শহর ও পুর এলাকায় ডেঙ্গি আশঙ্কায় নির্দেশিকা জারি নগরোন্নয়ন দফতরের

Akash Misra | News18 Bangla
Updated:Oct 29, 2017 04:56 PM IST
শহর ও পুর এলাকায় ডেঙ্গি আশঙ্কায় নির্দেশিকা জারি নগরোন্নয়ন দফতরের
Dengue
Akash Misra | News18 Bangla
Updated:Oct 29, 2017 04:56 PM IST

#কলকাতা: ডেঙ্গি ও জ্বরে মৃত্যু চলছেই। শনিবার কলকাতা ও সংলগ্ন উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলাতেই আরও ছ’জনের মৃত্যু হয়েছে। সেইসঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে জেলা ও অন্যান্য হাসপাতাল থেকে কলকাতায় রেফারের পালাও।

এ অবস্থায় শহর ও পুর এলাকায় ডেঙ্গি ছড়ানোর আশঙ্কা ৷ রবিবার রাজ্যের নগরোন্নয়ন দফতরের পক্ষ থেকে জারি করা হল ডেঙ্গির নির্দেশিকা ৷ নির্দেশিকা অনুযায়ী,

স্বাস্থ্য ও সাফাই কর্মীদের ছুটি বাতিল

ছুটির দিনেও প্রত্যেককে কাজ করতে হবে

দিনে দুবার করে আবর্জনা সাফাই করতে হবে

জনপ্রতিনিধিদের সচেতনতার কাজে লাগাতে হবে

প্রয়োজনে স্পেশাল ফিভার ক্লিনিক খুলতে হবে

রাজ্যে ডেঙ্গি ও জ্বরে মৃতের সংখ্যা ক্রমশই বাড়ছে। শনিবার, আরও কয়েকজনের মৃত্যু হল।

বেলঘরিয়া

গত দু’তিন ধরে জ্বরে ভুগছিলেন বেলঘরিয়ার আড়িয়াদহের বাসিন্দা প্রদীপ দেব। ভরতি ছিলেন বাইপাসের ধারে একটি নার্সিংহোমে।শনিবার সকালে তাঁর মৃত্যু হয়। পরিবারের দাবি, এনএস ওয়ান পরীক্ষায় তাঁর ডেঙ্গি ধরা পড়েছে। যদিও, ডেথ সার্টিফিকেটে মাল্টি অর্গান ফেলিওরে মৃত্যু বলেই লেখা।

অশোকনগর

শনিবার সকালে আরজি কর হাসপাতালে মৃত্যু হয়েছে ষষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রের। অশোকনগরের বাঁশপুল পঞ্চায়েতের ভাতসালার বাসিন্দা সুজয় বিশ্বাস গত কয়েকদিন ধরেই জ্বরে ভুগছিলেন। তাকে হাবরা হাসপাতাল থেকে আরজি করে রেফার করা হয়।

বাদুড়িয়া

গত আট দিন ধরে জ্বরে ভুগছিলেন বাদুড়িয়ার মাচিয়া গ্রামের বাসিন্দা পিঙ্কি বিবি। শুক্রবার রাতে বারাসত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে মৃত্যু হয়।

বারাসত

গত রবিবার থেকে জ্বরে ভুগছিলেন বেড়াচাঁপা এক নম্বর পঞ্চায়েতের কাউকেপাড়ার বাসিন্দা লায়লা বিবি। শুক্রবার রাতে চিত্তরঞ্জন মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে মারা যান তিনি। জ্বরে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে বারাসতের বাউআটির আজমিরা বিবি নামে এক বাসিন্দারও। অন্যদিকে, ডেঙ্গি আক্রান্ত হয়ে কেস্টপুরেও এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে।

First published: 04:56:13 PM Oct 29, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर