১০৫ বছর আগে থেকেই ভারতের এই প্রতিষ্ঠানে চলছে পিরিয়ড লিভের প্রথা

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Aug 21, 2017 05:13 PM IST
১০৫ বছর আগে থেকেই ভারতের এই প্রতিষ্ঠানে চলছে পিরিয়ড লিভের প্রথা
Photo : AFP
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Aug 21, 2017 05:13 PM IST

 #তিরুবন্তপুরম: বাকি দেশের মতো ভারতেও পিরিয়ডের প্রথম দিন মেয়েদের ছুটি দেওয়া উচিত কি উচিত নয় এই তর্কবিতর্কে যখন উত্তাল চায়ের কাপের আড্ডা থেকে সোশ্যাল মিডিয়া ৷ অথচ ভারতের একটি প্রতিষ্ঠানে ১০০ বছরেরও বেশি সময় আগে থেকে চলে আসছে পিরিয়ড লিভ-এর প্রথা ৷

কেরালার এরনাকুলামের ত্রিপুনিতুরার ছোট্ট একটি সরকারি স্কুল ৷ তথ্য অনুযায়ী, ১৯১২ সাল থেকেই এই স্কুলে ঋতুস্রাব অর্থাৎ পিরিয়ডের প্রথমদিন ছাত্রী থেকে শিক্ষিকা সবার জন্যই ছুটির ব্যবস্থা রয়েছে ৷ এমনকি স্কুলে পরীক্ষা চলার সময় পিরিয়ড হলেও ছাত্রীকে ছুটি দিয়ে দেওয়া হয় ৷ শুধু তাই নয়, সেই ছাত্রীকে পরে পরীক্ষাটি দেওয়ার ব্যবস্থা করে দেয় স্কুল ৷

সম্প্রতি পিরিয়ডের প্রথম দিন কর্মস্থলে মহিলাদের ছুটি দেওয়ার দাবি উঠলেও ১০৫ বছর ধরে এই প্রথা অনুসরণ করে আসছে কেরালার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ৷ কিন্তু কিভাবে ওই স্কুলে এমন নিয়ম চালু হল?

এই প্রশ্নের উত্তর মেলে ইতিহাসবিদ পি ভাস্করানুন্নির ‘কেরালা ইন দ্য নাইনটিনথ সেঞ্চুরি’ বইটি থেকে ৷ ১৯১২ সালে ত্রিপুনিতুরা স্কুলের তৎকালীন প্রধান শিক্ষক ভিপি বিশ্বনাথ আইয়ার পিরিয়ডের প্রথম দিন ছাত্রী ও শিক্ষিকাদের অনুপস্থিতির বিষয়টি লক্ষ্য করে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে ওই দিনটির জন্য ছুটি চালু করার প্রস্তাব দেন ৷ প্রধান শিক্ষককের প্রস্তাবে সম্মত হয়ে ত্রিশূরের স্কুল ইনস্পেকটর পিরিয়ডের প্রথম দিন ছুটি চালু করতে অনুমতি দেন ৷

স্কুল ইনস্পেকটরের কাছে সবুজ সম্মতি পেতেই ত্রিপুনিতুরা স্কুলে চালু হয়ে যায় পিরিয়ড লিভ ৷ রীতিমতো নির্দেশিকা জারি করে ঘোষণা করা হয় বার্ষিক পরীক্ষার সময় কোনও ছাত্রীর পিরিয়ড হলে সে পরে পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ পাবে ৷

পিরিয়ড, মাসিক, ঋতুস্রাব যে নামেই ডাকা হোক না কেন, মহিলাদের এই স্বাভাবিক শারীরবৃত্তীয় আচরণ নিয়ে এ সমাজে ট্যাবুর অবসান আজও হয়নি ৷ আজও ঋতুমতী মহিলাদের সবরীমালা মন্দিরে প্রবেশ নিয়ে বিতর্ক ওঠে ৷ সেই সমাজে দাঁড়িয়ে ১০০ বছরেরও বেশি সময় আগে এমন ভাবনা ও এমন প্রথার শুরু করে নজির স্থাপন করেছে কেরালার ওই স্কুল ৷

First published: 05:13:28 PM Aug 21, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर