শহরের নামী স্কুলে চার বছরের শিশুকে যৌন নিগ্রহের অভিযোগ শিক্ষকের বিরুদ্ধে !

চার বছরের শিশুটিকে এসএসকেএম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

Siddhartha Sarkar | News18 Bangla
Updated:Dec 01, 2017 12:12 PM IST
শহরের নামী স্কুলে চার বছরের শিশুকে যৌন নিগ্রহের অভিযোগ শিক্ষকের বিরুদ্ধে !
Photo : News18 Bangla
Siddhartha Sarkar | News18 Bangla
Updated:Dec 01, 2017 12:12 PM IST

#কলকাতা: স্কুলে শিশুর উপর যৌন নিগ্রহের অভিযোগ উঠল ৷ ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ কলকাতার এক নামী স্কুলে ৷ মাত্র চার বছরের এক স্কুল ছাত্রীর উপর যৌন নিগ্রহের অভিযোগ উঠেছে ৷ রানিকুঠির একটি বেসরকারি ইংরেজি মাধ্যম স্কুলের ঘটনা ৷ অভিযুক্ত শিক্ষক অভিষেক রায়-কে আটক করেছে পুলিশ ৷ তিনি গড়িয়ার বাসিন্দা বলে জানা গিয়েছে ৷ নির্যাতিত শিশুকে এসএসকেএম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে ৷ স্কুলের সামনে এদিন তীব্র বিক্ষোভ দেখান অভিভাবকরা ৷

গতকাল, বৃহস্পতিবার রানিকুঠির ওই স্কুল ছুটির পর নার্সারির ওই ছাত্রীর মা তাকে বাড়ি নিতে এসে দেখেন, কান্নাকাটি করছে মেয়ে। বাড়ি নিয়ে যাওয়ার পর পোশাকে রক্ত দেখতে পান। প্রস্রাব দিয়ে বার হয় রক্ত। এরপরই মেয়েকে ডাক্তারের কাছে নিয়ে যাওয়ার পর অভিভাবকরা বুঝতে পারেন, কোনও সংক্রমণ বা অন্য কিছু নয় ৷  মেয়ের উপর শারীরিক নির্যাতন করা হয়েছে !

নির্যাতিতা ছাত্রীর বাবা জানান, আমার স্ত্রী যখন মেয়েকে স্কুল থেকে আনতে যান ৷ তখন মেয়ের যৌনাঙ্গ থেকে রক্তক্ষরণ হতে থাকে ৷ শিক্ষক আমার মেয়ের যৌনাঙ্গে হাত ঢুকিয়ে নিগ্রহ করেছে ৷ পুলিশ সবরকম সাহায্য করেছে ৷ এসএসকেএম হাসপাতালে ভর্তি আমার মেয়ে ৷ সকাল ৯টা নাগাদ ছাত্রীর মেডিক্যাল টেস্ট করা হয়েছে ৷ শৌচালয় নিয়ে গিয়ে মেয়েকে যৌন নির্যাতন করে  পি টি টিচার ৷  ওই স্কুলে মেয়েকে আর পাঠাব না ৷ আমার মেয়ে যে বেঁচে ফিরেছে এই অনেক ৷ আইন অনুযায়ী স্কুল ও অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে আমরা পদক্ষেপ নেব ৷

আরও পড়ুন--

‘‘ওই স্কুলে আর কোনওদিনও মেয়েকে পাঠাব না...’’ : নির্যাতিত শিশুর বাবা

Loading...

প্রথমে বাঁশদ্রোণী থানায় অভিযোগ জানাতে নির্যাতিত ছাত্রীর বাবা গেলেও সেখান থেকে তাঁকে পাঠানো হয় যাদবপুর থানায় ৷ এরপর এসএসকেএম-এ মেডিক্যাল পরীক্ষার জন্য শিশুটিকে নিয়ে যাওয়া হয় ৷ এই স্কুলের বিরুদ্ধে তিন বছর আগেও এমন অভিযোগ উঠেছে বলে জানা যাচ্ছে ৷ মাত্র চার বছরের শিশুর সঙ্গে এমন ঘটনা ঘটার পর এখন ওই স্কুলে নিজেদের সন্তানদের পাঠাতেও ভয় পাচ্ছেন অভিভাবকরা ৷

First published: 09:14:53 AM Dec 01, 2017
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर