পুরনো নোট বদলের সুযোগ কি মিলবে আবার?

Apr 12, 2017 11:33 AM IST | Updated on: Apr 12, 2017 11:33 AM IST

 #নয়াদিল্লি: পুরনো ৫০০ ও ১০০০ টাকার পুরনো নোট বদলের সময় উত্তীর্ণ ৷ গত বছরের ৩০ ডিসেম্বর অবধি বাতিল নোট পরিবর্তনের জন্য সময় দিয়েছিল অর্থমন্ত্রক ৷ কিন্তু নির্ধারিত সময়ের মধ্যে নানা কারণে বহু সাধারণ মানুষের পক্ষেই সমস্ত পুরনো নোট বদলে নেওয়া সম্ভব হয়নি ৷ সেই সব মানুষের জন্য আশার আলো দেখাল সুপ্রিম কোর্ট ৷

সময়সীমা উত্তীর্ণ হওয়ার পরও কি ফের নোট পাল্টানোর সুযোগ মিলবে? চলতি বছরের জুলাই মাসে এ প্রশ্নের উত্তর দিতে পারে শীর্ষ আদালত ৷

পুরনো নোট বদলের সুযোগ কি মিলবে আবার?

মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্টে প্রধান বিচারপতি জে এস খেহার এবং জাস্টিস ডি ওয়াই চন্দ্রচূড় ও সঞ্জয় কিষণ কলের বেঞ্চ জানায়, নোট বাতিল এবং বাতিল নোট বদলানোর সময়সীমা নিয়ে বিপুল পরিমাণ পিটিশন জমা পড়েছে আদালতে ৷ চলতি বছরের জুলাই মাসের মধ্যে সেই সমস্ত পিটিশন শুনবে শীর্ষ আদালত ৷ সব মামলা শেষের পরই আদালত সিদ্ধান্ত নেবে নোট বাতিলের জন্য কেন্দ্রের পুনরায় সময় দেওয়া উচিত কিনা ৷

যদিও কেন্দ্রের তরফে অ্যাটার্নি জেনারেল মুকুল রোহাতগি জানায়, নোট বাতিল অর্ডিন্যান্সের নিয়ম অনুযায়ী নির্ধারিত সময়ের মধ্যে নোট বদলাতে না পারলে তার দায় কেন্দ্রের নয় ৷ তাই পুনরায় নোট বদলের সুযোগ দেওয়ার কোনও দায়বদ্ধতা সরকারের নেই ৷ তবে এখনও যেকোনও কারণেই হোক যাদের কাছে বাতিল নোট রয়ে গিয়েছে তাঁরা আসলে অপরাধী ৷

গত বছরের ৮ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ঘোষণায় রাতারাতি বাতিল হয়ে যায় ৫০০ ও ১০০০-এর নোট ৷ ঘোষণার প্রথম পর্যায়ে কেন্দ্র জানিয়েছিল, ৩০ ডিসেম্বরের মধ্যে ব্যাঙ্ক থেকে বদলানো যাবে পুরনো নোট ৷ সেই সময়ের মধ্যে নোট বদলানো সম্ভব না হলে ৩০ ডিসেম্বরের পর রিজার্ভ ব্যাঙ্ক থেকে উপযুক্ত কারণ দেখিয়ে ৩১ মার্চ, ২০১৭ অবধি বাতিল নোট বদলানো যাবে ৷ যদিও পরে সেই সিদ্ধান্ত থেকে পিছু হটে অর্থমন্ত্রক ৷ ৩০ ডিসেম্বরের পর প্রবাসী ভারতীয় ছাড়া অন্য কেউ বাতিল নোট বদলাতে পারবেন না বলে জানিয়ে দেয় কেন্দ্র ৷

তবুও সুপ্রিম কোর্টের এই আশ্বাসে নতুন আশায় বুক বাঁধছেন বিপাকে পড়া সাধারণ নাগরিকেরা ৷

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES