এক্স ফাইলস দেখে আকাঙ্খাকে খুনের ছক, পুলিশের জেরায় স্বীকারোক্তি উদয়নের

Feb 11, 2017 07:03 PM IST | Updated on: Feb 11, 2017 07:03 PM IST

#পুরুলিয়া: এক্স ফাইলস দেখে আকাঙ্খাকে খুন, ডেভিলস নট দেখে দেহ লোপাটের চেষ্টা। জেরায় চাঞ্চল্যকর স্বীকারোক্তি সিরিয়াল কিলার উদয়ন দাসের। হাতের ছাপ যাতে না পড়ে সেজন্য প্লাস্টিক দিয়ে দেহ মুড়েও দেয় সে। তারপর দেহ ট্রাঙ্কে ভরে বাড়িতে রেখে, ভোপাল থেকে দিল্লি রওনা দেয় উদয়ন। পুলিশকে নির্বিকার মুখেই জানিয়েছে এই সাইকো কিলার।

পুলিশ হেফাজতের মেয়াদ শেষ হয়ে আসছে উদয়নের। বুধবার, ফের তাকে তোলা হবে কোর্টে। তার আগেই বড়সড় সাফল্য পেল পুলিশ। লাগাতার জেরায় সিরিয়াল কিলার জানিয়ে দিল গত বছরের ১৫ জুলাই সকালে ভোপালের বাড়িতে কী হয়েছিল?

এক্স ফাইলস দেখে আকাঙ্খাকে খুনের ছক, পুলিশের জেরায় স্বীকারোক্তি উদয়নের

ওইদিন সকালে আকাঙ্খা ও উদয়নের মধ্যে প্রচণ্ড ঝগড়া শুরু হয়।

ঝগড়ার সময় আকাঙ্খাকে গলা টিপে খুন করে উদয়ন। রিকন্স

খুনের পর আকাঙ্খার দেহ প্লাস্টিকে ঢেকে একটি বিরাট ট্রাঙ্কে ঢুকিয়ে দেয় সে। শীতের পোশাক রাখা হত ওই ট্রাঙ্কে।

এরপর, ট্রাঙ্কের  মধ্যে তরল সিমেন্ট দিয়ে ঢেলে দেয় উদয়ন।

ভোপাল আসার আগে দিল্লির একটি হোটেলে ৩টি লাগেজ রেখে এসেছিল আকাঙ্খা। খুনের পর, বাড়ি তালাবন্ধ রেখে আকাঙ্খার লাগেজ আনতে দিল্লি যায় উদয়ন।

কিন্তু, দিল্লি থেকে বাড়ি ফিরে উদয়ন টের পায় আকাঙ্খার দেহ ডিকম্পোজ হতে শুরু করেছে। তাই দুর্গন্ধ আটকাতে ট্রাঙ্কের ফাঁকফোকর সেলোটেপ দিয়ে আটকে দেয় সে।

এরপর, ড্রিল মেশিন ভাড়া করে তা দিয়ে দেওয়াল কাটে উদয়ন। রিকন্স

ট্রাঙ্কটি অ্যালুমিনিয়মের শিট দিয়ে ঘিরে দেয় সে।

এরপর, ২ জন মিস্ত্রিকে ডেকে সিমেন্ট-বালির মিশ্রণ তৈরি করতে বলে উদয়ন।

দেওয়ালের কাটা অংশে ট্রাঙ্কটি রেখে দেয় উদয়ন।

ঘরের ওই অংশে ট্রাঙ্কটি রেখে তার ওপর বেদি তৈরি করে দেয় সে।

এরপর, ফের মিস্ত্রিদের ডেকে ওই বেদি মার্বেল ও ইট দিয়ে সাজিয়ে দেয় উদয়ন।

গত বছরের ২৪ জুন দিল্লি হয়ে ভোপাল পৌঁছয় আকাঙ্খা। এরপর, দিন কুড়ির মধ্যেই খুন হয়ে যায় আকাঙ্খা শর্মা। তরল সিমেন্ট ও ট্রাঙ্ক জোগাড় করে রাখা দেখে পুলিশের ধারণা, আকাঙ্খাকে খুন করতে আগে থেকেই ছক কষছিল উদয়ন। জেরায় সাইকো কিলার জানায়, বিদেশি চ্যানেলের এক্স ফাইলস-এর কোনও একটি এপিসোড দেখেই কীভাবে খুন করবে তার পরিকল্পনা করে। এরপর, ডেভিলস নট সিনেমাটি দেখে সে দেহ লুকিয়ে রাখার ছক সাজায় সে। আকাঙ্খার আত্মীয় পরিজনদের অভিযোগ, তাঁর বাবা-মাকেও খুনের পরিকল্পনা ছিল উদয়নের।

জেরায় সিরিয়াল কিলার জানিয়েছে, আকাঙ্খার পরিবারকে সে কোনওদিনই টার্গেট করেনি। পুলিশের হাতে ইতিমধ্যেই আকাঙ্খার ময়নাতদন্তের রিপোর্ট এসেছে। তাতে উল্লেখ রয়েছে,

- আকাঙ্খাকে গলা টিপে, শ্বাসরোধ করে খুন করা হয়েছে

- তার মুখে, গালে ও কপালে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে

- তার ঘাড়ের হাড় ভাঙা

- খুনের আগে তাঁকে সম্ভবত মারধর করা হয়

- বন্ধ ট্রাঙ্কে তাঁর দেহ মামিফায়েড হওয়ার আগের অবস্থায় ছিল

- তাকে ঘুমের ওষুধ খাওয়ানো হয় কিনা তা জানার জন্য ভিসেরা পরীক্ষা হবে

- আকাঙ্খা অন্তঃসত্ত্বা ছিল কিনা তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES