ এবং ভয় দূর হয়।

Published by:Swaralipi Dasgupta
First published:

Tags: Astrology, Astrology Tips

পরবর্তী খবর