রাজ্যের দুই জেলায় ফের আক্রান্ত পুলিশ

Feb 17, 2017 07:46 PM IST | Updated on: Feb 17, 2017 07:46 PM IST

#বীরভূম: রাজ্যের দুই জেলায় ফের আক্রান্ত পুলিশ। সিউড়িতে জনতার রোষের মুখে চন্দ্রপুর থানার দুই কনস্টেবল। গাড়ি থেকে নামিয়ে ব্যাপক মারধরের অভিযোগ। পুলিশের গাড়ি ভাঙচুর করে আগুন লাগানোর চেষ্টা গ্রামবাসীদের। অন্যদিকে, রায়গঞ্জে কালীমন্দিরের দখলকে ঘিরে রাজ্য সশস্ত্র পুলিশের এএসআইকে অপহরণ করে মারধরের অভিযোগ। আতঙ্কে ঘরছাড়া এএসআইয়ের পরিবার।

সিউড়ি এবং রায়গঞ্জ। ফের আক্রান্ত পুলিশ। পুলিশ সূত্রে খবর,

রাজ্যের দুই জেলায় ফের আক্রান্ত পুলিশ

-- শুক্রবার দুপুরে ট্রাফিক ভেঙে পালানোর সময় অভিযুক্তদের ধাওয়া করে চন্দ্রপুর থানার পুলিশ

-- সেই সময় পুলিশের গাড়ির ধাক্কা লাগে অভিযুক্তদের বাইকে

-- আহত ৪ আরোহীকে হাসপাতালে নিয়ে যাচ্ছিল পুলিশ

-- রাস্তায় অ্যাম্বুল্যান্স দেখে নামানো হয় আহতদের

অভিযোগ, আহতদের রাস্তায় নামাতেই সিউড়ির রাজারপুকুরের কাছে গ্রামবাসীদের তীব্র রোষের মুখে পুলিশ। পুলিশের গাড়ির চালক পালিয়ে যায়। দুই কনস্টেবলকে ব্যাপক মারধর করে গ্রামবাসীরা। গাড়ি ভাঙচুর করে আগুন ধরানোর চেষ্টা হয়। প্রায় ১ ঘণ্টা সিউড়ি-বক্রেশ্বর রাস্তা অবরোধ করেন স্থানীয়রা। পরে বিশাল পুলিশবাহিনী ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

অন্যদিকে রায়গঞ্জের বাজিতপুরে কালীমন্দিরের জমি দখলে বাধা দিয়ে আক্রান্ত রাজ্য সশস্ত্র পুলিশের এএসআই মিলনচন্দ্র দাস। পরিবারের অভিযোগ,

-- বাড়ির জমিতেই একটি কালীমন্দিরের দখল নিতে চায় স্থানীয় কয়েকজন যুবক

-- বাধা দেওয়ায় ১৪ ফেব্রুয়ারি এএসআই মিলনচন্দ্র দাসকে অপহরণ করে দুষ্কৃতীরা

-- পরদিন তাহেরপুরের জঙ্গল থেকে উদ্ধার করা হয় ওই পুলিশকর্মীকে

রায়গঞ্জের পুলিশ হাসপাতালে ভরতি মিলনচন্দ্র দাস। আতঙ্কে ঘরছাড়া তাঁর পরিবার।

প্রশ্ন উঠছে, কেন বার বার আক্রান্ত হচ্ছেন উর্দিধারীরা? দুই ঘটনাতেই অবশ্য কাউকে গ্রেফতার করা যায়নি।

RELATED STORIES

RECOMMENDED STORIES