হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট দেখতে চাওয়ায় স্বামীকে ধারালো অস্ত্রের কোপ স্ত্রীর

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Jun 13, 2017 10:12 AM IST
হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট দেখতে চাওয়ায় স্বামীকে ধারালো অস্ত্রের কোপ স্ত্রীর
Photo : AFP
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Jun 13, 2017 10:12 AM IST

#আগ্রা: স্ত্রীয়ের হোয়াটস অ্যাপ চ্যাট দেখতে চাওয়ার পরিণাম যে এত ভয়ঙ্কর হতে পারে তা বোধহয় স্বপ্নেও ভাবেননি স্বামী ৷ জোর করে হোয়াটস অ্যাপ চ্যাট ডিটেলস দেখতে চাওয়ায় ধারালো অস্ত্র নিয়ে স্বামীকে আক্রমণ করে স্ত্রী ৷ অভিযোগ, ধারালো অস্ত্রের কোপের সঙ্গে চলে ব্যাপক মারধর ৷ এমনই ঘটনা ঘটেছে ভিলওয়ালি গ্রামের খেরাগড়ে ৷

২০১৪ সালে ২১ বছরের নেত্রপাল সিংয়ের সঙ্গে বিয়ে হয় উনিশ বছরের নীতু সিংয়ের ৷ বিয়ের পর থেকেই ক্রমাগত অশান্তি চলত দু’জনের মধ্যে ৷ নীতুর অন্য কারোর সঙ্গে বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্ক আছে এই সন্দেহে স্ত্রীয়ের ফোন চেক করতে চান নেত্রপাল ৷ রাজি না হওয়ায় জোর করে হোয়াটস অ্যাপ চ্যাট দেখার চেষ্টা করতেই মেজাজ হারিয়ে কাটারি নিয়ে নেত্রপালের উপর ঝাঁপিয়ে পড়েন নীতু ৷ অভিযোগ, স্বামীর মাথায় ধারালো অস্ত্রের কোপ মারেন স্ত্রী ৷ গুরুতর আহত নেত্রপালকে স্থানীয় এস এন মেডিক্যাল কলেজে হাসপাতালে ভর্তি করা হয় ৷

নেত্রপালের পরিবারের দাবি, বিয়ের আগে থেকেই ভিনজাতের একটি ছেলের সঙ্গে সম্পর্ক ছিল নীতুর ৷ সেই সম্পর্ক বিয়ের পর অব্যাহত থাকায় সংসারে অশান্তি চলছিল ৷ আলাদা থাকছিলেন নীতু ৷ বহুবার বোঝানোর পর এদিন শ্বশুরবাড়িতে ফিরে আসে নেত্রপালের স্ত্রী নীতু ৷ কিন্তু বাড়ি এসেও হোয়াটস অ্যাপে কারোর সঙ্গে ব্যস্ত ছিল সে ৷ সন্দেহ হওয়ায় ফোন দেখতে চায় নেত্রপাল, তাতেই তাঁকে আঘাত করে নীতু ৷

এই ঘটনার পর গ্রাম ছেড়ে পালাতে গেলে তাঁকে ও তাঁর পুরুষবন্ধুকে ধরে ফেলে নেত্রপালের আত্মীয়রা ৷ ব্যাপক মারধরের পর অভিযুক্তকে নিয়ে যাওয়া হয় খেরাগড় থানায়৷ সেখানে নীতু পাল্টা অভিযোগ করেন, তাঁকে মিথ্যে অভিযোগ করে ফাঁসানোর চেষ্টা করছে নেত্রপাল ও তাঁর পরিবার ৷ আটক নীতুর দাবি, তিনি নেত্রপালকে কোনও আঘাত করেননি ৷ নিজেই নিজেকে আঘাত করে তাঁকে আইনের ফাঁদে ফেলতে চাইছে নেত্রপাল ৷ উল্লেখ্য, থানায় নিয়ে যাওয়া হলেও নেত্রপালের পরিবারের তরফে পুলিশে কোনও লিখিত অভিযোগ করা হয়নি ৷

First published: 10:12:46 AM Jun 13, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर