Home /News /alipurduar /
Alipurduar: গাড়ির মধ্যে এগুলো কী! তল্লাশি চালাতে চোখ কপালে পুলিসের!

Alipurduar: গাড়ির মধ্যে এগুলো কী! তল্লাশি চালাতে চোখ কপালে পুলিসের!

প্রচুর পরিমাণে অবৈধ মদ সহ বিহারের চারজন যুবককে গ্ৰেফতার করল মাদারিহাট থানার পুলিশ। গোপন সুত্রে খবরের ভিত্তিতে শনিবার ভোরে মাদারিহাট এশিয়ান হাইওয়েতে একটি ছোটো গাড়িকে আটক করে পুলিশ।

  • Share this:

    #আলিপুরদুয়ার : প্রচুর পরিমাণে অবৈধ মদ সহ বিহারের চারজন যুবককে গ্ৰেফতার করল মাদারিহাট থানার পুলিশ। গোপন সুত্রে খবরের ভিত্তিতে শনিবার ভোরে মাদারিহাট এশিয়ান হাইওয়েতে একটি ছোটো গাড়িকে আটক করে পুলিশ। সেই গাড়িতে তল্লাশি চালানো হয়। গাড়ি থেকে প্রচুর অবৈধ মদ উদ্ধার হয়। সেই গাড়িতে থাকা চারজন বিহারের যুবককে গ্ৰেফতার করে পুলিশ।অভিযুক্তকে শনিবার আলিপুরদুয়ার কোর্টে তোলা হয়েছে। গাড়িটি আটক করেছে পুলিশ। এদিকে গত মে মাসে মাদারিহাট সংলগ্ন বীরপাড়াতে অ‍্যাম্বুলেন্স করে মদ পাচারের সময় গ্রেফতার করা হয় একজনকে।আলিপুরদুয়ার জেলার মাদারিহাট বীরপাড়া ব্লকের এলাকায় আ্যম্বুল‍্যান্স থেকে প্রচুর পরিমাণে অবৈধ বিদেশি মদ উদ্ধার হয়। গ্রেফতার হয় আ্যম্বুল‍্যান্স চালক রাতের অন্ধকারের সুযোগকে কাজে লাগিয়ে মদ পাচারের কথা ছিল। আলিপুরদুয়ার জেলার মাদারিহাট বীরপাড়া ব্লকের বীরপাড়া এলাকায় গোপন সুত্রের খবরের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে বীরপাড়া থানার পুলিশ একটি অ‍্যাম্বুল‍্যান্স আটক করে। সেই অ‍্যাম্বুলেন্স থেকে ৫০ টি কার্টুন অবৈধ বিদেশি মদ উদ্ধার হয়। চালক জিতেন ডোমকে পুলিশ গ্রেফতার করে। মাদারিহাট-বীরপাড়া এলাকায় অবৈধ মদের কারবার রমরমা হয়ে উঠেছে।

     

     

    পুলিশের পক্ষ থেকে মাঝেমধ্যে নাকা চেকিং চালানো হয়। আলিপুরদুয়ার জেলায় অবৈধ মদের ঠেক গজিয়ে উঠেছে ব্যাঙের ছাতার মত।গত পাঁচদিন আগে আলিপুরদুয়ার নম্বর ব্লকের ঘরঘরিয়া বাজার এলাকায় অবৈধ মদ বিক্রির বিরুদ্ধে অভিযান চালালো সোনাপুর ফাঁড়ির পুলিশ। এদিন অভিযানে কাউকে গ্রেপ্তার করা যায়নি। তবে, ৪০ বোতল মদ উদ্ধার হয়েছে বলে পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে। সোনাপুর ফাঁড়ির ওসি মিংমা শেরপা বলেন, অবৈধ মদ বিক্রি রুখতে আগামীতেও অভিযান চালানো হবে।

    আরও পড়ুনঃ পুজোর আগে বুকিং নেই পূর্ব ডুয়ার্সে! কপালে চিন্তার ভাঁজ পর্যটন ব্যবসায়ীদের

     

     

    গত দুবছর আগে অবৈধ মদ উদ্ধার করতে গিয়ে আক্রান্ত হয়েছিলেন আবগারি বিভাগের কর্মীরা। ঘটনাটি ঘটেছিল কুমারগ্রাম ব্লকের বারবিশার লস্করপাড়া এলাকায়। ওই ঘটনায় আহত হয়েছিলেন আবগারি বিভাগের কুমারগ্রাম সার্কেলের কর্মী। এছাড়াও আহত হয়েছেন লস্করপাড়ার দুজন বাসিন্দা। পুলিশ সূত্রে খবর, প্রফুল্ল দাসের বাড়িতে অভিযান চালায় আবগারি বিভাগের কর্মীরা। অভিযোগ, দীর্ঘদিন থেকে অবৈধ মদের কারবারের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন ওই ব্যক্তি।

    আরও পড়ুনঃ ভাতখাওয়া চা বাগানে নতুন করে ভাঙন শুরু! চিন্তায় স্থানীয়রা

     

     

    এর আগে প্রফুল্ল দাসের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে প্রায় ২২৫ লিটার অসমে তৈরি অবৈধ মদ উদ্ধার করেছিল আবগারি বিভাগের কর্মীরা। এদিন ফের ওই বাড়িতে অভিযানে নামেন তারা। সেসময় বাড়ির মালিক তার পরিবারের সদস্যদের মধ্যে প্রথমে বচসা পরে হাতাহাতি হয়। ঘটনায় উভয় পক্ষের জন আহত হয়েছেন। খবর পেয়ে কুমারগ্রাম থানার বারবিশা ফাঁড়ির পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আবগারি বিভাগের কর্মীদের উদ্ধার করে।

     

     

     

    Annanya Dey

    Published by:Soumabrata Ghosh
    First published:

    Tags: Alipurduar, Madarihat

    পরবর্তী খবর