লাভপুরে স্কুলে ছাত্রের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার

Feb 17, 2017 07:02 PM IST | Updated on: Feb 17, 2017 07:02 PM IST

#বীরভূম: লাভপুরে ছাত্রের আত্মহত্যার ঘটনায় স্কুল কর্তৃপক্ষকেই দায়ী করছে মৃতের পরিবার।  আত্মঘাতী পড়ুয়ার বাবার অভিযোগ, ঘটনার একদিন পরও স্কুল থেকে তাঁদের সঙ্গে কোনও যোগাযোগ করা হয়নি। পরিবারের দাবি, র‍্যাগিংয়ের শিকার অনিকেত বাগদী। বারবার জানানো সত্বেও কর্তৃপক্ষ কোনও পদক্ষেপ না করাতেই ভয়ে আত্মহত্যা করেছে অনিকেত।

লাভপুরে বৃহস্পতিবার দুপুরে স্কুলের পিছনেই ঊদ্ধার হয় ছেলের ঝুলন্ত দেহ। হস্টেলেই র‍্যাগিয়ের শিকার তাঁর ছেলে, অভিযোগ তোলেন বাবা বাসুদেব বাগদী। শুক্রবারও একই দাবিতে অনড় অনিকেতের পরিবার। আত্মঘাতী পড়ুয়ার পরিবারের দাবি, ঘটনার প্রায় একদিন পরও জহর নবোদয় বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করেনি।

লাভপুরে স্কুলে ছাত্রের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার

ময়নাতদন্তের প্রাথমিক রিপোর্টে আত্মহত্যার কথা থাকলেও পরিবার তা মানতে নারাজ। অঙ্ক পরীক্ষা দেওয়ার পর ক্লাস সিক্সের ছাত্রের এমন আত্মহননের ঘটনায় উঠছে বেশ কিছু প্রশ্ন । পুলিশ সূত্রে খবর,

-- জানুয়ারি মাসেই কেন্দ্রীয় সরকারি এই জহর নবোদয় বিদ্যালয়ের ক্লাস সিক্সে ভরতি হয় অনিকেত বাগদী

-- পরিবারের অভিযোগ, আবাসিক ছাত্রকে হাউজ ক্যাপ্টেন র‍্যাগিং করত

-- ফোনে পরিবারকে র‍্যাগিংয়ের কথা জানিয়েছিল অনিকেত

-- স্কুলে অভিযোগ জানানোর পরেও কেন কোনও পদক্ষেপ করা হল না?

-- কী এমন হল, যে স্কুলের পিছনে গাছে গলায় দড়ি দিল ষষ্ঠ শ্রেণির পড়ুয়া?

---অনিকেত কি আত্মহত্যাই করেছে ? নাকি রয়েছে অন্য কোনও রহস্য ?

-- মৃত্যুর পর কেন পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করেনি স্কুল?

এদিন ময়ূরেশ্বরের মল্লারপুর গ্রাম থেকে দেহ স্কুলে নিয়ে যাওয়ার উদ্যোগ নেয় পরিবার। তবে গোলমালের আশঙ্কায় ইন্দাস গ্রামে দেহ আটকায় পুলিশ। নিরপেক্ষ তদন্তের আশ্বাসে দেহ নিয়ে গ্রামে ফিরে যায় পরিবার। একইসঙ্গে সিবিআই তদন্তের দাবি জানিয়েছে অনিকেতের পরিবার।

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES