চাষের জমিতে বিদ্যুৎ সাবস্টেশন নির্মাণ ঘিরে দফায় দফায় অগ্নিগর্ভ ভাঙড়

Jan 17, 2017 08:48 PM IST
1 of 7
  • সোমবার সকাল থেকেই ফের উত্তপ্ত ভাঙড় ৷ বিদ্যুতের সাব স্টেশন ঘিরে নতুন করে উত্তেজনা ছড়ায় ভাঙড়ে। সোমবার সকাল থেকে অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি ভাঙড়ের মাছিভাঙা ও খামারআইট এলাকায়। রাস্তার মোড়ে মোড়ে লাঠিসোঁটা নিয়ে জড়ো হয় বিক্ষোভকারীরা। শুরু হয় অবরোধ-বিক্ষোভ। পুলিশের বিরুদ্ধে অত্যাচারের অভিযোগ আনেন বিক্ষোভকারীরা ৷ পরিস্থিতি উত্তপ্ত হতেই এলাকায় পুলিশ ও র‍্যাফ নামানো হয়। কিন্তু, ওই এলাকায় পুলিশকে চারদিক থেকে ঘিরে ফেলে বিক্ষোভকারীরা। পুলিশকে লক্ষ করে ইট ছোড়ে বিক্ষোভকারীরা। শুরু হয় জনতা-পুলিশ খণ্ডযুদ্ধ। পরিস্থিতি আয়ত্তে আনতে কাঁদানে গ্যাসের শেল ছোড়ে পুলিশ।

    সোমবার সকাল থেকেই ফের উত্তপ্ত ভাঙড় ৷ বিদ্যুতের সাব স্টেশন ঘিরে নতুন করে উত্তেজনা ছড়ায় ভাঙড়ে। সোমবার সকাল থেকে অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি ভাঙড়ের মাছিভাঙা ও খামারআইট এলাকায়। রাস্তার মোড়ে মোড়ে লাঠিসোঁটা নিয়ে জড়ো হয় বিক্ষোভকারীরা। শুরু হয় অবরোধ-বিক্ষোভ। পুলিশের বিরুদ্ধে অত্যাচারের অভিযোগ আনেন বিক্ষোভকারীরা ৷ পরিস্থিতি উত্তপ্ত হতেই এলাকায় পুলিশ ও র‍্যাফ নামানো হয়। কিন্তু, ওই এলাকায় পুলিশকে চারদিক থেকে ঘিরে ফেলে বিক্ষোভকারীরা। পুলিশকে লক্ষ করে ইট ছোড়ে বিক্ষোভকারীরা। শুরু হয় জনতা-পুলিশ খণ্ডযুদ্ধ। পরিস্থিতি আয়ত্তে আনতে কাঁদানে গ্যাসের শেল ছোড়ে পুলিশ।

  • কয়েক হাজার গ্রামবাসী ঘিরে রেখেছে এলাকা। বেরনোর পথে বোমা ভরতি ব্যাগ রাখা রয়েছে। গাছ ফেলে অবরোধে গ্রামবাসীরা। পুলিশের গাড়িতে আগুন বিক্ষোভকারীদের। পুলিশ প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত প্রশাসনের। যদিও এলাকা ছেড়ে বেরোতে পারছে না পুলিশ। চারদিক থেকে ঘিরে রাখা হয়েছে পুলিশকে। পুলিশ অফিসারদের সঙ্গে আলোচনা গ্রামবাসীদের। তাতেও মিলছে না সমাধানসূত্র।

    কয়েক হাজার গ্রামবাসী ঘিরে রেখেছে এলাকা। বেরনোর পথে বোমা ভরতি ব্যাগ রাখা রয়েছে। গাছ ফেলে অবরোধে গ্রামবাসীরা। পুলিশের গাড়িতে আগুন বিক্ষোভকারীদের। পুলিশ প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত প্রশাসনের। যদিও এলাকা ছেড়ে বেরোতে পারছে না পুলিশ। চারদিক থেকে ঘিরে রাখা হয়েছে পুলিশকে। পুলিশ অফিসারদের সঙ্গে আলোচনা গ্রামবাসীদের। তাতেও মিলছে না সমাধানসূত্র।

  • বিদ্যুতের সাব স্টেশন ঘিরে নতুন করে উত্তেজনা ভাঙড়ে। আজ সকাল থেকে অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি ভাঙড়ের মাছিভাঙা ও খামারআইট এলাকায়। রাস্তার মোড়ে মোড়ে লাঠিসোঁটা নিয়ে জড়ো হয় বিক্ষোভকারীরা। তীর-ধনুক, বোমা নিয়ে শুরু হয় পরিকল্পনামাফিক আক্রমণ। শুরু হয় অবরোধ-বিক্ষোভ। পরিস্থিতি উত্তপ্ত হতেই এলাকায় পুলিশ ও র‍্যাফ নামানো হয়। কিন্তু, ওই এলাকায় পুলিশকে চারদিক থেকে ঘিরে ফেলে বিক্ষোভকারীরা। পুলিশকে লক্ষ করে ইট ও বোমা ছোড়ে বিক্ষোভকারীরা। শুরু হয় জনতা-পুলিশ খণ্ডযুদ্ধ। পরিস্থিতি আয়ত্তে আনতে কাঁদানে গ্যাসের শেল ছোড়ে পুলিশ। চালানো হয় রাবার বুলেটও।

    বিদ্যুতের সাব স্টেশন ঘিরে নতুন করে উত্তেজনা ভাঙড়ে। আজ সকাল থেকে অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি ভাঙড়ের মাছিভাঙা ও খামারআইট এলাকায়। রাস্তার মোড়ে মোড়ে লাঠিসোঁটা নিয়ে জড়ো হয় বিক্ষোভকারীরা। তীর-ধনুক, বোমা নিয়ে শুরু হয় পরিকল্পনামাফিক আক্রমণ। শুরু হয় অবরোধ-বিক্ষোভ। পরিস্থিতি উত্তপ্ত হতেই এলাকায় পুলিশ ও র‍্যাফ নামানো হয়। কিন্তু, ওই এলাকায় পুলিশকে চারদিক থেকে ঘিরে ফেলে বিক্ষোভকারীরা। পুলিশকে লক্ষ করে ইট ও বোমা ছোড়ে বিক্ষোভকারীরা। শুরু হয় জনতা-পুলিশ খণ্ডযুদ্ধ। পরিস্থিতি আয়ত্তে আনতে কাঁদানে গ্যাসের শেল ছোড়ে পুলিশ। চালানো হয় রাবার বুলেটও।

  • বিক্ষোভ হঠাতে গিয়ে আক্রান্ত হন কাশীপুর থানার ওসি সহ চার পুলিশ কর্মী। আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয় পুলিশের গাড়িতে ৷

    বিক্ষোভ হঠাতে গিয়ে আক্রান্ত হন কাশীপুর থানার ওসি সহ চার পুলিশ কর্মী। আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয় পুলিশের গাড়িতে ৷

  • রাজ্যের বিদ্যুৎমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ের দাবি, ভাঙড়ের আন্দোলনে বহিরাগতরা রয়েছে। তাঁদের প্রত্যক্ষ ইন্ধন রয়েছে ওই আন্দোলনে। আন্দোলনকারীদের সঙ্গে প্রশাসনের আলোচনার পর কাজ বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয় তা সত্ত্বেও মঙ্গলবার সকাল থেকে কেন উত্তেজনা তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন বিদ্যুৎমন্ত্রী।

    রাজ্যের বিদ্যুৎমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ের দাবি, ভাঙড়ের আন্দোলনে বহিরাগতরা রয়েছে। তাঁদের প্রত্যক্ষ ইন্ধন রয়েছে ওই আন্দোলনে। আন্দোলনকারীদের সঙ্গে প্রশাসনের আলোচনার পর কাজ বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয় তা সত্ত্বেও মঙ্গলবার সকাল থেকে কেন উত্তেজনা তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন বিদ্যুৎমন্ত্রী।

  • চাষের জমি ফেরতের দাবিতে ভাঙরের চাষীদের আন্দোলনকে সমর্থন জানাল সিপিআইএম ৷ অবিলম্বে নিরীহ গ্রামবাসীদের উপর র‍্যাফ ও পুলিশি অত্যাচার বন্ধের দাবি জানিয়েছে বাম নেতারা ৷ তা না হলে বৃহত্তর আন্দোলনে চাষীদের পাশে থাকার হুঁশিয়ারি দিল সিপিআইএম ৷

    চাষের জমি ফেরতের দাবিতে ভাঙরের চাষীদের আন্দোলনকে সমর্থন জানাল সিপিআইএম ৷ অবিলম্বে নিরীহ গ্রামবাসীদের উপর র‍্যাফ ও পুলিশি অত্যাচার বন্ধের দাবি জানিয়েছে বাম নেতারা ৷ তা না হলে বৃহত্তর আন্দোলনে চাষীদের পাশে থাকার হুঁশিয়ারি দিল সিপিআইএম ৷

  • গ্রামবাসীদের আন্দোলনে পিছু হঠেছে রাজ্য। ভাঙড়ে বিদ্যুতের সাবস্টেশনের কাজ আপাতত স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত। বর্তমান পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে আপাতত সাবস্টেশন তৈরির কাজ স্থগিত রাখার কথা জানিয়েছেন বিদ্যুৎমন্ত্রী। বিক্ষোভ হঠাতে গিয়ে আক্রান্ত হন কাশীপুর থানার ওসি সহ চার পুলিশ কর্মী। এদিকে, রাতেই নিউটাউনে নিয়ে গিয়ে সামসুলকে জেরা করে সিআইডি। জেরার পর ছেড়ে দেওয়া হয়। নেতা ঘরে ফিরতেই বিক্ষোভ তুলে নেন গ্রামবাসীরা। কিন্তু সকাল হতেই ফের শুরু বিক্ষোভ, অবরোধ ৷

    গ্রামবাসীদের আন্দোলনে পিছু হঠেছে রাজ্য। ভাঙড়ে বিদ্যুতের সাবস্টেশনের কাজ আপাতত স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত। বর্তমান পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে আপাতত সাবস্টেশন তৈরির কাজ স্থগিত রাখার কথা জানিয়েছেন বিদ্যুৎমন্ত্রী। বিক্ষোভ হঠাতে গিয়ে আক্রান্ত হন কাশীপুর থানার ওসি সহ চার পুলিশ কর্মী। এদিকে, রাতেই নিউটাউনে নিয়ে গিয়ে সামসুলকে জেরা করে সিআইডি। জেরার পর ছেড়ে দেওয়া হয়। নেতা ঘরে ফিরতেই বিক্ষোভ তুলে নেন গ্রামবাসীরা। কিন্তু সকাল হতেই ফের শুরু বিক্ষোভ, অবরোধ ৷

  • সোমবার সকাল থেকেই ফের উত্তপ্ত ভাঙড় ৷ বিদ্যুতের সাব স্টেশন ঘিরে নতুন করে উত্তেজনা ছড়ায় ভাঙড়ে। সোমবার সকাল থেকে অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি ভাঙড়ের মাছিভাঙা ও খামারআইট এলাকায়। রাস্তার মোড়ে মোড়ে লাঠিসোঁটা নিয়ে জড়ো হয় বিক্ষোভকারীরা। শুরু হয় অবরোধ-বিক্ষোভ। পুলিশের বিরুদ্ধে অত্যাচারের অভিযোগ আনেন বিক্ষোভকারীরা ৷ পরিস্থিতি উত্তপ্ত হতেই এলাকায় পুলিশ ও র‍্যাফ নামানো হয়। কিন্তু, ওই এলাকায় পুলিশকে চারদিক থেকে ঘিরে ফেলে বিক্ষোভকারীরা। পুলিশকে লক্ষ করে ইট ছোড়ে বিক্ষোভকারীরা। শুরু হয় জনতা-পুলিশ খণ্ডযুদ্ধ। পরিস্থিতি আয়ত্তে আনতে কাঁদানে গ্যাসের শেল ছোড়ে পুলিশ।
  • কয়েক হাজার গ্রামবাসী ঘিরে রেখেছে এলাকা। বেরনোর পথে বোমা ভরতি ব্যাগ রাখা রয়েছে। গাছ ফেলে অবরোধে গ্রামবাসীরা। পুলিশের গাড়িতে আগুন বিক্ষোভকারীদের। পুলিশ প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত প্রশাসনের। যদিও এলাকা ছেড়ে বেরোতে পারছে না পুলিশ। চারদিক থেকে ঘিরে রাখা হয়েছে পুলিশকে। পুলিশ অফিসারদের সঙ্গে আলোচনা গ্রামবাসীদের। তাতেও মিলছে না সমাধানসূত্র।
  • বিদ্যুতের সাব স্টেশন ঘিরে নতুন করে উত্তেজনা ভাঙড়ে। আজ সকাল থেকে অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি ভাঙড়ের মাছিভাঙা ও খামারআইট এলাকায়। রাস্তার মোড়ে মোড়ে লাঠিসোঁটা নিয়ে জড়ো হয় বিক্ষোভকারীরা। তীর-ধনুক, বোমা নিয়ে শুরু হয় পরিকল্পনামাফিক আক্রমণ। শুরু হয় অবরোধ-বিক্ষোভ। পরিস্থিতি উত্তপ্ত হতেই এলাকায় পুলিশ ও র‍্যাফ নামানো হয়। কিন্তু, ওই এলাকায় পুলিশকে চারদিক থেকে ঘিরে ফেলে বিক্ষোভকারীরা। পুলিশকে লক্ষ করে ইট ও বোমা ছোড়ে বিক্ষোভকারীরা। শুরু হয় জনতা-পুলিশ খণ্ডযুদ্ধ। পরিস্থিতি আয়ত্তে আনতে কাঁদানে গ্যাসের শেল ছোড়ে পুলিশ। চালানো হয় রাবার বুলেটও।
  • বিক্ষোভ হঠাতে গিয়ে আক্রান্ত হন কাশীপুর থানার ওসি সহ চার পুলিশ কর্মী। আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয় পুলিশের গাড়িতে ৷
  • রাজ্যের বিদ্যুৎমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ের দাবি, ভাঙড়ের আন্দোলনে বহিরাগতরা রয়েছে। তাঁদের প্রত্যক্ষ ইন্ধন রয়েছে ওই আন্দোলনে। আন্দোলনকারীদের সঙ্গে প্রশাসনের আলোচনার পর কাজ বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয় তা সত্ত্বেও মঙ্গলবার সকাল থেকে কেন উত্তেজনা তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন বিদ্যুৎমন্ত্রী।
  • চাষের জমি ফেরতের দাবিতে ভাঙরের চাষীদের আন্দোলনকে সমর্থন জানাল সিপিআইএম ৷ অবিলম্বে নিরীহ গ্রামবাসীদের উপর র‍্যাফ ও পুলিশি অত্যাচার বন্ধের দাবি জানিয়েছে বাম নেতারা ৷ তা না হলে বৃহত্তর আন্দোলনে চাষীদের পাশে থাকার হুঁশিয়ারি দিল সিপিআইএম ৷
  • গ্রামবাসীদের আন্দোলনে পিছু হঠেছে রাজ্য। ভাঙড়ে বিদ্যুতের সাবস্টেশনের কাজ আপাতত স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত। বর্তমান পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে আপাতত সাবস্টেশন তৈরির কাজ স্থগিত রাখার কথা জানিয়েছেন বিদ্যুৎমন্ত্রী। বিক্ষোভ হঠাতে গিয়ে আক্রান্ত হন কাশীপুর থানার ওসি সহ চার পুলিশ কর্মী। এদিকে, রাতেই নিউটাউনে নিয়ে গিয়ে সামসুলকে জেরা করে সিআইডি। জেরার পর ছেড়ে দেওয়া হয়। নেতা ঘরে ফিরতেই বিক্ষোভ তুলে নেন গ্রামবাসীরা। কিন্তু সকাল হতেই ফের শুরু বিক্ষোভ, অবরোধ ৷

লেটেস্ট ছবি