অল্প বৃষ্টিতেই ক্লাসরুমে হাঁটু জল, ভেঙে পড়ছে ছাদের চাঙড় ! স্কুলে তালা ঝোলালেন গ্রামবাসীরা !

Siddhartha Sarkar | News18 Bangla
Updated:Aug 09, 2017 02:07 PM IST
অল্প বৃষ্টিতেই ক্লাসরুমে হাঁটু জল, ভেঙে পড়ছে ছাদের চাঙড় ! স্কুলে তালা ঝোলালেন গ্রামবাসীরা !
Photo : AFP
Siddhartha Sarkar | News18 Bangla
Updated:Aug 09, 2017 02:07 PM IST

#বাঁকুড়া:  গ্রামের একমাত্র প্রাথমিক স্কুলের সাকুল্যে ক্লাস রুমের সংখ্যা তিন । তার একটিতে অল্প বৃষ্টি হলেই জমে যায় হাঁটু জল । অন্য একটি ক্লাসরুমে মাঝে মধ্যেই খসে পড়ে ছাদের চাঙ্গড় । তখন স্কুলের ৮২ জন ছাত্র ছাত্রীকে বসতে দেওয়ার জায়গাটুকুও থাকে না । স্কুলে শিক্ষক সংখ্যাও অপ্রতুল । শিক্ষা দফতরে বারবার দরবার করেও লাভ হয়নি । বাধ্য হয়ে গত শুক্রবার থেকে স্কুলের দরজায় তালা লাগিয়ে স্কুল বন্ধ রাখলেন এলাকার অভিভাবকরা । ঘটনাটি ঘটেছে বাঁকুড়ার গঙ্গাজলঘাঁটি ব্লকের চৈতন্যপুর গ্রামে ।

বাঁকুড়ার গঙ্গাজলঘাঁটি ব্লকের চৈতন্যপুর গ্রামের প্রায় ২০০ পরিবারের কাছে প্রাথমিক স্কুল বলতে গ্রামের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় । গত চার বছর ধরে এই স্কুলটি সবদিক থেকেই বঞ্চনার শিকার । জেলার অধিকাংশ স্কুলে সর্বশিক্ষা মিশনের বরাদ্দ অর্থে ঝাঁ চকচকে বিল্ডিং হলেও এই স্কুল সেই দিক থেকে বঞ্চিত । স্কুলের আদ্যিকালে তৈরি হওয়া তিনটি ক্লাসরুমের দুটি এখন ক্লাস করার অযোগ্য । পার্শ্ববর্তি রাস্তা-সহ আশপাশের এলাকা উঁচু হয়ে যাওয়ায় বর্ষার জল চুইয়ে ক্লাস রুমের মেঝেতে জমা হয়ে যায় ।

কখনও ক্লাসরুমে হাঁটু জলের মধ্যে দাঁড়িয়ে আবার কখনও স্যাঁতস্যাঁতে ভেজা ক্লাসরুমেই পঠন-পাঠন চলে । বদ্ধ এই স্যাঁতস্যাঁতে ক্লাসরুমে দিনের পর দিন ক্লাস করতে গিয়ে অধিকাংশ শিশুই অসুস্থ হয়ে পড়ে । বিপজ্জনকভাবে পাশের ক্লাসরুমে মাঝে মধ্যেই ভেঙ্গে পড়ে ছাদের চাঙ্গড় । বিপদের আশঙ্কায় সেখানেও ক্লাস করানো যায় না । তৃতীয় ক্লাস রুমটি ছোট হওয়ার কারনে সেখানেও সমস্ত ছাত্র ছাত্রীকে বসতে দেওয়া যায় না ।

৮২ জন ছাত্রের জন্য রয়েছেন একজন শিক্ষক । একজন মাদার ট্রেনার থাকায় তাঁকেই সামলাতে হয় স্কুলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব । স্কুলের পরিকাঠামোর এই বেহাল অবস্থার হাল ফেরানোর দাবিতেই স্কুলে শুক্রবার তালা ঝুলিয়ে দেন গ্রামের মানুষ । তাঁদের দাবি, অবিলম্বে স্কুলের হাল না ফিরলে তালাবন্ধই থাকবে স্কুল । বাঁকুড়া জেলা প্রাথমিক শিক্ষা সংসদের দাবি সর্বশিক্ষা মিশন থেকে টাকা না মেলায় স্কুলের বিল্ডিং এর হাল ফেরানো যায়নি । তবে অন্য কোনও ভাবে তা করা যায় কি না, তার চেষ্টা করা হবে । শিক্ষকের অভাব দূর করতেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে ।

vlcsnap-2017-08-09-10h06m03s182

First published: 10:07:34 AM Aug 09, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर