মিষ্টিহাবে ‘মাছি’! ক্রেতা না থাকায় প্রতিদিন নষ্ট হচ্ছে বহুটাকার মিষ্টি

Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Jun 20, 2017 08:55 AM IST
মিষ্টিহাবে ‘মাছি’! ক্রেতা না থাকায় প্রতিদিন নষ্ট হচ্ছে বহুটাকার মিষ্টি
Photo : AFP
Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Jun 20, 2017 08:55 AM IST

#বর্ধমান: ক্রেতার দেখা নেই। কার্যত মাছি তাড়াচ্ছেন বিক্রেতারা। প্রতি দিন নষ্ট হচ্ছে হাজার হাজার টাকার মিষ্টি। উদ্বোধনের দু’মাসের মধ্যেই এই করুণ ছবি বর্ধমানের মিষ্টিহাবের। মুখ্যমন্ত্রীর জেলা সফরের আগে তাঁর স্বপ্নের প্রকল্পের হাল ফেরাতে তৎপর প্রশাসন। যদিও আশার আলো দেখছেন না মিষ্টি বিক্রেতারা।

শুধু সীতাভোগ আর মিহিদানা নয়। বর্ধমান হয়ে উঠুক বাংলার মিষ্টির প্রাণকেন্দ্র। এটাই চেয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রীর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অনেক বাধা পেরিয়ে শেষমেশ, উল্লাসের কাছে দু'নম্বর জাতীয় সড়কের ধারে তৈরি হয় মুখ্যমন্ত্রীর স্বপ্নের প্রকল্প মিষ্টিহাব। সাত এপ্রিল উদ্বোধনের দিনই তড়িঘড়ি তিনটি দোকান চালু করা হয়। কিন্তু ওই পর্যন্তই। জাতীয় সড়কের ধারে হলেও, সারাদিনে ক্রেতার সংখ্যা হাতে গোনা। মাছি তাড়ানো ছাড়া কাজ নেই বিক্রেতাদের।

রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মিষ্টি এনে বিক্রি করা হয় এখানে। কিন্তু সেভাবে বিক্রি না হওয়ায় নষ্ট হচ্ছে বহু টাকার মিষ্টি। ক্রেতার নজর কাড়তে ঘোষণা করে প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল, মিষ্টি হাবের সামনে দাঁড়াবে সরকারি বাস। যদিও বাস্তব বলছে অন্য কথা।

একেই ক্রেতার দেখা নেই। তারওপর সমাজ বিরোধীদের উৎপাত। বেশিরভাগ দোকান খালি পড়ে থাকায় মিষ্টিহাব যেন অসামাজিক কার্যকর্মের কেন্দ্র হয়ে উঠছে।

চলতি মাসের শেষের দিকে বর্ধমানে প্রশাসনিক বৈঠক করতে আসছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাতেই ঘুম ছুটেছে জেলা প্রশাসনের। তড়িঘড়ি মিষ্টিহাব পরিদর্শন করে গেলেন জেলাপরিষদের সভাধিপতি দেবু টুডু। কিন্তু ব্যবসায়ীদের হাল কি ফিরবে? প্রশ্ন থাকছেই।

First published: 08:55:14 AM Jun 20, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर