স্বামী নয়, স্ত্রী একাই নেবেন গর্ভপাতের সিদ্ধান্ত, জানাল সুপ্রিম কোর্ট

Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Oct 29, 2017 10:21 AM IST
স্বামী নয়, স্ত্রী একাই নেবেন গর্ভপাতের সিদ্ধান্ত, জানাল সুপ্রিম কোর্ট
Representational Image
Elina Datta | News18 Bangla
Updated:Oct 29, 2017 10:21 AM IST

 #নয়াদিল্লি: গর্ভপাত করানোর জন্য আবশ্যক নয় স্বামীর অনুমতি ৷ শনিবার গর্ভপাত সংক্রান্ত একটি মামলার শুনানিতে শীর্ষ আদালত জানিয়েছে, একজন প্রাপ্তবয়স্ক নারী তাঁর গর্ভস্থ ভ্রূণকে জন্ম দেবেন কিনা, এটা সম্পূর্ণ তাঁর সিদ্ধান্ত ৷ যদি তিনি সন্তান জন্মের জন্য প্রস্তুত না থাকেন অথবা গর্ভস্থ ভ্রূণকে জন্ম দিতে না চান তাহলে অন্য কারোর সেই সিদ্ধান্তে হস্তক্ষেপ করার অধিকার নেই ৷

গর্ভপাত সংক্রান্ত এই মামলায় সুপ্রিম কোর্ট স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিয়েছে, স্ত্রী যেহেতু নিজের গর্ভে ভ্রূণটি ধারণ করেছেন , তাই এব্যাপারে সম্পূর্ণ সিদ্ধান্তে নেবার অধিকার তাঁরই ৷ এক্ষেত্রে মহিলার স্বামীর অনুমতির কোনও প্রয়োজন নেই ৷ চণ্ডীগড়ের বাসিন্দা এক ব্যক্তি তাঁর স্ত্রীর বিরুদ্ধে আদালতের দ্বারস্থ হন ৷ সেই মামলার শুনানিতেই এই গুরুত্বপূর্ণ রায় দিয়েছে শীর্ষ আদালত ৷

১৯৯৪ সালে মামলাকারীর সঙ্গে চণ্ডীগড়েরই এক মহিলার বিবাহ হয় ৷ বিয়ের এক বছর পরে তাদের একটি পুত্রসন্তান হয় ৷ কিন্তু সাংসারিক সমস্যার কারণে তারা আলাদা হয়ে যান ৷ ডিভোর্স কেস চলাকালীন কোর্টের পরামর্শে ফের তারা ২০০২-এর নভেম্বর থেকে একসঙ্গে থাকতে শুরু করেন ৷ এই সময়ে মামলাকারীর স্ত্রী ফের গর্ভবতী হয়ে পড়েন ৷ কিন্তু সম্পর্কের অবনতির কারণে তিনি ডিভোর্সের সিদ্ধান্তেই অনড় থাকেন ৷ একইসঙ্গে গর্ভপাতের সিদ্ধান্ত নেন ৷

নতুন সমস্যার সূত্রপাত এখানেই ৷ মহিলার স্বামী গর্ভপাতে অসম্মতি জানান ৷ একইসঙ্গে তাঁর অনুমতি ছাড়া গর্ভপাত করানোর জন্য মহিলার বিরুদ্ধে আদালতে ৩০ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণের মামলা দায়ের করেন ৷ তাঁর দাবি, সম্মতি ছাড়া তাঁর ঔরসে সৃষ্ট ভ্রূণের অ্যাবরশন করানোর জন্য তিনি সাংঘাতিক আঘাত পেয়েছেন এবং মানসিক যন্ত্রণা ভোগ করেছেন ৷

সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্র নেতৃত্বাধীন ডিভিশন বেঞ্চ মামলাকারী এই আবেদন খারিজ করে দেয় ৷ একইসঙ্গে দেশের সর্বোচ্চ আদালত স্পষ্টভাবে জানিয়ে দেয়, নিজের গর্ভস্থ ভ্রূণ নিয়ে স্ত্রীর সিদ্ধান্তই চুড়ান্ত ৷ এমনকি একজন ভারসাম্যহীন গর্ভবতী মহিলাও নিজের গর্ভপাতের সিদ্ধান্ত নিজে নিতে পারবেন ৷

First published: 10:21:58 AM Oct 29, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर