৬০ বছরের ‘দিদিমা’কে বিয়ে করল ১৫ বছরের কিশোর!

৬০ বছরের ‘দিদিমা’কে বিয়ে করল ১৫ বছরের কিশোর!
প্রতীকী চিত্র ৷

দেখা করতে এসেই প্রথম স্বপ্ন ভাঙা শুরু ৷ এতদিন যাঁর সঙ্গে এত ভালবাসা বিনিয়ম, সেই প্রেমিকা যে তাঁর দিদিমার বয়সী !

  • Share this:

#অসম: বন্ধুকে ফোন করতে গিয়ে ফোনটা চলে গিয়েছিল ভুল নম্বরে ৷ অন্যপ্রান্তে সুমধুর নারী কণ্ঠ ৷ ভাল লেগে গিয়েছিল অসমের গোয়ালপাড়ার শিমলিতোলার হেপচাপাড়া গ্রামের ১৫ বছরের কিশোরের ৷ ‘কোকিল কণ্ঠী’র প্রেমে পড়তে সময় লাগেনি ৷ ধীরে ধীরে এগোল সেই সম্পর্ক ৷ বাড়ল গভীরতা, তারপর সম্পর্ক গিয়ে দাঁড়াল ছাদনাতলায় ৷ কিন্তু বিয়ের আসরে যে এমন বাজ পড়বে তা বোধহয় স্বপ্নেও ভাবতে পারেনি প্রেমে বিভোর ওই কিশোর ৷ দেখা করতে এসেই প্রথম স্বপ্ন ভাঙা শুরু ৷ এতদিন যাঁর সঙ্গে এত ভালবাসা বিনিয়ম, সেই প্রেমিকা যে তাঁর দিদিমার বয়সী ! কিন্তু তখন তো যা হওয়ার হয়ে গিয়েছে ৷ ফোনেই এগিয়েছে বিয়ের কথাবার্তা ৷ ওই মহিলার শর্ত ছিল, দেখা করতে এলে বাড়ির অভিভাবকদের বিয়ের প্রস্তাব দিতে হবে ৷ সেই শর্তে তখন এককথায় রাজি হয়ে যায় কিশোর ৷

আরও পড়ুন: আজ বন্ধ থাকবে ৪০০টি পেট্রোল পাম্প !

নির্ধারিত দিনে বরপেটা জেলার সুখারচর গ্রামে প্রেমিকার বাড়িতে পৌঁছতেই সে পায় উষ্ণ অভ্যর্থনা। জমিয়ে হয় খাওয়া–দাওয়া। প্রথমে কিন্তু প্রেমিকার দেখা মেলেনি। পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথার বলার ফাঁকেও প্রেমিকাকে খুঁজছিল ওই কিশোর। এরপর এক হাত ঘোমটা টেনে প্রেমিকা দেখা দিলেন। অনেক কষ্টে মুখ দেখতে পান নিজের প্রেমিকার ৷ দেখেই চক্ষুচড়কগাছ ৷ কে ইনি ? প্রেমিকা না প্রেমিকার মা! এর সঙ্গেই এতদিন ধরে ফোনে প্রেমালাপ চলেছে ? বিশ্বাস করতে কষ্ট হচ্ছিল কিশোরের ৷ পালিয়ে আসার চেষ্টা করেছিলেন ৷ কিন্তু সবই বৃথা ৷ জানা গিয়েছে, ওই মহিলার স্বামী মারা গিয়েছেন ৷ এরপর থেকেই তাঁর আবার বিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছিলেন তাঁর পরিবারের সদস্যরা ৷ কিশোরকে হাতের নাগালে পেতেই এরপর জোর করে বিয়ে দেওয়া হয় তাঁর ৷ নিরুপায় হয়ে ৬০ বছরের ‘ নতুন বউ’ নিয়েই গ্রামে ফিরে আসে ওই কিশোর ৷ তবে কিশোরের পরিবার এই বিয়েতে নারাজ ৷ কিশোরের পরিবারের তরফে স্থানীয় থানায় অভিযোগও দায়ের করা হয়েছে ৷ তদন্তে নেমেছে পুলিশ ৷

First published: October 22, 2018, 10:48 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर