পাইকপাড়ায় রবিনসন স্ট্রিটের ছায়া, ছ’দিন মায়ের মৃতদেহ আগলে বসেছিলেন ছেলে !

ছ’দিন মায়ের দেহ আগলে বসেছিলেন ছেলে অনির্বাণ বসু।

Siddhartha Sarkar | News18 Bangla
Updated:Nov 01, 2017 01:56 PM IST
পাইকপাড়ায় রবিনসন স্ট্রিটের ছায়া, ছ’দিন মায়ের মৃতদেহ আগলে বসেছিলেন ছেলে !
অনির্বাণ বসু
Siddhartha Sarkar | News18 Bangla
Updated:Nov 01, 2017 01:56 PM IST

#কলকাতা: ছ’দিন মায়ের দেহ আগলে বসেছিলেন ছেলে অনির্বাণ বসু। দমদমের পাইকপাড়ায় রবিনসন স্ট্রিটের ছায়া। গতকাল, মঙ্গলবার খবর জানাজানি হতে উদ্ধার হয় মা মীরা বসুর পচাগলা দেহ।

অনির্বাণ মানসিক ভারসাম্যহীন বলে জানিয়েছে পুলিশ। থানায় জিজ্ঞাসাবাদের পর রাতেই তাঁকে বাড়ি পৌঁছে দেয় টালা থানার পুলিশ। ফাঁকা বাড়িতে জল, খাবার কিছুই ছিল না। বাড়ির বাইরে থেকে তালা দিয়ে চলে যায় পুলিশ। মানসিক ভারসাম্যহীনকে এভাবে ঘরবন্দি করে রাখা নিয়ে পুলিশের ভূমিকায় প্রশ্ন উঠছে।

চিকিৎসা না করে কেন তাঁকে ফাঁকা বাড়িতে রাখা হল তাই নিয়ে প্রশ্ন উঠছে।  আজ সকালে অনির্বাণ বসুর খবর করতে গিয়ে এই অবস্থা দেখে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন সাংবাদিকরা। জানলা দিয়ে জল, শুকনো খাবার পৌঁছে দেওয়া হয় অনির্বাণের কাছে। পাইকপাড়ায় একটি সরকারি আবাসনে ছেলের সঙ্গে থাকতেন মীরা বসু।

২০ বছর আগে মীরা বসুর স্বামী মারা যাওয়ার পর চরম আর্থিক সঙ্কটে পড়ে পরিবার। চাঁদা তুলে সাহায্য করতেন প্রতিবেশীরাই। কয়েকদিন ধরে মীরাদেবীদের কোনও খোঁজ পাচ্ছিলেন না প্রতিবেশীরা। বাড়ির বাইরে থেকে দুর্গন্ধ পেয়ে পুলিশে খবর দেন প্রতিবেশীরা। পুলিশ এসে মীরা বসুর পচাগলা দেহ উদ্ধার করে। ছেলে অর্নিবাণ বসু মানসিক ভারসাম্যহীন বলে প্রাথমিক অনুমান পুলিশের।​

First published: 01:56:43 PM Nov 01, 2017
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर